আস্থা নিয়ে ভোটাভুটি হল না, শুক্রবার পর্যন্ত মুলতুবি কর্নাটক বিধানসভা

0

বেঙ্গালুরু: মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী বৃহস্পতিবার আস্থাভোটের প্রস্তাব রাজ্য বিধানসভায় পেশ করলেও এ দিন এ নিয়ে কোনো ভোটাভুটি হল না। স্পিকার কেআর রমেশ কুমার শুক্রবার বেলা ১১টা পর্যন্ত বিধানসভা মুলতুবি করে দিয়েছেন।

কুমারস্বামী আস্থাভোটের প্রস্তাব পেশ করে বলেন, তিনি এ ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা চান। বিরোধী বিজেপি দল কুমারস্বামীর এই বক্তব্যকে বিধানসভায় অচলাবস্থা তৈরি করার কৌশল বলে অভিহিত করে।

আরও পড়ুন কর্নাটকে নতুন নাটক! আস্থাভোটের আগেই বিধায়ক অপহরণ

ইতিমধ্যে বিজেপি প্রতিনিধিদলের অনুরোধে রাজ্যপাল বৃহস্পতিবারের মধ্যে ভোটাভুটি শেষ করার জন্য স্পিকারকে অনুরোধ করেন। বিজেপি নেতা ইয়েদ্দিয়ুরাপ্পা জানান, তাঁরা দরকার হলে মাঝরাত পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন। কিন্তু রাজ্যপালের অনুরোধ বিবেচনা না করেই স্পিকার শুক্রবার বেলা ১১টা পর্যন্ত বিধানসভা মুলতুবি করে দেন।

গত দু’ সপ্তাহ ধরে কর্নাটকের নাটক চলছে। শুরুটা হয়েছিল কংগ্রেসের দশ এবং জেডিএসের তিন জন বিধায়কের পদত্যাগকে ঘিরে। তখন থেকেই সরকার ভেঙে যাওয়ার জল্পনা শুরু হয়। বিদ্রোহী এই বিধায়কদের রক্ষাকর্তা হিসেবে চলে আসে বিজেপি। তাঁদের নিরাপদে মুম্বইয়ের একটি বিলাসবহুল হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। এর পর বিদ্রোহীদের সংখ্যা আরও বাড়ে। বর্তমানে বিদ্রোহী বিধায়কের সংখ্যা ১৬। এর সঙ্গে দু’জন নির্দল বিধায়ক রয়েছেন, যাঁরা বিধায়কপদ থেকে পদত্যাগ করেননি, কিন্তু কুমারস্বামী মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

এ দিকে বিদ্রোহীদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি কর্নাটক বিধানসভার স্পিকার রমেশ কুমার। ইচ্ছে করেই তিনি পদত্যাগপত্র গ্রহণ করছেন না, সেই অভিযোগ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন বিদ্রোহীরা। যদিও এই মামলায় স্পিকারের পক্ষেই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। তাদের সাফ বক্তব্য, পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হবে কি না, সেটা একমাত্র স্পিকারই ঠিক করবেন, আদালত তাদের সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেবে না। যদিও পাশাপাশি বিদ্রোহীদের পক্ষেও রায় দিয়ে আদালত বলে আস্থাভোটে অংশ নেওয়ার জন্য তাঁদের ওপরে কোনো চাপ সৃষ্টি করা যাবে না।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here