জামিন আবেদনের শুনানি শুক্রবার, আগের দিন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে জেলবন্দি সমাজকর্মী স্টান স্বামীকে

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: আদিবাসী অধিকারকর্মী, ৮৪ বছরের জেসুইট মিশনারি স্টান স্বামীকে (Stan Swamy) স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য মুম্বইয়ের একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে আগামী বৃহস্পতিবার। শুক্রবার তাঁর জামিন আবেদনের শুনানি বম্বে হাইকোর্টে (Bombay High Court)। তার আগে তাঁর স্বাস্থ্য-সম্পর্কিত রিপোর্ট জমা করার কথা।

জেলবন্দি সমাজকর্মী এখন পার্কিনসনে ভুগছেন। মহারাষ্ট্রের ভীমা-কোরেগাঁও হিংসার ঘটনায় (Koregaon-Bhima case) জড়িত থাকার অভিযোগে তাঁকে গত বছরের অক্টোবর মাসে গ্রেফতার করেছিল তদন্তকারী সংস্থা। নবি মুম্বইয়ের তালোজা জেলে বর্তমানে অসুস্থতার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন তিনি।

Shyamsundar

তালোজা জেলে যথোপযুক্ত চিকিৎসা সুবিধা না পাওয়ার অভিযোগ করেছিলেন স্বামীর আইনজীবী মিহির দেশাই। চিকিৎসা পরিষেবার অভাব, অতিরিক্ত ঘিঞ্জি হওয়ায় কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে শারীরিক দূরত্বের অভাব এবং সার্বিক ভাবে তাঁর শারীরিক অবনতির বিবরণ জমা দেওয়া হয়েছিল উচ্চ আদালতে।

হাইকোর্টে গত ৪ মে-র শুনানিতে দেশাই বলেছিলেন, সাত মাস আগে স্বামীকে গ্রেফতারের পর থেকে তাঁকে তালোজা জেল হাসপাতালে রাখা হয়েছে। যেখানে মাত্র তিন জন আয়ুর্বেদ চিকিৎসক রয়েছেন এবং অন্য কোনো চিকিৎসক বা প্রশিক্ষিত মেডিক্যাল কর্মী নেই।

প্রসঙ্গত, প্রায় ডজনখানেক সমাজকর্মীকে ভীমা-কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত হিসাবে জড়ানো হয়েছিল। যা পরে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থার (NIA) হাতে স্থানান্তর করা হয়। বিশেষ এনআইএ আদালত এই মামলার শুনানিতে স্বামীর জামিন আবেদন খারিজ করেছিল। এনআইএ বলেছে, স্বামী মাওবাদী গোষ্ঠীর সদস্যদের নিয়ে দেশে অশান্তি তৈরির জন্য একটি “গুরুতর ষড়যন্ত্র” করার পরিকল্পনা করেছিলেন। এ ব্যাপারে তদন্তকারীদের হাতে পর্যাপ্ত প্রমাণ রয়েছে।

গত অক্টোবরে সংস্থার এক আধিকারিক জানিয়েছিলেন, ‘‘মাওবাদী কার্যকলাপ ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য তিনি তহবিলও পেতেন।’’

আরও পড়তে পারেন: ধৃত মিশনারি স্টান স্বামীকে মাওবাদী সদস্য বলল এনআইএ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন