Connect with us

দেশ

গান্ধীদের গা ছাড়া মনোভাব নিয়ে ফের সরব কপিল সিবাল

বিহারের ভোটে আরজেডি, কংগ্রেস এবং বামেদের নিয়ে গঠিত হওয়া মহাজোটে সব থেকে খারাপ ফল করেছে কংগ্রেসই।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিহারের ভোটে দলের ভরাডুবির পর দ্বন্দ্বে জর্জরিত কংগ্রেস। নেতৃত্বে বদল আনার দাবি তুলছে দলের একটা অংশ। এই অংশেই রয়েছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা কপিল সিবাল। কয়েক মাস ধরেই নেতৃত্ব বদলের জন্য সরব সিবাল ফের সেই দাবি করলেন।

কংগ্রেসের পা থেকে মাথা পর্যন্ত সংস্কারের পক্ষে সওয়াল করেছেন সিবাল। দলীয় সংগঠনের পুনর্মূল্যায়ন, অভ্যন্তরীণ পর্যালোচনা, শীর্ষ নেতৃত্বের মনোভাব বদলের মতো একাধিক দাবি তুলেছেন তিনি। কাঠগড়ায় তুলেছেন নেতৃত্বের গা ছাড়া মনোভাবকেও। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, সিবালের নিশানায় মূলত গান্ধী পরিবার। 

বিহারের ভোটে আরজেডি, কংগ্রেস এবং বামেদের নিয়ে গঠিত হওয়া মহাজোটে সব থেকে খারাপ ফল করেছে কংগ্রেসই। ৭০টা আসনে প্রার্থী দিয়ে জিতেছে মাত্র ১৯ আসনে। ভোট পর্যবেক্ষকদের একাংশ এমনটাও মনে করছেন, কংগ্রেসের এই খারাপ ফলের জন্যই বিহারে ক্ষমতা দখলের মতো অবস্থায় পৌঁছতে পারেনি মহাজোট।

Loading videos...

বিহারের এমন ফলের পরে ফের দলের শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে সরব সিবাল। একটি ইংরেজি দৈনিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘‘সাংগঠনিক, সংবাদমাধ্যমে মুখ খোলা, যাঁদের কথা মানুষ শুনতে চায়, তাঁদের তুলে আনা, সক্রিয় নেতাদের কাজে লাগানোর মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের নানা সংস্কারের কাজ করতে হবে।’’

নেতৃত্বের গা ছাড়া মনোভাবের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘‘দলের মধ্যে এমন একটা মনোভাব, যেন কিছুই হয়নি।’’’ এই প্রেক্ষিতেই সংস্কার ও পুনর্মূল্যায়নের দাবি তুলেছেন সিবাল। তিনি বলেন, ‘‘অন্তর্তদন্ত, আলোচনা-পর্যালোচনার আর কোনও জায়গা নেই। কংগ্রেসকে সাহসী হতে হবে।’’

উল্লেখ্য, গত অগস্টে সিবালের সঙ্গে শশী তারুর, গুলাম নবি আজাদের মতো নেতারা দলকে চিঠি লিখে এক গুচ্ছ প্রস্তাব দিয়েছিলেন। শীর্ষ নেতৃত্বে রদবদল, দলকে নিয়ে নতুন করে ভাবনাচিন্তা করার মতো নানা পরামর্শ ছিল সেই চিঠিতে।

কংগ্রেস নিয়ে সিবালের খোলামেলা পর্যবেক্ষণ, ‘‘কংগ্রেসের এখন আর সেই আগের মতো ক্ষমতা নেই। এখন আর এমন অবস্থা নেই যে, অন্যরাই দলের কাছে আসবে। তাই কংগ্রেসকেই সবার কাছে যেতে হবে। আমাদের জোটের প্রয়োজন।’’

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

সপ্তম বার বিহারের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন নীতীশ কুমার, এ বারই সম্ভবত সব থেকে বেশি চাপে

দেশ

রবিবার ভারতে ১৭ হাজার জনকে টিকা, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম, জানাল স্বাস্থ্য মন্ত্রক

রবিবার দেশের মাত্র ছ’টি রাজ্যে টিকাকরণ প্রক্রিয়া চলেছে।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: শনিবার, ১৬ জানুয়ারি অর্থাৎ কোভিডের টিকাকরণের প্রথম দিন ভারতে ১ লক্ষ ৯১ হাজার মানুষের ওপরে কোভিডের টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল। রবিবার সেটা এক লাফে অনেকটাই কমে গেল। ওই দিন টিকা দেওয়া হয়েছে ১৭ হাজার জনকে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে এমনই জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা অনেক কম রেকর্ড করা হয়েছে।

রবিবার কেন কম মানুষকে টিকা?

