স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে ২ কোটি টাকা নিতে দেখেছি কেজরিওয়ালকে: বহিষ্কৃত মন্ত্রী কপিল মিশ্র

নয়াদিল্লি: শনিবার নিজের মন্ত্রিত্ব খুইয়েছেন আম আদমি পার্টির সদস্য কপিল মিশ্র। ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সাংবাদিক বৈঠক ডেকে দিল্লির প্রাক্তন জলমন্ত্রী জানালেন দলের ভেতরকার দুর্নীতি তাঁর সামনে এসে যাওয়ায় মন্ত্রিত্ব হারাতে হয়েছে তাকে। দাবি করেছেন, গত শুক্রবার সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের কাছ থেকে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে নগদ ২ কোটি টাকা নিতে দেখেন তিনি। কী উদ্দেশ্যে ওই টাকা নেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে উত্তর মেলেনি বলে অভিযোগ করেছেন কপিলবাবু।

রবিবারের সাংবাদিক বৈঠকে অপসারিত মন্ত্রী দাবি করেন তিনিই একমাত্র আপ সদস্য, যাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির কোনো অভিযোগ নেই। অদূর ভবিষ্যতে দল ছাড়ার কোনো সম্ভাবনা যে নেই, সে কথা স্পষ্টই জানিয়েছেন তিনি। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে ২ কোটি টাকা নেওয়ার কথা বেশ কিছু তদন্তকারী সংস্থাকেই জানিয়েছেন কপিল মিশ্র। জানিয়েছেন দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বৈজলকেও। কপিল মিশ্র দাবি করেন এর আগেও একাধিক বার নানা দুর্নীতিতে মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের নাম জড়িয়েছে।
গত শুক্রবার মিশ্র-সহ তিন মন্ত্রীকে ক্ষমতাচ্যুত করেছে কেজরিওয়াল সরকার। সদ্য হয়ে যাওয়া দিল্লির কর্পোরেশন ভোটে আম আদমির হারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী এখন দায়ী করছেন জলের সমস্যাকে। কিন্তু কিছু দিন আগে পর্যন্ত তিনি ইভিএম-এ জালিয়াতিকেই দলের পরাজয়ের জন্য দায়ী করছিলেন।

 

আম আদমি দলের পক্ষ থেকে যদিও কপিল মিশ্রর সব অভিযোগকেই ভিত্তিহীন বলা হয়েছে। উপমন্ত্রী মনীশ সিসোদিয়া বলেছেন প্রাক্তন মন্ত্রীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রয়োজন আছে বলে মনে করছে না তাঁর দল।

অন্য দিকে আম আদমি দলের অন্তর্দ্বন্দ্ব নিয়ে মুখ খুলেছে সর্ব ভারতীয় নানা রাজনৈতিক দলই। বিজেপির মুখপাত্র শাহ নওয়াজ হুসেন বলেছেন, “যে আদর্শ নিয়ে মাঠে নেমেছিল আপ, এখন তা তলানিতে এসে ঠেকেছে”। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর গ্রেফতারের দাবি করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.