চেন্নাই: বিমানে গোলমাল হওয়ায়, যেতে দেরি হয়েছে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের। কিন্তু সময় মতোই চেন্নাই পৌঁছে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ জি দেবগৌড়া, কংগ্রেস সহ সভাপতি রাহুল গান্ধী। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ সহ হাজির আট রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। আম্মার মৃত্যু ঘিরে রাজনীতির নানা রং এদিন ছড়িয়ে থাকল চেন্নাইয়ের রাজাজি হলে।

এতো গেল নেতাদের কথা। সকাল থেকে লাখো মানুষ জড়ো হয়েছিলেন তাদের ‘পুরাতচি থালাইভি’-কে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে। চোখের জল বাঁধ মানছিল না কারও। রাজাজি হল থেকে মেরিনা বিচ পর্যন্ত ৩ কিলোমিটার যাওয়ার পথে আম্মার শববাহী গাড়ির পেছনে ছিলেন হাজারো মানুষ। সেখানেই সমাধিস্থ করা হল আম্মাকে। পাশেই ১৯৮৭ সালের দাহ হয়েছিল আর এক মুখ্যমন্ত্রীর। জয়ললিতার মেন্টর এমজি রামচন্দ্রনের।

এদিন সকাল থেকেই জয়ললিতার দেহের পাশে চোখে জল নিয়ে একটানা দাঁড়িয়ে ছিলেন তাঁর দীর্ঘদিনের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ মানুষটি। শশীকলা। প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রীর সবুজ শাড়িটি ঠিক করে দিতেও দেখা যায় তাঁকে। শোনা যাচ্ছে, পনীরসেলভাম মুখ্যমন্ত্রী থাকলেও, এআইডিএমকে-র দায়িত্ব তিনিই পেতে চলেছেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here