সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হলে নির্ভরশীলের নিয়োগ মোটেই অধিকার নয়, বলল সুপ্রিম কোর্ট

0

নয়াদিল্লি: সরকারি চাকরিতে সহানুভূতির ভিত্তিতে নিয়োগ বিশেষ কোনো ‘ছাড়’ হতে পারে, মোটেই অধিকার নয়। মঙ্গলবার একটি মামলার শুনানিতে এমনটাই বলল সুপ্রিম কোর্ট।

সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, সংবিধানের ১৪ এবং ১৬ অনুচ্ছেদের অধীনে সমস্ত সরকারি শূন্যপদের জন্য সব প্রার্থীদের সমান সুযোগ দেওয়া উচিত, কিন্তু সমবেদনার ভিত্তিতে নিয়োগ মাপদণ্ড লঙ্ঘনের শামিল।

সমবেদনার উদ্দেশ্য

বিচারপতি এমআর শাহ এবং বিচারপতি এআর বোপান্নার একটি বেঞ্চের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, সরকারি চাকরিতে সহানুভূতির ভিত্তিতে নিয়োগ আদতে নিয়োগের সাধারণ নিয়মের ব্যতিক্রম। ইতিপূর্বেই আদালত বেশ কয়েকটি রায়ে তা নির্ধারিত করেছে।

বেঞ্চ আরও বলেছে, সহানুভূতির ভিত্তিতে কর্মসংস্থান প্রদানের পুরো উদ্দেশ্য হল পরিবারকে আকস্মিক সংকট কাটিয়ে উঠতে সক্ষম করা। এমন পরিবারকে মৃতের পদমর্যাদার চেয়ে নিম্ন পদ দেওয়া এর উদ্দেশ্য নয়।

মামলার উৎস

এলাহাবাদ হাইকোর্ট এক চতুর্থ শ্রেণির সরকারি কর্মচারীর বিধবা স্ত্রীকে তৃতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছিল। হাইকোর্টের সিদ্ধান্ত বাতিল করে বেঞ্চ উত্তরপ্রদেশ সরকারের আবেদন শুনানির জন্য গ্রহণ করে।

সুপ্রিম কোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চে ওই মামলা উঠলে, হাইকোর্টের নির্দেশ বাতিল করে দেওয়া হয়। যেহেতু বিধবার স্বামী চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ছিলেন, তাই তাঁকে তৃতীয় নিয়োগ বাতিল করে সিঙ্গল বেঞ্চ।

একই সঙ্গে সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দেয়, কর্মরত অবস্থায় সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হলে নির্ভরশীল পরিবারের সদস্যের চাকরি মোটেই অধিকার নয়। মানবিকতার ভিত্তিতে এবং পরিস্থিতি বিচার করেই সেই নিয়োগ কার্যকর হয়।

স্বাভাবিক ভাবেই মানানসই কোনো পদে মৃতের উপর নির্ভরশীলকে নিয়োগের পরামর্শ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। সে ক্ষেত্রে নির্ভরশীল ব্যক্তির শারীরিক এবং শিক্ষাগত যোগ্যতার নিরিখেই তাঁকে নির্দিষ্ট কোনো পদে নিয়োগ করা যেতে পারে। তবে সহানুভূতির প্রেক্ষিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মৃত কর্মচারীর থেকে উচ্চপদের দাবি করতে পারেন না নির্ভরশীল ব্যক্তি।

আরও পড়তে পারেন: 

এখন ডিজি লকারে পেনশনের এই বড়ো সুবিধাটি পাওয়া যাবে, উপকৃত হবেন ২৩ লক্ষ পেনশনভোগী

দুঃসংবাদ! পুরনো গাড়ির রেজিস্ট্রেশন পুনর্নবীকরণে খরচ বেড়ে ৮ গুণ!

পথ দুর্ঘটনায় আহতকে হাসপাতালে পৌঁছে দিলে মিলবে বিপুল অঙ্কের পুরস্কার, বড়ো ঘোষণা কেন্দ্রের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন