নয়াদিল্লি: ৪ বছর পর জামিন পেলেন ওরা তিনজন। সচিন মালি, সাগর গোরখে, রমেশ ঘাইচর। কবির কলা মঞ্চের তিন সদস্যের জেল হয়েছিল রাজনৈতিক গান গাওয়ার জন্য। সরকারি অভিযোগ ছিল রাষ্ট্রদ্রোহিতার। 

মূলত মহারাষ্ট্রের পুনেতে দলিত এবং শ্রমিক শ্রেণির বেশ কিছু মানুষ কাছাকাছি এসে তৈরি করেছিল সাংস্কৃতিক কবির কলা মঞ্চ। ২০০২ এর গুজরাতের সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার পরপরই দেশের কোনায় কোনায় পৌঁছে গিয়েছিল ওদের প্রতিবাদ। ২০১৩-তে কবির কলা মঞ্চের সদস্য দীপক দেংলেকে গ্রেফতার করা হয় বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইনের আওতায়। বাকিদেরও জেল হয় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে। একমাত্র সচিনের স্ত্রী শীতল সেই সময় অন্তঃসত্ত্বা থাকায় জামিন পায়।

চিত্র পরিচালক আনন্দ পট্টবর্ধনের তথ্যচিত্র ‘জয় ভীম কমরেড’-এ ধরা রয়েছে কবির কলা মঞ্চের প্রতিবাদী গান, কবিতা। আইনজীবী রেবেকা জন সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “ওরা কোনো অপরাধমূলক কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত নয়। তিন সদস্যের বিরুদ্ধে একটাই অভিযোগ, নিষিদ্ধ মাওবাদী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ওরা। মামলায় অভিযুক্ত বাকিরা ছাড়া পেয়েছিলেন বহুদিন আগেই।”  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here