supreme court

নয়াদিল্লি: মুখে চার বিচারপতি যতই দাবি করুন সমস্যা মিটে যাওয়ার কথা, সুপ্রিম কোর্টের সমস্যা মিটেছে বলে আদৌ মনে হচ্ছে না। এক দিকে যখন সমস্যার সমাধান নিয়ে পরস্পরবিরোধী মন্তব্য করছেন অ্যাটর্নি জেনারেল এবং বার কাউন্সিল, ঠিক তখনই প্রধান বিচারপতি গঠিত সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চে ঠাঁই হল না চার বিদ্রোহী বিচারপতির।

বার কাউন্সিল বলছে ‘সমস্যা মিটেছে’, অ্যাটর্নি জেনারেল বলছেন ‘সমস্যা এখনও মেটেনি’। বার কাউন্সিল এবং অ্যাটর্নি জেনারেলের পরস্পরবিরোধী মন্তব্যে জল্পনা ক্রমশই বাড়ছে।

‘চায়ের কাপে তুফান’, এই আখ্যা দিয়ে সোমবারই তিনি বলেছিলেন সুপ্রিম কোর্টের সব সমস্যা মিটে গিয়েছে। চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই নিজের মন্তব্য থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেলেন কেন্দ্রের অ্যাটর্নি জেনারেল কেকে বেনুগোপাল। জানিয়ে দিলেন বিচারবিভাগের সমস্যা এখনও পুরোপুরি মেটেনি।

পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মঙ্গলবার অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, “আমার মনে হচ্ছে সমস্যা এখনও পুরোপুরি মেটেনি। আশা করছি দু’তিন দিনের মধ্যে সব সমস্যা মিটে যাবে।” শুধু অ্যাটর্নি জেনারেলই নন, সমস্যার সমাধান এখনও হয়নি বলে ইঙ্গিত দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশনও। অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বিকাশ সিংহ এ দিন বলেন, “এই সপ্তাহের মধ্যেই সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।” তবে নিজেদের অবস্থানেই রয়েছে বার কাউন্সিল।

সোমবার বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মনন মিশ্র জানান, “সব সমস্যা মিটে গিয়েছে।” মঙ্গলবারও একই কথা তাঁর মুখে। মননের দাবি, বার কাউন্সিলের প্রতিনিধিদলকে বিচারপতি গগই এবং লোকুর আশ্বাস দিয়েছেন যে সব সমস্যা মিটে গিয়েছে। মননের কথায়, “বিচারপতি গগই বলে দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টে এখন আর কোনো সমস্যা নেই।”

অ্যাটর্নি জেনারেলের মন্তব্যের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে মনন বলেন, “আমি জানি না কেন অ্যাটর্নি জেনারেল এই ধরনের মন্তব্য করেছেন। সব বিচারপতিই কাজে ফিরে গিয়েছেন এবং সুপ্রিম কোর্টের কাজকর্ম ঠিকঠাক চলছে। সেই জন্যই বলছি এখন আর কোনো সমস্যা নেই কোথাও।”

গুরুত্বপূর্ণ বেঞ্চে ঠাঁই হল না চার বিদ্রোহীর

এ দিকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানির জন্য পাঁচ সদস্যের একটি সাংবিধানিক বেঞ্চ গঠন করেছেন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র। এই বেঞ্চে ঠাঁই হয়নি বিদ্রোহী চার বিচারপতির।

বুধবার আটটি গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি হবে এই বেঞ্চে, যার মধ্যে রয়েছে আধার এবং সংবিধানের ৩৭৭ ধারার বৈধতার মতো গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলি। শুনানি হওয়ার কথা কেরলের সাবারিমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকার নিয়েও। প্রধান বিচারপতি যে পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ গঠন করেছেন সেখানে তিনি নিজে ছাড়াও রয়েছেন, বিচারপতি একে সিকরি, বিচারপতি এএম খানউইলকর, বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচুড় এবং বিচারপতি অশোক ভূষণ।

তবে সমস্যা মেটানোর ইঙ্গিত দিয়ে এ দিনই চার বিদ্রোহীর সঙ্গে দেখা করেন দীপক মিশ্র। সূত্রের খবর ভবিষ্যতেও এই ধরণের আরও মিটিং হবে দু’পক্ষের মধ্যে। তবে এ দিনের বৈঠকে কী আলোচনা হয়েছে সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here