শনিবার দেশের ৩,০০৬টি কেন্দ্রে ১ লক্ষ ৯১ হাজার মানুষের ওপরে টিকা প্রয়োগ করা হয়েছিল। রবিবার কিন্তু ৫৫৩টি কেন্দ্রে এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া হয়েছে। টিকা দেওয়া হয়েছে দেশের মাত্র ছ’টি রাজ্য– অন্ধ্রপ্রদেশ, অরুণাচল প্রদেশ, কেরল, কর্নাটক, তামিলনাড়ু এবং মণিপুরে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রের খবর, প্রথম দিনের তুলনায় দ্বিতীয় দিন টিকাকরণ কম হওয়াটা আসলে সরকারের পরিকল্পনারই অংশ। কেন্দ্র এমনভাবে টিকাকরণ করতে চাইছে, যাতে অন্যান্য রোগের টিকাকরণে কোনো সমস্যা না হয়।

Loading videos...

কেন্দ্র জানুয়ারি বেশিরভাগ রাজ্যই সপ্তাহে চার দিন টিকাকরণ প্রক্রিয়া করবে বলেছে। তবে উত্তরপ্রদেশ এবং গোয়া সপ্তাহের মাত্র দুটো দিন, মিজোরাম পাঁচ এবং অন্ধ্রপ্রদেশ ছ’টি দিন এই প্রক্রিয়া চালাতে চায়।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম

রবিবার ক’জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে, সেই সংখ্যাটা বিস্তারিত না বললেও তারা জানিয়েছে যে প্রথম দু’দিনের টিকাকরণের পর গোটা দেশে ৪৪৭ জন গ্রহীতার শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে মাত্র ৩ জনকে হাসপাতালে ভরতি করতে হয়েছে। যদিও তাঁরা প্রত্যেকেই বিপদমুক্ত।

ইনজেকশন নেওয়ার জায়গাটা ফুলে যাওয়া, হালকা গা-বমি ভাব ছিল এই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ধরন। ভারতে এই মুহূর্তে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি তথা সেরাম ইন্সটিটিউটের প্রস্তুত করা টিকা কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন দিয়ে এই টিকাকরণ প্রক্রিয়া চলছে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

রাজ্যে ছ’শোর নীচে নামল দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা

Continue Reading

দেশ

দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতরা কি বিনামূল্যে করোনা টিকা পাবেন? উঠল প্রশ্ন

এত প্রশ্ন! উত্তর মিলবে তো?

Published

on

শনিবার শুরু হয়েছে স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকাকরণ। ছবি: ইউনিসেফ-এর সৌজন্যে

নয়াদিল্লি: শনিবার টিকাকরণ কর্মসূচির প্রথম দিনে টিকা পেয়েছেন ১ লক্ষ ৯১ হাজার মানুষ। ঠিক পরের দিনই কংগ্রেসের তরফে প্রশ্ন তোলা হল, প্রত্যেক দেশবাসী, বিশেষ করে গরিব এবং সুবিধাবঞ্চিতদেরও বিনামূল্যে করোনা টিকা (Corona vaccine) দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে তো কেন্দ্রীয় সরকারের?

মহামারি এবং করোনা সংক্রমণের তুলনামূলক ভাবে বেশি ঝুঁকি রয়েছে এমন কাজের সঙ্গে সরাসরি যুক্ত চিকিৎসক, নার্স, অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীদের দেওয়া হচ্ছে করোনা টিকা কোভিশিল্ড (Covishield) এবং কোভ্যাক্সিন (Covaxin)।

কংগ্রেসের প্রশ্ন

কংগ্রেসের প্রধান মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা (Randeep Singh Surjewala) বলেন, “সরকার দাবি করছে প্রথম দফায় তিন কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। তবে দেশের বাকি মানুষের টিকাকরণ নিয়ে এখনও কোনো পরিকল্পনার কথা জানায়নি কেন্দ্র। তাঁরা কি বিনামূল্যেই এই টিকা পাবেন”?

