mahagathbandhan

ওয়েবডেস্ক: খুব বেশি দিন আগের কথা নয়। গত ২০১৭ সালের মে মাসে সংবাদ মাধ্যমের একাংশ ধারণা করেছিল, জেডি (ইউ) নেতা নীতীশ কুমার বিজেপির এনডিএ-তে ফিরছেন। হয়েওছিল তাই। ফের ২০১৮ সালের মে মাস থেকে সংবাদ মাধ্যমেই জল্পনা-নীতীশ কুমার কংগ্রেসের মহাজোটে ফিরতে পারেন। আদৌ হবে কি তাই?

বিহার তো বটেই সারা দেশের একাংশে নীতীশ কুমারের পরিচয় ‘সুশাসনবাবু’ নামে। তিনি একটু অন্য ঘরানার প্রশাসক। অন্তত তাঁর ‘বড়দা’ শরিক বিজেপি তা অক্ষরে অক্ষরে মানে। কিন্তু সাম্প্রতিক উত্তরপ্রদেশ এবং বিহারের উপনির্বাচনের ফলাফল ও আগামী লোকসভা ভোটে আসন বণ্টন নিয়ে উদ্গত সমস্যায় জেডি (ইউ)-র অধিকাংশ নেতা চাইছেন বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগ করতে। উল্টো দিকে মহাজোটে গেলেও যে ৪০-এর মধ্যে ২৫ আসন জুটবে, তেমনটাও নয়। তবুও রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতিতে যত কমই আসন মিলুক মহাজোটের প্রার্থী হতে পারলে জয়ের নিশ্চয়তা অনেকটা বেশি।

গত ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে নীতীশের দল জিতেছিল মাত্র ২টি আসনে। সেই জায়গায় এনডিএ-তে থাকলে তাঁর বরাতে মিলতে পারে বড়ো জোর ১০-১১টি আসন। কিন্তু বাকি আসন বিজেপি-কে ছেড়ে দিয়ে নিশ্চিন্তি হওয়ার ব্যাপার নেই। নীতীশ কুমার ওরফে সুশাসনবাবু নিজের ভবিষ্যৎ যেন খুঁজে পাচ্ছেন মহাজোটেই। যে কারণে বারবার ঘুরেফিরে তাঁর নাম আসছে আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদবের মুখে। নীতীশ স্বয়ং আরজেডি সুপ্রিমো লালুপ্রসাদের সঙ্গে ফোনালাপ করার পর নীতীশের সুপ্ত ইচ্ছা ক্রমশ বিস্ফারিত হচ্ছে। বিহারের রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মত, জেডি (ইউ)-র অধিকাংশ নেতা চাইছেন মহাজোটের শরিক হতে।

কিন্তু লালু-তনয় ক্রমাগত হুঙ্কার ছেড়ে চলেছেন-চাচা নীতীশকে তাঁরা কোনো মতেই এন্ট্রি দিতে প্রস্তুত নন। এখন দেখা্র বিজেপির সঙ্গে জেডি (ইউ)-র আসন নিয়ে দর কষাকষি কোথায় গিয়ে ঠেকে? কারণ আপাতত ওই একটা বিষয়ের উপরই এখনও ঝুলে আছে সুশাসনবাবুর জোট বদলের ‘গল্প’।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here