পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত অনলাইন ক্লাস বন্ধ করছে কর্নাটক?

0
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: রাজ্য মন্ত্রিসভার পরামর্শ মতোই করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবে চালু করা অনলাইন ক্লাস নিয়ে বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত নিল কর্নাটক সরকার। জানানো হয়, লোয়ার কেজি থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত সমস্ত অনলাইন ক্লাস স্থগিত রাখা হচ্ছে।

করোনাভাইরাস লকডাউনে (Coronavorus lockdown) ভার্চুয়াল ক্লাসের (virtual class) মাধ্যমে সাময়িক ভাবে পঠন-পাঠন চলছে। তবে এই ধরনের শিক্ষাব্যবস্থার সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারছে না খুদে পড়ুয়ারা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ ধরনের শিক্ষাব্যবস্থা শিশু মনে চাপ বাড়াচ্ছে। দুর্বল হয়ে যাচ্ছে শিশুদের মানসিক স্বাস্থ্য।

গত বুধবার কর্নাটকের প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক শিক্ষামন্ত্রী এস সুরেশ কুমার জানান, “লোয়ার কেজি, আপার কেজি, প্রাইমারি পড়ুয়াদের জন্য অনলাইন শিক্ষা একটি জ্বলন্ত সমস্যা। এই ধরনের শিক্ষা পদ্ধতি খুদে পড়ুয়াদের মানসিক স্বাস্থ্যে নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এ ব্যাপারে আমরা বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। তাঁরা পরামর্শ দেন, এ ব্যাপারে আমাদের ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কমিটি একটি গাইডলাইনও তৈরি করছে। তত দিন পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট স্তরের পড়ুয়াদের অনলাইন শিক্ষা বন্ধ রাখা হবে”।

একই সঙ্গে তিনি অভিভাবকদের আশ্বস্ত করে বলেন, “কোনো স্কুলই এই সমস্ত শ্রেণীর অনলাইন ক্লাস স্থগিত রাখবে। অন্য দিকে স্কুলগুলি ফি বাড়াতে পারবে না”।

সংবাদ পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, শিক্ষামন্ত্রী স্কুল খোলার বিষয়ে এখনও পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানান। তিনি বলেন, এই সময়ের মধ্যে কী ভাবে শিশুদের পড়াশোনার মধ্যে রাখা যায়, সে ব্যাপারে আলোচনা চলছে।

রাজ্যের বিশিষ্ট অধ্যাপক এমকে শ্রীধরের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করেছে কর্নাটক। ওই কমিটিই এ ব্যাপারে সরকারের কাছে প্রস্তাব পেশ করবে। তার আগে পর্যন্ত মন্ত্রিসভার পরামর্শ মতোই আপাতত আনলাইনে শিক্ষা স্থগিত থাকছে।

প্রসঙ্গত, কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) জেরে গোটা দেশের মতোই গত মার্চ থেকে কর্নাটকে সমস্ত স্কুল, কলেজ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন