Kumaraswamy and siddaramaiya

ওয়েবডেস্ক: গত শনিবার সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবগৌড়ার পুত্র, তথা জেডি(এস)-এর সম্পাদক এইচ ডি কুমারস্বামী। চিকিৎসার জন্যই অভিনেতা-পুত্রকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর এই বিদেশ যাত্রা। কিন্তু দলীয় সূত্রে খবর, আগামী সোমবার সন্ধ্যায় তিনি দেশে ফিরে আসছেন। ওই দিনই কর্নাটক বিধানসভার ভোট গণনা। স্বাভাবিক ভাবেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে, তবে কি সত্যিই বুথ ফেরত সমীক্ষার ইঙ্গিতে ভরসা করে জেডি(এস) মুখ্যমন্ত্রীপদের দর কষাকষিতে অংশ নিতে উদ্গ্রীব!

বুথ ফেরত সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, এ বার কর্নাটক বিধানসভার ফলাফলে বিজেপি বা কংগ্রেস কোনো রাজনৈতিক দলই একক ভাবে সরকার গড়ার প্রয়োজনীয় ১১২টি আসন দখল করতে পারবে না। প্রধান কয়েকটি সংস্থার করা সমীক্ষার গড় হিসাবে দেখা গিয়েছে, ২২২টি বিধানসভার কর্নাটকে বিজেপি পেতে পারে ৯৭টি, কংগ্রেস পেতে পারে ৮৬টি অন্য দিকে দেবগৌড়ার জেডি(এস) পেতে পারে ৩১টি আসন। অর্থাৎ, সরকার গড়ার জন্য প্রয়োজনীয় ১১২টি আসন কারও ঝুলিতেই থাকছে না্। আবার আগেভাগেই দেবগৌড়া জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি ‘কিংমেকার’ নন, ‘কিং’। ফলে ভোট গণনার পর পর্যাপ্ত আসন না পেয়ে বিজেপি বা কংগ্রেস যে দেবগৌড়ার শরণাপন্ন হবে, তা প্রায় নিশ্চিত। কিন্তু তিনি যাবেন কোন পক্ষে?

আরও পড়ুন: কর্নাটকের নতুন মুখ্যমন্ত্রী কে? ভোট গণনার আগেই ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন সিদ্দারামাইয়া!

সেই কঠিন প্রশ্নের উত্তর খুঁজতেই সম্ভবত বিদেশে চিকিৎসা করাতে গিয়েও দেশে ফিরে আসছেন কুমারস্বামী। এমনটাই জানা গিয়েছে তাঁর দলীয় সূত্রে। জেডি(এস) যে বিজেপির দিকে ঝুঁকবে না, সে কথাও যেমন আপাত সত্য, তেমনই কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়ার গত রবিবারের মন্তব্যও যথেষ্ট ইঙ্গিতবাহী। তিনি বলেছেন, কংগ্রেস ক্ষমতায় আসতে পারলে হাইকম্যান্ড চাইলে কোনো দলিত প্রতিনিধিকে মুখ্যমন্ত্রী করা হোক।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here