bjp in karnataka

ওয়েবডেস্ক: শেষমেশ ত্রিশঙ্কুই হল কর্নাটক। বৃহত্তম দল হিসেবে বিজেপি শেষ করলেও, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা থেকে কিছুটা দূরেই শেষ করল তারা। ইতিমধ্যেই সরকারের গড়ার জন্য তৎপর হয়েছে কংগ্রেস এবং জেডিএস। এখন দেখার রাজ্যের নতুন সরকার কে গড়ে।

এমনিতে ভারতের রাজনীতিতে এই রাজ্যের বিশেষ কোনো ভূমিকা কখনোই ছিল না। কিন্তু এ বার যেন সবার নজর তার দিকে। কর্নাটকই জাতীয় রাজনীতির পথ ঠিক করে দিতে চলেছে।

বছরের শেষেই রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ এবং ছত্তীসগঢ়ে ভোট। সেটা হবে সেমিফাইনাল। তাই এখন সবার নজর ছিল এই কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ের দিকে। ভোটের ফলের সব আপডেট দেখে নিন খবর অনলাইনে।


১৬:০০- শেষ হল ভোট গণনা। ১০৪টি আসন জিতেছে বিজেপি। অন্য দিকে কংগ্রেস ৭৮ এবং জেডিএস জিতেছে ৩৮টি আসন। দু’জন জয়ী নির্দল বিধায়কও কংগ্রেসকে সমর্থন করার কথা ঘোষণা করেছে।

১৫:৪০- বিজেপিকে দূরে সরিয়ে রাখার জন্য, কংগ্রেসের সমর্থন গ্রহণ করা হয়েছে। জানালেন জেডিএসের দানিশ আলি।

১৫:৩৩- সব জয়ী বিধায়কদের বেঙ্গালুরুতে ডেকে পাঠাল কংগ্রেস এবং জেডিএস। পাশাপাশি দু’জন জয়ী নির্দল প্রার্থীর সমর্থনের দাবিও করল তারা।

১৫:৩০- বিকেল পাঁচটায় রাজ্যপালের কাছে সরকার তৈরির দাবি পেশ করবে কংগ্রেস-জেডিএস।

১৫:২৪- বাতিল হয়ে গেল বিজেপির সংসদীয় বোর্ডের মিটিং।

১৫:১৭- সর্বশেষ পরিস্থিতি- ১০৪ আসন পাওয়ার পথে বিজেপি। ১১৬ আসন পাওয়ার পথে কংগ্রেস-জেডিএস জোট। অন্যান্যরা জিতেছে দুটি আসন।

১৫:০৮- বাদামি কেন্দ্র থেকে জিতে গেলেন সিদ্দারামাইয়া।

১৫:০৩- বিকেল ৪টেয় রাজ্যপালের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন সিদ্দারামাইয়া। সেই সঙ্গে সরকার গড়ার দাবিও জানাবেন। জেডিএসকে সরকারের নেতৃত্ব দেওয়ার আহবান জানালেন সিদ্দারামাইয়া।

১৪:৫৩- জেডিএসকে সরকারি ভাবে সমর্থন ঘোষণা করল কংগ্রেস। মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া বলেন “কর্নাটকের মানুষের রায় মেনে নিলাম। কিন্তু এখনও কোনো দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি, তাই আমরা জেডিএসকে সমর্থন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।”

১৪:৫০- সূত্রের খবর কংগ্রেসের জোট বার্তা ‘গ্রহণ’ করেছে জেডিএস।

১৪:২৭- শেষে কিছু চমক থাকতে পারে। ইঙ্গিত বুঝে কুমারাস্বামীকে মুখ্যমন্ত্রীত্বের টোপ কংগ্রেসের।

১৩:৫৬- ৩৫,০০০ ভোটে নিজের কেন্দ্র থেকে জিতলেন বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী বিএস ইয়েদুরাপ্পা। তবে একক বৃহত্তম দল হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতার কিছু দূরে থেমে যাতে পারে গেরুয়া দল। এই মুহূর্তে ১০৬ আসনে এগিয়ে/জয়ী বিজেপি। কংগ্রেস এবং জেডিএসের ঝুলিতে এখন যথাক্রমে ৭৭ এবং ৩৭ আসন।

