ivanka trump

ওয়েবডেস্ক : দু’দিনের সফর শেষে মার্কিন মুলুকে ফিরে গিয়েছেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কন্যা ইভাঙ্কা। আন্তর্জাতিক উদ্যোগপতি সম্মেলনই ছিল তাঁর ভারতে আসার মুখ্য কারণ। যদিও নিজের দেশে ফিরতেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে, তিনি না কি আধার কার্ড তৈরি করানোর জন্যই ভারতে এসেছিলেন।

নিজাম আর বিরিয়ানির শহর হায়দরাবাদে তাঁর দু’দিনের সফর ছিল জৌলুসে মোড়া। তিনি আমেরিকা থেকে সঙ্গে নিয়ে এসেছিলেন ৩৬০ জন প্রতিনিধিকে। এছাড়া সারা বিশ্ব থেকে সম্মিলিত প্রায় হাজার দেড়েক উদ্যোগী প্রতিনিধির সামনে ভবিষ্যৎ মজবুত করার হরেক টোটকা বাতলে দিয়েছেন।অবসর সময়ে আমেরিকার রাষ্ট্রপতির পরামর্শদাত্রী হিসাবে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে নৈশাহারও সেরেছেন। তাও আবার যেমন তেমন জায়গায় নয়, তাজ ফলকনামার মতো বিলাসবহুল হোটেলে। টেবিলে কাঁটা চামচ হাতে বিশ্ব-রাজনীতির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতেও ভোলেননি। ঘুরে দেখেছেন ঐতিহাসিক গোলকুণ্ডা দুর্গ। এত ব্যাস্ততার মাঝেও তিনি কী ভাবে হাজির হলেন আধার সেন্টারে ?

নিজের দেশের প্রতিনিধিদের কাছে ইভাঙ্কা বলেছেন, তাঁর ভারতে আসার অন্যতম একটি কারণ হল নিজের আধার কার্ড তৈরি করানো। এবং এ কথা তিনি যে বলছেন তার একটি ভিডিও ফুটেজও মিলিছে।

পুরোটাই গাঁজাখুরি শোনালেও এমন একটি ভিডিও ট্যুইটারে প্রায় দু’হাজার বার রি-ট্যুইট হয়েছে। ভিডিওটি ট্যুইটারে পোস্ট করেছেন জোসে কোভাকো।

তা হলে কি সত্যিই ঘটেছে এমন একটি অযৌক্তিক ঘটনা? আধার কার্ড নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইউআইডিএআই-এর নিয়মানুযায়ী ইভাঙ্কা কোনো মতেই ভারতীয় নাগরিকত্বের সর্বোচ্চ পরিচয়পত্র পেতে পারেন না। তা ছাড়া খোদ ইভাঙ্কারই বা কেন এমন একটা অদ্ভুতুড়ে আশা জাগবে?

অবশ্য ট্যুইটটি যাঁরা মন দিয়ে দেখেছেন তাঁরা বুঝতে পারছেন প্রকৃত ঘটনা কী।সেখানে স্বীকার করা হয়েছে -ইটস আ জোকস।

আসলে এমটিভির ভিজে জোসে কোভাকো একজন কমেডিয়ান। একটি নির্দিষ্ট ভিডিও ফুটেছে তিনি ইভাঙ্কার ঠোঁটে নিজের গলা বসিয়েছেন মাত্র।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here