গিরীশ কড়নাড

বেঙ্গালুরু: এমএম কালবুর্গির হত্যার পর যেটা হয়নি, সেটাই হল গৌরী লঙ্কেশ হত্যার পর। গিরীশ কারনাড়-সহ মুক্তমনা হিসেবে পরিচিত ১৮ জনকে নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কর্নাটক পুলিশ।

লঙ্কেশের হত্যার পরেই এই ১৮ জনকে পুলিশি নিরাপত্তা দেওয়ার সুপারিশ করেছিল কর্নাটকের গোয়েন্দা বিভাগ। সেই সুপারিশ মেনেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুলিশ। লেখক তথা জ্ঞানপীঠ পুরষ্কার প্রাপ্ত গিরীশ ছাড়াও যাদের নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে, তাঁদের মধ্যে রয়েছেন বারাগুর রামচন্দ্রাপ্পা, পাটিল পুটাপ্পা এবং চেন্নাবিরা কানাভি। নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে আমরা এসএম জমদারের জন্যও। উল্লেখ্য, লিঙ্গায়েতদের আলাদা ধর্মভুক্ত করার দাবিতে সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত জমদার।

নিরাপত্তার ঝুঁকি যার বেশি তাঁকে বেশি নিরাপত্তা দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে গোয়েন্দা বিভাগের তরফ থেকে। এক আধিকারিকের কথায়, “যাঁর ঝুঁকি কম, তাঁর জন্য ২৪ ঘন্টা একজন করে বন্দুকধারী নিরাপত্তারক্ষীর ব্যবস্থা করা হবে। যাঁর জীবনের ঝুঁকি বেশি তাঁর জন্য আরও বেশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা করা হবে। তবে এখনই সব কিছু বলা যাবে না।”

লিঙ্গায়েতদের জন্য আলাদা ধর্মের দাবির সমর্থক ছিলেন কালবুর্গি এবং লঙ্কেশ। সেই কারণেও তাঁদের খুন করা হতে পারে বলেও অনেকের মত। ওই আধিকারিক জানান, ” কালবুর্গি হত্যার তদন্তে দেখা গিয়েছে লিঙ্গায়েত-ইস্যুর জন্যও তাঁকে খুন করা হতে পারে। উগ্র-হিন্দুত্ববাদিদের মতে, এটা হিন্দু ধর্মকে ভাঙার চক্রান্ত। একই দাবিতে অনেক কলম লিখেছেন লঙ্কেশও।”

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন