modi-arun-jeitly
ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: দ্বিতীয়বার কেন্দ্রে সরকার গড়তে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী। অসুস্থতার জন্য বিজেপির এই ‘আশাতীত’ সাফল্যের পর বৃহস্পতিবার দলের হেডকোয়াটারে সশরীরে হাজির হতে পারেননি অরুণ জেটলি। টুইট করে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন তিনি। প্রশ্ন হল, তিনি কি এ বারও মোদী সরকারে অর্থমন্ত্রী হচ্ছেন?

সংবাদ সংস্থা রয়টারের কাছে বিজেপির কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, শারীরিক অসুস্থতার জন্য এ বার মোদী সরকারে অর্থমন্ত্রী পদের দায়িত্ব নেবেন না জেটলি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিজেপি নেতারা জানিয়েছেন, ৬৬ বছরের জেটলির শরীরের অবস্থা গত কয়েক মাসে ক্রমশ খারাপের দিকে গিয়েছে। তাই তাঁর পক্ষে অর্থমন্ত্রকের মতো চাপের দফতর চালানোটা বেশি কঠিন।  এর বদলে তাঁকে কম চাপের কোনো মন্ত্রক দেওয়া হতে পারে বলে ওই সূত্র জানিয়েছেন।

এ নিয়ে বিস্তারিত জানার জন্য জেটলিকে ফোন করা হয়। কিন্তু তাঁর মোবাইল বন্ধ ছিল। এসএমএস করা হলেও তিনি তাঁর কোনো উত্তর দেননি।  একই ভাবে জেটলির ব্যক্তিগত সচিব ও বিশেষ দায়িত্বে থাকা আধিকারিকও ফোন ধরেননি, ই-মেল বা এসএমএসেরও উত্তর দেননি।

বিজেপির ‘থ্রি মাসকেটিয়ার্সের’  মধ্যে একজন অরুণ জেটলি। গত তিন সপ্তাহ ধরে তাঁকে আর প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। তবে তিনি ভোটে দলের সাফল্য কামনা করে ব্লগ লিখেছেন,  টুইট করেছেন।

ডায়বেটিস আক্রান্ত জেটলির কিডনি প্রতিস্থাপন হওয়ার পর থেকে তাঁর শরীরিক অবস্থা ক্রমশ খারাপ হতে থাকে। ভোটের আগে অন্তর্বতীকালীন বাজেটও তিনি পেশ করতে পারেন নি। ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য বিদেশে ছিলেন। তাঁর বদলে পীযূষ গোয়েল বাজেট পেশ করেন।

কাকে অর্থমন্ত্রী করা হবে?

আগামী ৩০ মে শপথ নেবেন নরেন্দ্র মোদী। তাই প্রশ্নটা ঘুরে বেড়াচ্ছে মোদী সরকারের সেকেন্ড ইনিংসে কে হবেন তাঁর অর্থমন্ত্রী?

২০১৪ সালে অর্থমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী জেটলিকে প্রতিরক্ষা এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের দায়িত্ব দেন। অর্থমন্ত্রী হিসাবে জিএসটি সহ আরও বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেন জেটলি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিজেপির এক নেতা জানিয়েছেন, নরেন্দ্র মোদী তাঁর ডান হাত অমিত শাহকে অর্থমন্ত্রকের দায়িত্বে নিতে বলতে পারেন। তবে এ নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানাতে চাননি তিনি। অর্থমন্ত্রী হিসাবে পীযূষ গোয়েলের নামও উঠে আসছে আলোচনায়।

তবে গতবারের মতো যদি অর্থমন্ত্রকের কড়া কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরিকল্পনা থাকে তবে হেভিওয়েট কাউকেই অর্থমন্ত্রকে বসাবেন মোদী। ভোটর ফল বেরোনোর পরপরই প্রধানমন্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের নামের আগে লেখা ‘চৌকিদার’ শব্দটি তুলে দিয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here