km joseph

ওয়েবডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম তাঁর নাম প্রস্তাব করলেও উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের বিচারপতি কেএম জোসেফকে সুপ্রিম কোর্টে উন্নীত না করে আসলে বদলার রাজনীতি করেছে কেন্দ্র। এমনই অভিযোগ করেছে কংগ্রেস।

উল্লেখ্য, গত ২২ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি কেএম জোসেফ এবং ইন্দু মালহোত্রার নাম সুপারিশ করেছিল। কিন্তু সুপারিশের ফাইল খতিয়ে দেখে এঁদের মধ্যে থেকে কেবল মালহোত্রাকেই নিয়োগ করেছে কেন্দ্র। দেশের হাইকোর্টগুলির মধ্যে সব থেকে প্রবীণ বিচারপতি হওয়া সত্বেও যে ভাবে জোসেফের নাম এড়িয়ে যাওয়া হল তাতেই বদলার রাজনীতির গন্ধ পেয়েছে কংগ্রেস।

কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালার অভিযোগ, এই মুহূর্তে দেশের বিচারব্যবস্থার ওপর বড়োসড়ো হস্তক্ষেপ করছে কেন্দ্র। এখনই এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না হলে গণতন্ত্র বিপন্ন হতে পারে বলেও অভিযোগ করেছেন রণদীপ।

কিন্তু কেন জোসেফের বিরুদ্ধে বদলার রাজনীতি করার অভিযোগ এনেছে কংগ্রেস?

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, উত্তরাখণ্ড হাইকোর্টের বিচারপতি থাকাকালীন রাজ্যে জারি হওয়া রাষ্ট্রপতি শাসন উঠিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন জোসেফ। এর পর রাজ্যে আস্থাভোট হয় এবং ক্ষমতায় ফেরে কংগ্রেস।

তবে কংগ্রেসের এই নেতার মতে এটাই প্রথম নয়, সাড়ে তিন বছর আগে ঠিক এমনই একটি কাজ করেছিল মোদী সরকার। “অমিত শাহদের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য আইনজীবী গোপাল সুব্রহ্মণ্যমের সুপ্রিম কোর্টে উন্নীত হওয়ার পথ আটকে দিয়েছিল মোদী সরকার,” এমনই দাবি করেন সুরজেওয়ালা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here