karnataka

ওয়েবডেস্ক: পুলিশে ছুঁলে যেন বেশ কত ঘা?

তা এবার গুণে নেওয়া যাবে সঙ্গের ভিডিও থেকেই! যাতে দেখা যাচ্ছে, থানায় নিয়ে গিয়ে দু’জন ব্যক্তির উপর অকথ্য অত্যাচার চালাচ্ছেন দুই পুলিশ অফিসার। সম্প্রতি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এই ভিডিও।

জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ঘটেছে কর্নাটকে। বেঙ্গালুরু থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে কোপ্পালে। শুক্রবার স্থানীয় এক মন্দিরে লোকসমাগমের আধিক্যকে কেন্দ্র করে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের জন্য বিশেষ বন্দোবস্ত নেয় পুলিশ। কিন্তু দুই ব্যক্তি তা ভঙ্গ করায় তাঁদের থানায় নিয়ে এসে মারধর করা শুরু হয়।

কিন্তু ট্রাফিক আইন ভঙ্গের জন্য জরিমানা না করে এত মারধর কেন?

কোপ্পাল থানার পুলিশের দাবি, ওই দুই ব্যক্তি যে শুধু ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করেছেন, তা-ই নয়, পাশাপাশি দুর্ব্যবহারও করেছেন পুলিশের সঙ্গে। কিন্তু তার পরিণামে পুলিশ থানায় নিয়ে গিয়ে মারধর করতে পারে কি না- এই প্রশ্নটাই বিতর্কের জন্ম দিয়েছে।

ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে, একটা মোটাসোটা চামড়ার বেল্ট দিয়ে এক ব্যক্তির হাতের পাতায় বাড়ি মারছে পুলিশ। তিনি যন্ত্রণায় আর্তনাদ করে উঠলে অন্য ব্যক্তিটি ভয়ে গুটিয়ে যাচ্ছেন। পুলিশের মারের সামনে হাত পাততে দ্বিধা করলে হুকুম আসছে সরবে- ‘হাত পেতে থাক বলছি’! এবং নির্দেশ মানলেই নেমে আসছে আঘাতের পর আঘাত!

ভাইরাল হওয়া এই ভিডিও ইতিমধ্যেই এক দিকে যেমন যথেষ্ট চাঞ্চল্য ফেলেছে দেশে, তেমনই পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। “আমি ঘটনাটির কথা শুনেছি ঠিকই, তবে ভিডিও ক্লিপটা আমার এখনও দেখা হয়ে ওঠেনি। ভিডিওটি দেখার পরে যা ব্যবস্থা নেওয়া উচিত, অবশ্যই সে বিষয়ে আমার কর্তব্য পালন করব”, বিতর্কের মুখে একরকম বাধ্য হয়েই জানিয়েছেন কোপ্পালের পুলিশ সুপারিন্টেন্ডেন্ট অনিল শেঠি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন