Harshita Dahiya killing

পানিপথ (হরিয়ানা) : মঙ্গলবার হরিয়ানার পানিপথ জেলার চামরাড়া গ্রামে একটি অনুষ্ঠান সেরে দিল্লিতে বাড়ি ফিরছিলেন লোকসঙ্গীত শিল্পী হর্ষিতা দাহিয়া। পথে গাড়ি থেকে নামিয়ে গুলি করে খুন করে দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনার পিছনে তাঁর জেলবন্দি জামাইবাবুর হাত রয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্ত মনে করছে পুলিশ।

পানিপথের পুলিশ সুপারিটেন্ডেন্ট রাহুল শর্মা হিন্দুস্থান টাইমসকে জানিয়েছেন, প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, হারিয়ানার নারেলার বাসিন্দা হার্ষিতা তার জামাইবাবুর বিরুদ্ধে ধর্ষনের অভিযোগ দায়ের করেন। বর্তমানে তাঁর জামাইবাবু তিহার জেলে বন্দি।

ওই পুলিশ আধিকারিক আরও জানিয়েছেন কিছুদিন আগে দিল্লিতে হর্ষিতার মাও খুন হন। সেই খুনের একজন সাক্ষী ছিল সে। খুনের কারণ হিসাবে ব্যক্তিগত আক্রশই বলে প্রাথমিক ভাবে মনে করছে পুলিশ। একটি খুনের অভিযোগ দায়ে করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন হর্ষিতা। সেখানে তিনি জানিয়েছিলেন তিনি নিয়মিত হুমকি পাচ্ছেন। ভিডিওতে তিনি বলেছেন, ‘‘আমি হুমকি পাচ্ছি। আমি কোনো ভুল কথা বলিনি। তোমার যা করার আছে তুমি কর। আমি মরতে ভয় পাই না।’’

মঙ্গলবার বিকেল অনুষ্ঠান সেরে চারটে নাগাদ বাড়ি ফিরছিলেন ২২ বছরের হর্ষিতা। সঙ্গে ছিলেন তাঁর দুই সহযোগী ও ড্রাইভার। হঠাৎ একটি পিছন থেকে একটি কালো রঙের গাড়ি এসে হর্ষিতাদের গাড়ির সামনে এসে রাস্তা আটকে দাঁড়ায়। অজ্ঞাত পরিচয় দুই সশস্ত্র দুষ্কৃতী গাড়ি থেকে নেমে তাঁর ড্রাইভার ও সহযোগীদের গাড়ি থেকে নেমে দাঁড়াতে বলে। তারা গাড়ি থেকে নামলে হর্ষিতাকে লক্ষ্য করে সাত রাউন্ড গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। সাতটি মধ্য ছ’টি গুলি লাগে হর্ষিতার কপালে এবং ঘাড়ে। ঘটনাস্থালেই তিনি মারা যান। তারপর দুই দুষ্কতী গাড়ি চেপে পালিয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here