তামিলনাড়ূ : জল্লিকাট্টুর সমর্থনে শুক্রবার থেকে অনশনে বসতে চলেছেন অস্কারজয়ী সঙ্গীত পরিচালক এ আর রহমান। আর বিশ্বজয়ী দাবাড়ু বিশ্বনাথন আনন্দ বলেছেন, ‘জল্লিকাট্টু’ তামিলনাড়ুর সংস্কৃতির পরিচয়। এটিকে শ্রদ্ধা করা উচিত। ইতিমধ্যেই বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে তাল মিলিয়েছেন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থেকে শুরু করে বিনোদন জগতের বহু তারকাও। তালিকায় রয়েছেন রজনীকান্ত। রয়েছেন কামাল হাসনও। শুক্রবার জল্লিকাট্টু নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ডিএমকে রাজ্য জুড়ে রেল রোকো-র ডাক দিয়েছে। 

দেশের সর্বোচ্চ আদালত রায় দিয়ে জল্লিকাট্টু নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।  সেই প্রসঙ্গে বলেন, তিনি নিজেই পশুস্বার্থ রক্ষার পক্ষে। কিন্তু ‘জল্লিকাট্টু’ হল সংস্কৃতির প্রতীক। একটা প্রাচীন প্রথা। এ ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা ঠিক নয়। সকলের উচিত জল্লিকাট্টুর প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া। তিনি বাহবা দিয়েছেন রাজ্যের যুব সম্প্রদায়কে। তাঁর মতে, রাজ্যের যুবসম্প্রদায়ের মধ্যে যেমন রয়েছে নতুনত্ব, তেমনই তাঁদের শিকড় রয়েছে সংস্কৃতির সঙ্গে বাঁধা। তাই তাঁরা এই কঠিন বিরোধিতায় নেমেছেন।

অন্য দিকে, বিক্ষোভকারীদের সমর্থনে শুক্রবার থেকে অনশনে বসবেন বলে জানিয়েছেন এ আর রহমান। এ বিষয়ে তিনি একটি টুইট করেছেন। বৃহস্পতিবার এই টুইটেই তিনি তাঁর সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, তিনি তামিলনাড়ুবাসীদের এই সাহসিকতাকে সমর্থন করেন। তাঁদের সমর্থনেই তিনি অনশনে বসবেন।

এ দিনই তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে একটি বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী জানিয়ে দেন, ‘জল্লিকাট্টু’ সংস্কৃতির প্রতীক। এর প্রতি পূর্ণ সমর্থন ও শ্রদ্ধা আছে কেন্দ্রের। কিন্তু এই প্রথা নিষিদ্ধ করার বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত। তা বিচারাধীন বিষয়। সুতরাং, এই বিষয়ে কেন্দ্রের পক্ষে প্রত্যক্ষ ভাবে কিছু করা সম্ভব নয়। 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here