১৩:০৬- সংখ্যাগরিষ্ঠতা থেকে বেশ কিছুটা দূরেই আপাতত রয়েছে বিজেপি। সিএনএন আইবিএনের হিসেবে তারা এখন ১০৫টি আসনে জয়ী/ এগিয়ে। অন্যদিকে কংগ্রেস জয়ী/ এগিয়ে ৭৫ আসনে।

১২:৪৫- এনডিটিভির হিসেবে সর্বশেষ পরিস্থিতি, বিজেপি-১১০, কংগ্রেস-৭০, জেডিএস-৪০, অন্যান্য-২। সিএনএন-আইবিএনের হিসেবে সর্বশেষ পরিস্থিতি, বিজেপি-১০৭, কংগ্রেস- ৭৩, জেডিএস-৪০, অন্যান্য-২।

১২:২১- ভোট ভাগের নিরিখে এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ ভোট কংগ্রেসের দখলেই রয়েছে। তাদের ভাগে রয়েছে ৩৭.৮ শতাংশ ভোট। অন্যদিকে বিজেপির ভাগে রয়েছে ৩৭.১ শতাংশ ভোট।

১২:১৭- পরিস্থিতির এখন আর বিশেষ বদল নেই। ইতিমধ্যেই কর্নাটকের রায়কে বড়ো জয় বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবীশঙ্কর প্রসাদ।

১১:৪৯- সর্বশেষ পরিস্থিতি: বিজেপি-১১২, কংগ্রেস-৬৮, জেডিএস-৪০, অন্যান্য-২

১১:২৪- বলারি কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছেন কয়লা কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত জনার্দন রেড্ডির ভাই বিজেপির সোমশেখর রেড্ডি।

১১:২১- একটু কমল বিজেপির এগিয়ে থাকা আসনের সংখ্যা। তবে তা সংখ্যাগরিষ্ঠতার ওপরেই। এই মুহূর্তে বিজেপি ১১৪, কংগ্রেস ৬৪ এবং জেডিএস ৪২টি আসনে এগিয়ে।

১০:৫৯- লিয়াঙ্গায়তদের ভিন্ন ধর্মের তকমা দিয়েও বিশেষ সুবিধা করতে পারল না কংগ্রেস। বরাবরের মতো এবারও লিঙ্গায়তদের সমর্থন বিজেপির দিকে।

১০:৫৩- নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুযায়ী এই মুহূর্তে বিজেপি ১১০টি আসন, কংগ্রেস ৫৬, জেডিএস ৩৮ এবং অন্যান্যরা তিনটে আসনে এগিয়ে।

১০:৪৯- প্রাথমিক ইঙ্গিতে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেরিয়ে গেল বিজেপি। এই মুহুর্তে তারা এগিয়ে ১১৯ আসনে। কংগ্রেস এবং জেডিএস যথাক্রমে ৫৭ এবং ৪৪ আসনে এগিয়ে।

১০:৩৫- কর্নাটকে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়ার কাছাকাছি বিজেপি। এই মুহূর্তে তারা এগিয়ে ১১০টি আসনে। কংগ্রেস ৬৫ এবং জেডিএস ৪৫টি আসনে এগিয়ে।

১০:১৩- কর্নাটকে সবক’টা আসনের ইঙ্গিত এসেছে। বিজেপি ১০৭, কংগ্রেস ৭১ এবং জেডিএস ৪২ আসনে এগিয়ে।

০৯:৫৫- কংগ্রেসের জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী অশোক গেহলত। কর্নাটকে প্রতিষ্ঠান বিরোধিতা সেভাবে লক্ষ্য করা যায়নি বলে জানালেন তিনি। তাঁর কথায়, “এগুলো সবই প্রাথমিক ইঙ্গিত। জয়ের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। যদি একক সংখ্যাগরিষ্ঠ নাও হতে পারে তাহলেও বিভিন্ন দলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলব।”

০৯:৫৩- ব্যবধান বাড়াচ্ছে বিজেপি। একক সংখ্যাগরিষ্ঠও হয়ে যেতে পারে।

০৯:৪২-বড়োসড়ো কিংমেকারের ভূমিকায় নামতে পারে জেডিএস। এই মুহূর্তে তারা এগিয়ে ৪১টি আসনে।

০৯:৪০- বেশ অনেকটাই এগিয়ে গেল বিজেপি। ২১৭টা আসনের মধ্যে বিজেপি ৯৫, কংগ্রেস ৮০ এবং জেডিএস ৪১ আসনে এগিয়ে।

০৯:৩৩- ইঙ্গিতে এখনই আমুল কিছু পরিবর্তনের ইঙ্গিত নেই। বিজেপি ৯২, কংগ্রেস ৮২, জেডিএস ৪০ আসনে এগিয়ে।

০৯:১৬- ইঙ্গিতে বিশেষ পরিবর্তন নেই। বিজেপি ৮৫ এবং কংগ্রেস ৭৮-এ রয়েছে। তবে জেডিএসও এগিয়ে ৩৮ আসনে।

০৯:১০- চামুন্ডেশ্বরী কেন্দ্রে পিছিয়ে রয়েছে সিদ্দারামাইয়া। তবে বাদামি কেন্দ্রে এগিয়ে তিনি।

০৯:০৬- ফের বেশ কিছুটা এগিয়ে গিয়েছে বিজেপি। দু’জনের মধ্যে আসনের ব্যবধান এখন ৬। তবে প্রাথমিক ইঙ্গিতে ত্রিশঙ্কু বিধানশভার সঙ্কেত স্পষ্ট।

০৮:৫৭- এনডিটিভি জানাচ্ছে এই মুহূর্তে ১৭১টি আসনের মধ্যে কংগ্রেস ৭০, বিজেপি ৬৯ এবং জেডিএস ৩২ আসনে এগিয়ে। যদিও অন্যান্য সূত্রের মতে বিজেপি ৯৪, কংগ্রেস ৯২ এবং জেডিএস ২৫ আসনে এগিয়ে।

০৮:৪৫- কর্নাটকের লড়াই এখন বেশ হাড্ডাহাড্ডি পরিস্থিতিতে এসেছে। বিভিন্ন সূত্র অনুযায়ী এখন কংগ্রেসের ঠেকে একটু এগিয়েছে বিজেপি। তবে এগিয়ে থাকা আসনের সংখ্যা বাড়াচ্ছে জেডিএসও।

০৮:৩২- ১২০টা আসনের মধ্যে এই মুহূর্তে কংগ্রেস ৫২, বিজেপি ৪৫ এবং জেডিএস ২৩ আসনে এগিয়ে। তবে এগুলো সবই পোস্টাল ব্যালট। দিন যত এগোবে তত পরিস্থিতি বদলে যেতে বাধ্য।

০৮:২৭- এনডিটিভির মতে কংগ্রেস এবং বিজেপি প্রায় হাড্ডাহাড্ডি। অন্যান্য সূত্রের মতে কংগ্রেস বেশ অনেকটাই এগিয়ে।

০৮:২৪- অন্যান্য সূত্রে থেকে জানা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে কংগ্রেস ৫৬, বিজেপি ৩৬ এবং জেডিএস ১৬ আসনে এগিয়ে।

০৮:২৩- এই মুহূর্তে ৮৭টি আসনের ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। এর মধ্যে কংগ্রেস ৩৭, বিজেপি ৩০ এবং জেডিএস ২০ আসনে এগিয়ে।

০৮:১৪- বাদামি কেন্দ্রে এগিয়ে রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া।

০৮:১১- আপাতত যে ৫০টা আসনের ইঙ্গিত মিলেছে তাতে কংগ্রেস ২৩, বিজেপি ১৭ এবং জেডিএস ১০টা আসনে এগিয়ে।

০৮:০৫- আপাতত ৩০টা আসনের প্রাথমিক ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। তার মধ্যে কংগ্রেস ১৭টা, বিজেপি ৭টা এবং জেডিএস ৬টা আসনে এগিয়ে। এগুলো সবই পোস্টাল ব্যালটের।

০৮:০৩- কর্নাটকে শুরু হয়ে গেল ভোট গণনা। আপাতত কিছুটা এগিয়ে কংগ্রেস।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here