kerala floods
মাস দুয়েক আগে কেরলের বন্যার একটি ছবি

ওয়েবডেস্ক: নতুন করে বন্যার ভ্রূকুটি কেরলে। গত কয়েক দিন ধরেই রাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলে জোর বৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে ভর্তি হয়ে রয়েছে রাজ্যের দু’টি গুরুত্বপূর্ণ জলাধার ইদুকি এবং মুল্লাপেরিয়ার। কিন্তু আগামী ৪৮ ঘণ্টার পূর্বাভাসে মানুষের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও চওড়া হতে পারে।

এ বার শুধু কেরলই নয়, জোর বৃষ্টির সতর্কতা দেওয়া হয়েছে তামিলনাড়ু এবং কর্নাটকেও। শুক্রবার চেন্নাইয়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন।

আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে আরব সাগর এবং লাক্ষাদ্বীপ সংলগ্ন এলাকায় ঘূর্ণাবর্ত রয়েছে। ক্রমে সেটি নিম্নচাপে পরিণত হয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে। তার পর সেটি ঘূর্ণিঝড়ে শক্তিবৃদ্ধি করে এগোবে ওমানের দিকে। যত দিন এটি কেরল উপকূলের কাছাকাছি থাকবে তত দিন কেরল, তামিলনাড়ু এবং কর্নাটকে বৃষ্টি চলবে। রবিবার কেরল এবং তামিলনাড়ুর পার্বত্য অংশে চরম অতি ভারী বৃষ্টিরও পূর্বাভাস দিয়ে রেখেছে দফতর।

আরও পড়ুন বিজেপির বিকল্প ফ্রন্ট ‘স্বতঃস্ফূর্ত’ ভাবে তৈরি হবে, মনে করেন চন্দ্রবাবু

ইতিমধ্যে ইদুকি এবং মুল্লাপেরিয়ার জলাধার নতুন করে টইটম্বুর হয়েছে। প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, শনিবার জলাধারগুলির কয়েকটি গেট খুলে দেওয়া হতে পারে। এই পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ইদুকি এবং মালাপুরম জেলায় সতর্কতা জারি করেছে কেরল সরকার।

তবে আগস্টের মতো অস্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা এ বার না থাকার কারণে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হলেও, তা বেশি ঘোরালো হবে না বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন