রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে এগোচ্ছে কর্নাটক!

ওয়েবডেস্ক: আস্থাভোটে পরাজিত হয়ে কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীপদ হারিয়েছেন এইচ ডি কুমারস্বামী। কিন্তু গত মঙ্গলবার আস্থাভোটের পর দু’দিন কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত সরকার গঠনের দাবি জানাতে পারেনি বিজেপি। এর নেপথ্যে রয়েছে, প্রায় ১৫ জন বিধায়কের ইস্তফা দেওয়া নিয়ে তৈরি হওয়া জটিলতা। পাশাপাশি কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীপদে বি এস ইয়েদ্দিয়ুরাপ্পাকেই ফিরিয়ে নিয়ে আসা হবে, নাকি নতুন মুখ আসবে, সেই প্রশ্নের স্থায়ী সমাধানও উঠে আসেনি দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে রাজ্য নেতাদের আলোচনায়। সব মিলিয়ে ক্রমশ রাষ্ট্রপতি শাসনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে কর্নাটক।

কী ভাবে এগোচ্ছে?

ক্ষমতাসীন কংগ্রেস-জেডিএস জোট‌ সরকারের ১৫ বিধায়ক ইস্তফা দিয়েছিলেন বলে দাবি করা হয়। কিন্তু তাঁদের ইস্তফাপত্রগুলি গ্রহণ করেননি কর্নাটক বিধানসভার অধ্যক্ষ কে আর রমেশ কুমার। ফলে তাঁরা যদি বিধায়ক পদে বহাল থেকে যান, সে ক্ষেত্রে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক বিধায়কের সংখ্যা দাঁড়াবে ১১৩। ২২৫ আসনের কর্নাটক বিধানসভার আস্থাভোটে বিজেপি পেয়েছে ১০৫ জন বিধায়কের সমর্থন। স্বাভাবিক ভাবেই এখনই সরকার গঠনের দাবি জানাতে হলে ওই বিধায়কদের ইস্তফা গ্রহণ একান্ত কাম্য বিজেপির কাছে। তবেই ২১০ আসনের বিধানসভায় ১০৫ জন বিধায়ক সঙ্গে নিয়ে সরকার গঠনের দাবি জানাতে পারবে বিজেপি।

এ ভাবে চললে কী হবে?

আস্থাভোটের দিন সন্ধ্যা ৬টা থেকেই বেঙ্গালুরুতে ১৪৪ ধারা জারি করেন পুলিশ কমিশনার অলোক কুমার, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা জারি থাকবে বলে জানা গিয়েছিল। বিধানসভায় কোনো দল বা জো‌ট নতুন সরকার গঠন না করলে রাষ্ট্রপতি শাসনের সুপারিশ করতে পারেন কর্নাটকের রাজ্যপাল বজুভাই বালা।

বিজেপির বয়স-কাঁটা

আস্থাভোটের সময় থেকেই বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে প্রচারে ছিল ইয়েদ্দির নাম। কিন্তু সেখানে বিঁধছে বয়সের কাঁটা। ইয়েদ্দি ৭৫ পার করে ৭৬-এ পা দিয়েছেন। তাঁর জন্ম ১৯৪৩ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি। স্বাভাবিক ভাবেই বিজেপির সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী তিনি কী ভাবে মুখ্যমন্ত্রী কুরসিতে বসবেন, তা নিয়েই চলছে জোর গুঞ্জন। বয়সজনিত নীতির কোপে পড়ে বাতিল হয়েছিলেন লালকৃষ্ণ আডবাণী, সুমিত্রা মহাজনের মতো প্রবীণ নেতৃত্ব।

স্বাভাবিক ভাবেই রাজনৈতিক মহলের ধারণা, তা হলে কি দল ভাঙানোর অপবাদ ঘোচাতে অন্য কোনও সমীকরণের পথে এগোচ্ছেন অমিত শাহরা? নাকি বিদ্রোহী বিধায়কদের নিয়ে অধ্যক্ষের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় রয়েছেন সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি? বৃহস্পতিবার কর্নাটকের দলীয় নেতৃত্বের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করছেন তিনি। রাষ্ট্রপতি শাসন জারি করে নতুন ভাবে বিধানসভা ভোট করানোর দিকে এগোবে কিনা গেরুয়া শিবির, জানার জন্য এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা!

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.