লখনউ: রকমারি ফতোয়া দিয়ে বারবারই শিরোনামে আসছে হরিয়ানা ও পশ্চিম উত্তর প্রদেশের জাঠ অধ্যুষিত অঞ্চলের খাপ পঞ্চায়েতগুলি। এতদিন মেয়েদের পোশাক ও জীবনযাত্রা নিয়ে ফতোয়া দেওয়ার পর এবার তাদের নজরে এল ছেলেরাও।

উত্তর প্রদেশের শামলিতে বালিয়ান খাপের পক্ষ থেকে জাঠ ছেলেদের প্রকাশ্য হাফ প্যান্ট পরতে নিষেধ করা হয়েছে। নিজেদের সংস্কৃতির পুনর্জাগরণ ঘটানোই ওই ফতোয়ার উদ্দেশ্য বলে জানানো হয়েছে। বালিয়ান খাপের প্রধান নরেশ টিকায়েত বলেছেন, “জন সমক্ষে হাফ প্যান্ট পরাটা মোটেই ভালো জিনিস নয়। আমরা যখন মেয়েদের জিন্‌স পরতে বারণ করেছি, তখন ছেলেদেরও হাফ প্যান্ট পরতে বারণ করা দরকার। আমরা ছেলে ও মেয়েদের মধ্যে তফাত করি না”।

ইভ টিজিং বন্ধ করতে মেয়েদের জিনস পারা ও মোবাইল ফোন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল একটি খাপ। সেই থেকে কুখ্যাতি ছড়াতে থাকে খাপ পঞ্চায়েতগুলির। পরিস্থিতি এমন দাঁড়ায় যে হরিয়ানার একটি খাপের প্রধান, মেয়েদের চাওমিন খেতে বারণ করেন। কারণ, ওই ধরনের মশলাদার খাবারের জন্যই নাকি মেয়েদের শরীরে হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, যা থেকে সমাজে ধর্ষণ বাড়ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন