MLAs shifted to hyderabad

হায়দরাবাদ: প্রথমে ঠিক ছিল ঘোড়া কেনাবেচা রুখতে বিমানে কোচিতে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে কংগ্রেস এবং জেডিএস বিধায়কদের। কিন্তু শেষ মুহূর্তে উড়ানের অনুমতি দেয়নি ডিজিসিএ। অগত্যা বাসে করে হায়দরাবাদে এসে পৌঁছোলেন বিধায়করা।

প্রথমে ঠিক ছিল কোচিতে একটি পাঁচতারা হোটেলে নিয়ে যাওয়া হবে। সেইমতো প্রস্তুতিও সারা হয়ে যায়। কেরল সরকার থেকে বিধায়কদের স্বাগত জানিয়ে টুইটও করা হয়। কিন্তু বাধ সাধে ডিজিসিএ। শেষ মুহূর্তে কোচিগামী চাটার্ড উড়ানের ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেয় তারা। অন্য কোনো পথ না খোলা দেখে রাতের বাসে করে বেরিয়ে পড়েন বিধায়করা। তবে ঠিক কোথায় তাঁরা যাচ্ছেন সেটা জানানো হয়নি। কেউ বলে কোচি, কেউ হায়দরাবাদ আবার কারও মনে হয় পুদুচেরি।

সব জল্পনার অবসান হয়েছে শুক্রবার সকালে যখন হায়দরাবাদের একটি পাঁচতারা হোটেলে এসে উঠেছেন জয়ী বিধায়করা। মনে করা হচ্ছে তেলঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও এবং দেবগৌড়ার সম্পর্কের জন্যই হায়দরাবাদকে বেছে নিয়েছে কংগ্রেস এবং জেডিএস। নির্বাচনের আগে রাও কর্নাটকে বসবাসকারী তেলুগুভাষী মানুষদের কাছে আবেদন করেছিলেন তারা যেন জেডিএসকে ভোট দেয়।

তবে সম্ভবত বেশি দিন হায়দরাবাদে থাকতে হবে না বিধায়কদের। শনিবারই যখন কর্নাটক বিধানসভায় আস্থাভোটের নির্দেশ সুপ্রিম কোর্ট দিয়েছে, তখন শনিবার সকালেই বিধায়কদের ফের বেঙ্গালুরু ফেরানো হতে পারে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন