pollution

ওয়েবডেস্ক: শরীর বড়ো বালাই। শরীর সুস্থ থাকলেই সব কিছু ভালো ভাবে হবে। সেই শরীরকে ভালো রাখার জন্য প্রয়োজনে ভালো মাইনের চাকরির অফার ফিরিয়ে দিতেও পিছপা হচ্ছেন না চাকরিপ্রার্থীরা। এমনই ছবি দেখা যাচ্ছে দিল্লির দূষণের পরিপ্রেক্ষিতে।

কয়েক মাস আগে পর্যন্ত দিল্লিই ছিল চাকরিপ্রার্থীদের স্বর্গরাজ্য। একটা ভালো মাইনের অফার পেয়ে গেলে দিল্লি চলে আসতে দু’বার ভাবতেন না চাকরিপ্রার্থীরা। কিন্তু সেই ছবি এখন আর নেই।

উচ্চ পদ এবং মাইনেতে ৪০ শতাংশ বৃদ্ধির অফার পাওয়া সত্ত্বেও তা ফিরিয়ে দিয়েছেন ওষুধশিল্পের সঙ্গে যুক্ত এক আধিকারিক। বিটিআই কনসালট্যান্ট নামক এক তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর জেমস অগরওয়াল বলেন, “দূষণের কারণ দেখিয়ে চাকরি ফিরিয়ে দেওয়ার ঘটনা এই প্রথম ঘটল।” তিনি বলেন, আগেও অনেকেই দিল্লিতে চাকরি নেওয়ার ব্যাপারে সন্দিহান থাকতেন, কিন্তু সব শেষে ভালো মাইনের প্রস্তাবেই তাঁরা চাকরি নিয়ে নিতেন। কিন্তু এখন সেটাও হচ্ছে না।

হেড হান্টার্স ইন্ডিয়ার কর্ণধার ক্রিস লক্ষ্মীকান্ত বলেন, তাঁর সংস্থা একজনকে বছরে তিন কোটি টাকার অফার দেওয়া সত্ত্বেও তিনি সেই অফার ফিরিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, “তাঁকে মোটা মাইনের প্রস্তাবের পাশাপাশি আরও অনেক সুযোগসুবিধা দেওয়ার প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দূষণে তাঁর সন্তানদের শরীরে প্রভাব ফেলতে পারে, সেই কারণ দেখিয়ে এই চাকরিটি ফিরিয়ে দেন তিনি।”

শুধু চাকরি ফিরিয়ে দেওয়া নয়, দূষণের কথা মাথায় রেখে ভারত এবং বিদেশের অনেকেই দিল্লিতে তাদের বাণিজ্য বা ব্যবসা সংক্রান্ত সফর বাতিল করে দিতে বাধ্য হচ্ছেন। এর ফলে দিল্লির ভাবমূর্তিতে যে বিশাল প্রভাব পড়ছে সে কথা বলেন হান্ট পার্টনার্স সংস্থার মুখপাত্র প্রফুল নঙ্গিয়া। তাঁর কথায়, “দিল্লির বর্তমান অবস্থা নিয়ে সারা বিশ্বে একটা নেতিবাচক ধারণা তৈরি হচ্ছে। সব আলোচনার শেষে চলে আসছে দূষণের প্রসঙ্গ।”

উল্লেখ্য, দূষণের জন্যই কিছু দিন আগে নিজেদের দূত মারিয়েলা ক্রুজ আলভারেজকে দিল্লি থেকে বেঙ্গালুরুতে পাঠিয়ে দিয়েছে কোস্তা রিকা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here