কেরলে লাগাম পড়ছে কোভিডে, পর পর ৭ দিন কমল সংক্রমণের হার

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গোটা দেশে করোনার যা দৈনিক সংক্রমণ ঘটছে, তার প্রায় ৬৫ শতাংশই হচ্ছে কেরলে। কিন্তু গত এক সপ্তাহের পরিসংখ্যান বলছে সেখানে ধীরে ধীরে লাগাম পড়ছে সংক্রমণে। এর ফলে স্বস্তি ফিরছে রাজ্য় প্রশাসনের কপালে, যাদের এখন নিপা ভাইরাস নিয়ে নতুন করে চিন্তা করতে হচ্ছে।

মঙ্গলবার রাজ্যে কোভিডের নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৫ হাজার ৭৭২ জন। সোমবার রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৯ হাজার ৬৮২ জন। তবে সোমবার এবং সপ্তাহের বাকি দিনগুলোর মধ্যে একটা তফাৎ থাকে। সোমবার প্রচুর টেস্ট কম হয় বলে দেশের সব রাজ্যের মতো কেরলেও সংক্রমণ কম হয়। মঙ্গলবার থেকে টেস্টের সংখ্যা বাড়লেই সংক্রমণ বেড়ে যায়।

তাই পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ সেটা বুঝতে হয় সংক্রমণের হারকে দেখে। মঙ্গলবার কেরলে সংক্রমণের হার ছিল ১৫.৮৭ শতাংশ। এই সংক্রমণের হারটি গত কুড়ি দিনের মধ্যে সব থেকে কম। গত সপ্তাহের মঙ্গলবার, অর্থাৎ ৩১ আগস্ট রাজ্যে নতুন করে কোভিড সংক্রমণ ঘটেছিল ৩০ হাজার ২০৩ জনের, সংক্রমণের হার ছিল ১৮.৮১ শতাংশ।

অর্থাৎ গত সপ্তাহের মঙ্গলবারের নিরিখে এই মঙ্গলবার রাজ্যে সংক্রমণ কমেছে ১৪.৬৭ শতাংশ। সংক্রমণের হার কমেছে ৩ শতাংশ। আরও ভালো ব্যাপার হল, রাজ্যে সংক্রমণের হার গত সপ্তাহের বুধবার থেকেই টানা কমে যাচ্ছে।

১ সেপ্টেম্বর বুধবার রাজ্যে সংক্রমণের হার ছিল ১৮.৭৬%। বৃহস্পতিবার সেটা কমে হয় ১৮.৪১%। শুক্রবার সংক্রমণের হার আরও কমে ১৭.৯১% হয়ে যায়। শনিবার সংক্রমণের হার ছিল ১৭.৫৩%। রবিবার ছিল ১৭.১৭%। সোমবার তা আরও কমে হয় ১৬.৭১%। মঙ্গলবার সেটা ১৫ শতাংশের ঘরে ঢুকে গিয়েছে।

এই যাত্রায় সংক্রমণের হার সব থেকে বেশি উঠেছিল গত ২৯ আগস্ট, রবিবার। সে দিন সংক্রমণের হার পৌঁছে গিয়েছিল ১৯.৬৭।

বাড়ছে সুস্থতা, প্রত্যাহার নৈশকার্ফু

সংক্রমণে যত লাগাম পড়ছে, ততই তাকে ছাপিয়ে যাচ্ছে সুস্থতা। গত তিন দিন ধরে কেরলে এটাই হয়েছে। মঙ্গলবার রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৭ হাজার ৩২০ জন। এর ফলে রাজ্যে এখন সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৩৭ হাজার ৪২ জন।

কোভিড পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় রাজ্যে জারি নৈশ কার্ফু প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পিনারাই বিজয়ন সরকার। তিনি জানান, ওনামের পর সংক্রমণে যে রকম বৃদ্ধি আশঙ্কা করা হয়েছিল, ততটা খারাপ হয়নি পরিস্থিতি। হাসপাতালে মাত্র ১৩.১৩ শতাংশ শয্যা ভরতি রয়েছে। আইসিইউ শয্যার মাত্র ১ শতাংশ ভরতি রয়েছে। অর্থাৎ বেশিরভাগ রোগীই বাড়িতে চিকিৎসা করিয়ে সুস্থ হয়ে উঠছেন।

কেরলে টিকাকরণ চলছে দুরন্ত গতিতে। ইতিমধ্যেই রাজ্যের প্রাপ্তবয়স্ক জনসংখ্যার ৭৬.১৫ শতাংশ মানুষ কোভিডরোধী টিকার প্রথম ডোজ পেয়ে গিয়েছেন। দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন ২৮.৭৩ শতাংশ মানুষ। টিকাকরণের জন্যই রাজ্যে কোভিড সংক্রমণ মাত্রাছাড়া হলেও আশংকাজনক রোগীর সংখ্যা অনেকটাই কম।

আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুুন

দৈনিক সংক্রমণ ফের ছ’শোয় উঠলেও সংক্রমণের হারে বড়ো পতন, কলকাতার পরিসংখ্যান স্বস্তিদায়ক

কাবুলে পাকিস্তান-বিরোধী বিক্ষোভে মহিলারা, থামাতে গুলি চালাল তালিবান

২৯ মাইলে ফের ধস, কালিম্পং-সিকিমগামী যান চলাচল ব্যাহত

‘আইন সবার জন্য সমান’ বলেছিলেন ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী, দু’দিন পরেই গ্রেফতার করা হল তাঁর বাবাকে

আফগানিস্তানে নয়া সরকার ঘোষণা করল তালিবান, প্রধানমন্ত্রী আখুন্দ, সহযোগী বরাদর

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন