উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত কুলদীপ সেঙ্গার

0

নয়াদিল্লি: উন্নাও ধর্ষণকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত হলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সিংহ সেঙ্গার। পকসো আইনের একাধিক ধারায় বহিষ্কৃত বিজেপি নেতাকে সোমবার দোষী সাব্যস্ত করেছে দিল্লির তিসহাজারি আদালত। আগামী ১৯ তারিখ সাজার মেয়াদের উপর শুনানি।

তবে এই মামলায় বেকসুর খালাস হয়ে গিয়েছেন অন্য এক অভিযুক্ত শশী সিংহ। সেঙ্গারের বিরুদ্ধে নির্যাতিতাকে গাড়ি দুর্ঘটনা ঘটিয়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ-সহ অন্য মামলাগুলি চলছে।

২০১৭ সালে উন্নাওয়ের নাবালিকাকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ ওঠে সেই সময় উত্তরপ্রদেশের বাঙ্গেরমউ কেন্দ্রের চার বারের বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সেঙ্গার ও শশীর বিরুদ্ধে। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর তিব্র চাঞ্চল্য ছড়ায়। অবশেষে সেই মামলায় ২০১৮ সালের ১৩ এপ্রিল তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশের দেওয়া চার্জশিটের ভিত্তিতে পকসো আইনে ১২০বি (ষড়যন্ত্র), ৩৬৩ (অপহরণ) ৩৬৬ (অপহরণ ও বিবাহের জন্য বাধ্য করা) ৩৭৬ (ধর্ষণ)-সহ একাধিক ধারায় চার্জ গঠন করে আদালত। তার পর সোমবার সেঙ্গারকে দোষী সাব্যস্ত করেন তিসহাজারি আদালতের বিচারক ধর্মেশ শর্মা।

সুপ্রিম কোর্টের তৎকালীন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে একটি চিঠি লিখেছিলেন উন্নাওয়ের নির্যাতিতা। সেই চিঠির ভিত্তিতেই এ বছরই অগস্ট মাসে তিনি নির্দেশ দেন, এই সম্পর্কিত পাঁচটি মামলাই উত্তরপ্রদেশের আদালত থেকে দিল্লির তিসহাজারি আদালতে সরিয়ে আনতে হবে।

এ ছাড়াও প্রতিদিন শুনানি করে ৪৫ দিনের মধ্যে বিচারপ্রক্রিয়া শেষ করার নির্দেশও দেন প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি।

ধর্ষণের মামলায় কুলদীপ সেঙ্গার দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে নির্যাতিতা ও তাঁর পরিজনরা।  তাঁর সাজার মেয়াদ কী হবে, তা নিয়ে ১৯ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার দু’পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য শুনবে আদালত।

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.