Loading videos...

তাঁর আরও প্রশ্ন, “সরকার এ বিষয়টি কি জানে, যে খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতায় ৮১.৩৫ কোটি মানুষ ভরতুকিতে রেশন পাওয়ার যোগ্য? তফসিলি (SC), তফসিলি উপজাতি (ST), অনগ্রসর (BC), অন্যান্য অনগ্রসর (OBC), দারিদ্র সীমার উপরে (APL), দারিদ্র সীমার নীচে বসবাসকারী (BPL)-দের মতো দরিদ্র এবং সুবিধাবঞ্চিতদের জন্য সরকার কি বিনামূল্যে ভ্যাকসিন নিশ্চিত করবে? হ্যাঁ অথবা না”?

চাই উত্তর

রণদীপ বলেন, “প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi) এবং বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারকে এই প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে…কারা বিনামূল্যে ভ্যাকসিন পাবেন? ঠিক কত সংখ্যক মানুষ বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন পাবেন? কোথা থেকে সেই বিনামূল্যের ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে”?

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন তৈরি করেছে ভারতীয় সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট। অন্যদিকে ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের (ICMR)-এর সহায়তায় ভ্যাকসিন তৈরি করেছে ভারত বায়োটেক। তাদের ভ্যাকসিনের জন্য সরকার কেন অতিরিক্ত ৯৫ টাকা খরচ করছে, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক।

তাঁর প্রশ্ন, “অ্যাস্ট্রাজেনেকা-সেরাম ইনস্টিটিউটের চেয়ে ভারত বায়োটেকের ভ্যাকসিনের দাম কি কম হওয়া উচিত নয়? কেন খোলা বাজারে ডোজ প্রতি করোনার ভ্যাকসিনের দাম এক হাজার টাকা?” তাঁর মতে, ভ্যাকসিন তৈরির খরচ এবং মুনাফার বিষয়ে সংস্থাগুলির কাছ থেকে সরকারের স্বচ্ছতা দাবি করা উচিত।

আরও পড়তে পারেন: প্রথম দিনে কোন রাজ্যে কতজন ভ্যাকসিন পেলেন

Continue Reading

দেশ

দিল্লিতে দৈনিক করোনা সংক্রমণের হার কমে ০.৪৪ শতাংশ

অনেকটাই স্বস্তি! নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ২৯৫।

Published

on

নয়াদিল্লি: শেষ ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে নতুন করে কোভিড-১৯ (Covid-19) আক্রান্তের সংখ্যা ২৯৫। ফলে দৈনিক সংক্রমণের হার ঠেকেছে ০.৪৪ শতাংশে। রবিবার এমনটাই দাবি করলেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন (Satyendar Jain)।

বেশ কয়েক দিন ধরেই দিল্লিতে দৈনিক সংক্রমণের হার রয়েছে ১ শতাংশের নীচে। দৈনিক নমুনা পরীক্ষার সংখ্যাও রয়েছে ৫০ হাজারের উপরে।

তবে সতর্কতামূলক পদক্ষেপের জন্য এখনও মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক বলে জানিয়ে দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এই পরিসংখ্যান থেকেই “আমরা ধরে নিতে পারি যে দিল্লিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাওয়ায় কোভিড-১৯-এর ‘তৃতীয় ঢেউ’ শেষ হয়ে গিয়েছে”।

Loading videos...

এ দিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সত্যেন্দ্র বলেন, শনিবার দিল্লির ৮১টি কেন্দ্র থেকে করোনা টিকা নিয়েছেন ৪ হাজার ৩১৭ জন স্বাস্থ্যকর্মী। পরবর্তীতে টিকা কেন্দ্রের সংখ্যা ১৭৫টি এবং ধারাবাহিক ভাবে বাড়িয়ে তা এক হাজার করা হবে। শনিবার টিকাকরণের পর এখনও পর্যন্ত ৫১ জনের মধ্যে টিকার বিরূপ প্রভাবের খবর পাওয়া গিয়েছে।

তিনি বলেন, ২২ বছরের এক স্বাস্থ্যকর্মী টিকা নেওয়ার পরে মারাত্মক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকে এইমস-এ রেখে চিকিৎসা চলছে। তবে টিকা নেওয়ার ৩০ মিনিট পরেই একাংশকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে, ৫১ শতাংশের উপর পর্যবেক্ষণ চলছে।

উল্লেখ্য, দিল্লিতে এখনও পর্যন্ত মোট করোনা সংক্রামিতের সংখ্যা ৬ লক্ষ ৩২ হাজার ১৭৯। আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৬ লক্ষ ১৮ হাজার ৭৫৪ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২ হাজার ৬৯১ জন কোভিডরোগী। মৃত্যু হয়েছে ১০ হাজার ৭৩৮ জনের।

অন্যদিকে, স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ৭ লক্ষ ৭৯ হাজার ৩৭৭টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে সারা দেশে। ফলে এ দিন দৈনিক সংক্রমণের হার ছিল ১.৯৪ শতাংশ।

আরও পড়তে পারেন: দৈনিক সংক্রমণ অপরিবর্তিত, সক্রিয় রোগী কমল দু’হাজারের উপর

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
কলকাতা2 mins ago

আজ থেকে আর প্রয়োজন নেই ই–পাসের, খুলছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের একাধিক গেটও

antonio lopez habas
ফুটবল18 mins ago

জিততে না পারলেও হতাশ নন আন্তোনিও লোপেজ আবাস

দেশ26 mins ago

রবিবার ভারতে ১৭ হাজার জনকে টিকা, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা কম, জানাল স্বাস্থ্য মন্ত্রক

ফুটবল9 hours ago

এগিয়ে থেকেও ড্র করে পয়েন্ট খোয়াল এটিকে মোহনবাগান

রাজ্য11 hours ago

রাজ্যে ছ’শোর নীচে নামল দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা

রাজ্য12 hours ago

‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে কলকাতায় আসছেন শিবসেনা নেতৃত্ব

দেশ14 hours ago

দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতরা কি বিনামূল্যে করোনা টিকা পাবেন? উঠল প্রশ্ন

দঃ ২৪ পরগনা15 hours ago

করোনা, উম্পুন যাঁর ১২ বছরের দায়িত্বপালনে ছেদ ফেলতে পারেনি

রাজ্য2 days ago

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করতে সিপিএমের লাইনেই খেলছেন শুভেন্দু অধিকারী

দেশ3 days ago

নবম দফার বৈঠকেও কাটল না জট, ফের কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসবে কেন্দ্র

প্রযুক্তি3 days ago

হোয়াটসঅ্যাপে এ ভাবে সেটিং করলে আপনার আলাপচারিতা কেউ দেখতে পাবে না এবং তথ্যও থাকবে নিরাপদে

ক্রিকেট3 days ago

অভিষেকে লড়াকু নটরাজন, সুন্দর, অস্ট্রেলিয়া ২৭৪

রাজ্য3 days ago

রোজভ্যালি-কাণ্ডে শুভ্রা কুণ্ডুকে গ্রেফতার করল সিবিআই

রাজ্য3 days ago

দিল্লি যাচ্ছেন শতাব্দী রায়, জিইয়ে রাখলেন অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতের সম্ভাবনা

election commission of india
রাজ্য3 days ago

ভোট প্রস্তুতি তুঙ্গে! রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য2 days ago

রাজ্যে আরও কমল দৈনিক সংক্রমণের হার, ১৩ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা এক অঙ্কে

কেনাকাটা

কেনাকাটা6 days ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা1 week ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

কেনাকাটা4 weeks ago

ফিলগুড প্রোডাক্ট! পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দিনের মধ্যে কিছু সময় যদি নিজের মতো করে নিজের জন্য দেওয়া যায় তা হলে মন যেমন ভালো থাকে...

কেনাকাটা4 weeks ago

জায়গা বাঁচানোর জন্য বিভিন্ন রকমের অর্গানাইজার, দেখে নিন খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রোজকার ঘরে ব্যবহারের জন্য এমন অনেক জিনিস আছে যেগুলি থাকলে যেমন জায়গার সাশ্রয় হয় তেমনই সময়েরও। জায়গা বাঁচানোর...

নজরে