Connect with us

দেশ

Kumbh Mela 2021: কুম্ভের হরিদ্বারে গত দু’দিনে আক্রান্ত ১ হাজার, মুখ্যমন্ত্রী বললেন, ‘মারকাজের সঙ্গে তুলনা অর্থহীন’

মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “স্বাস্থ্য গুরুত্বপূর্ণ, কিন্তু ধর্মবিশ্বাসকেও মান্যতা দিতে হয়!”

Published

on

কুম্ভ শেষ হলে করোনা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটা ভেবেই শিহরিত হতে হয়। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: হরিদ্বারে বসেছে কুম্ভমেলার আসর। উত্তরাখণ্ড প্রশাসনের তরফে টেস্ট নিয়ে কড়াকড়ি থাকলেও মাস্ক পরা বা অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে কোনো কড়াকড়ি নেই। সাধারণ পুণ্যার্থীও স্বাস্থ্যবিধিকে দেদার শিকেয় তুলে পুণ্য স্নানে মেতেছেন। অনেকেরই বিশ্বাস গঙ্গায় ডুব দিলে করোনা হবে না।

যদিও পরিসংখ্যান সম্পূর্ণ উলটো কথা বলছে। গত দু’ দিনে শুধুমাত্র হরিদ্বারেই আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার জন। তাতেও অবশ্য বিচলিত নন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তীর্থ সিংহ রাওয়াত। এমনকি গত বছরের দিল্লির নিজামুদিনে সেই মারকাজের সঙ্গে কুম্ভমেলাকে তুলনা করা অর্থহীন বলেই জানিয়েছেন তিনি।

Loading videos...

গত সোমবার কুম্ভের প্রথম শাহি স্নান ছিল। হরিদ্বারের মূল ঘাট সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ রাখা হলেও শহর জুড়ে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তাঁরা। অন্য ঘাটে ভিড় করেছেন স্নানের জন্য। প্রশাসনের হিসেব বলছে লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হয়েছিল কুম্ভে। কার্যত কাউকেই স্বাস্থ্যবিধি পালন করতে দেখা যায়নি। অর্ধেক মানুষের মাস্ক ছিল না। বাকি অর্ধেকের আবার মাস্ক গলায় বা কানে ঝোলানো।

স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে যে নীতি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে, তা মারাত্মক ভাবেই লঙ্ঘিত হচ্ছে হরিদ্বারে। সবার চোখের সামনে। কিন্তু তাতেও কিছু করতে পারছে না পুলিশ প্রশাসন। অবশ্য পুলিশও অসহায়, কত জনকেই বা মাস্ক পরতে বলবেন! পরিস্থিতি যে ভয়াবহ হওয়ার ইঙ্গিত করছে তা ভালো মতোই বোঝা যাচ্ছে।

নেই শারীরিক দূরত্ব, নেই মাস্ক, কুম্ভের পুজোর্চনায় মুখ্যমন্ত্রী। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত

গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তরাখণ্ডে আক্রান্ত হয়েছেন ১,৯২৫ জন। এটা ভাবনারও বাইরে। গত বছর করোনার প্রথম ঢেউয়ে উত্তরাখণ্ড, হিমাচল, জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখের মতো পাহাড়ি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি করোনার দাপট থেকে রক্ষা পেয়েছিল। কিন্তু এ বার আর সেটা হচ্ছে না। সাধারণ মানুষের চূড়ান্ত অসচতেনতাই যে পরিস্থিতি এমন ভয়াবহ করে তুলেছে তা বলাই বাহুল্য।

তবুও এতে বিচলিত নন মুখ্যমন্ত্রী। খুব একটু হেলদোলও তাঁর আছে বলে মনে হয় না। হিন্দুস্তান টাইমস আয়োজিত একটি টক শোয়ে বক্তব্য রাখছিলেন রাওয়াত। সেখানেই তাঁকে প্রশ্ন করা হয় গত বছর মারকাজের বিরুদ্ধে কেন্দ্র যখন কড়া পদক্ষেপ নিল তখন কুম্ভ কী ভাবে হচ্ছে? মারকাজ যদি করোনার ‘সুপার স্প্রেডার’ হয়, তা হলে কুম্ভ তো আরও বেশি করে ‘সুপার স্প্রেডার!’

এই প্রশ্নের উত্তরে রাওয়াত বলেন, “কুম্ভের সঙ্গে মারকাজের তুলনা চলে না। মারকাজ হয়েছিল একটা বদ্ধ জায়গায়। কিন্তু কুম্ভ হচ্ছে হরিদ্বারের খোলামেলা ঘাটে।” সেই সঙ্গে রাওয়াত আরও যোগ করেন, “কুম্ভে যারা আসে, তারা আমাদের নিজেদের লোক। কিন্তু মারকাজে যারা এসেছিল, তাদের অনেকেই বিদেশি।”

মারকাজের সঙ্গে করোনা নিয়ে কোনো নির্দেশিকা ছিল না, এই দাবি করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এখন করোনা নিয়ে স্পষ্ট নির্দেশিকা রয়েছে। মানুষ করোনা নিয়ে অনেক বেশি সচেতন।” যদিও কুম্ভের হরিদ্বার জুড়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতার টিকিটুকু খুঁজে পাওয়া যায় না!

গঙ্গায় ডুব দিলে করোনা হবে না, মানুষের বিশ্বাস এমনই। ছবি: টুইটার থেকে সংগৃহীত

মানুষের স্বাস্থ্য গুরুত্বপূর্ণ হলেও, কারও ধর্মবিশ্বাসকে একদম অবজ্ঞা করা যায় না বলেও দাবি করেন তিনি। যদিও হরিদ্বারের ভিড় দেখে আঁতকে উঠছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের পালা তো তাও ১৫ দিনের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে, ইতিমধ্যে ১০টি জেলায় তা শেষও হয়ে গিয়েছে। কিন্তু হরিদ্বারে কুম্ভ চলবে ৪৫ দিন ধরে। এই ভিড় থেকে করোনা কী আকার নেয়, সেটাই ভাবিয়ে তুলছে বিশেষজ্ঞদের।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Bengal Corona Update: সংক্রমণের প্রথম চূড়াকে পেরিয়ে গেল কলকাতা, পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে

দেশ

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণের হার ১৪ শতাংশে, সংক্রমণ নামল ১০ হাজারে, অভাবী রাজ্যগুলিকে অক্সিজেন দিয়ে সাহায্য করতে চায় দিল্লি

পরিস্থিতির ক্রমে উন্নতি হচ্ছে দিল্লিতে।

Published

on

Coronavirus Delhi

খবরঅনলাইন ডেস্ক: যে দ্রুতগতিতে দিল্লিতে সংক্রমণ বেড়ে যাচ্ছিল, ঠিক ওই রকম দ্রুতগতিতেই সংক্রমণ কমছে। পরিসংখ্যান দেখে বুঝতে হয় যে রাজধানীতে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ এখন পুরোপুরি নিম্নমুখী। এই সুবাদে ফাঁকা শয্যার সংখ্যাও যেমন বাড়ছে, তেমনই কমছে অক্সিজেনের চাহিদাও। তাই উদ্বৃত্ত অক্সিজেন অভাবী রাজ্যগুলিকে সাহায্য করতে চায় দিল্লি। এমনই জানিয়েছেন রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া।

বৃহস্পতিবার বিকেলে দিল্লির স্বাস্থ্য দফতরের তরফে প্রকাশির রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে যে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৪৮৯ জন। এই সংখ্যাটি গত ১০ এপ্রিলের পর সব থেকে কম। বুধবার এই সংখ্যাটি ছিল ১৩ হাজারের ওপরে।

Loading videos...

পাশাপাশি সংক্রমণের হার নেমে এসেছে ১৪.২৪ শতাংশ। বুধবার এটাই ছিল ১৭.০৭ শতাংশ। গত ২৬ এপ্রিল রাজধানীতে সংক্রমণের হার উঠে গিয়েছিল ৩৫ শতাংশে। তার পর যে ভাবে রাতারাতি সংক্রমণের হার দিল্লিতে কমছে, এটা যথেষ্ট উৎসাহব্যঞ্জক। অন্যদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ১৮৯ জন। এর ফলে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে এসেছে ৭৭ হাজার ৭১৭-এ।

তবে তুলনামূলক ভাবে মৃত্যুহার দিল্লিতে এখনও বেশি রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩০৩ জন মারা গিয়েছেন রাজধানীতে। এর ফলে দিল্লিতে এখন মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২০ হাজার ৬১৮। মৃত্যুহার ১.৫ শতাংশ।

তবে ভালো খবর হল, সক্রিয় রোগীর সংখ্যা হুহু করে কমতে থাকায় অক্সিজেনের চাহিদাও কমছে রাজধানীতে। একই সঙ্গে, অক্সিজেনের জোগান চালু থাকায় জমেছে কিছু উদ্বৃত্তও। সেই অক্সিজেন অভাবী রাজ্যগুলিকে দিয়ে সাহায্য করতে চায় দিল্লি।

দিল্লির করোনা পরিস্থিতি নিয়ে এ দিন একটি সাংবাদিক বৈঠকে মণীশ বলেন, ‘‘অক্সিজেনের চাহিদা এখন অনেকটাই কমে গিয়েছে। হাসপাতালের শয্যাও ফাঁকা হচ্ছে ক্রমশ। ১৫ দিন আগেও দিনে ৭০০ মেট্রিক টন অক্সিজেনের দরকার পড়ছিল আমাদের। এখন চাহিদা কমে দাঁড়িয়েছে দৈনিক ৫৮২ মেট্রিক টনে।’’

কেন্দ্রকে বিষয়টি একটি চিঠি দিয়ে জানিয়েছে দিল্লি প্রশাসন। একইসঙ্গে অনুরোধ করেছে, দিল্লির জন্য বরাদ্দ অক্সিজেনের উদ্বৃত্ত যেন সেই সব রাজ্যকে দিয়ে সাহায্য করা হয়, যেখানে এখনও ঘাটতি রয়েছে।

আরও পড়তে পারেন পরিবেশগত ভাবে সব থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বিশ্বের ২০ শহরের মধ্যে ১৩টি ভারতে

Continue Reading

দেশ

Corona Lockdown: বিহারে লকডাউনের মেয়াদ বেড়ে ২৫ মে, ঘোষণা নীতীশ কুমারের

লকডাউন শেষ হওয়ার কথা ছিল ১৫ মে, তার আগেই ফের মেয়াদ বাড়ল!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় আরও ১০ দিন লকডাউনের (Lockdown) মেয়াদ বাড়াল বিহার রাজ্য সরকার।

বৃহস্পতিবার অন্যান্য মন্ত্রী এবং উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার (Nitish Kumar)। বৈঠকের পর তিনি টুইট করে জানান, লকডাউনের মেয়াদ আরও ১০ দিনের জন্য বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Loading videos...

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী টুইটারে লেখেন, “সহযোগী মন্ত্রী এবং আধিকারিকদের সঙ্গে বিহারের বর্তমান লকডাউনের অবস্থা নিয়ে আজ আলোচনা হয়েছে। লকডাউনের ইতিবাচক প্রভাব দেখা যাচ্ছে। অতএব, বিহারে লকডাউনের মেয়াদ আরও ১০ দিন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ, ১৬ মে থেকে ২৫ মে পর্যন্ত লকডাউন কার্যকর থাকবে”।

করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় এর আগে ১৫ মে পর্যন্ত লকডাউন জারি হয়েছিল বিহারে। বুধবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের পেশ করা তথ্য অনুযায়ী, ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ৮৬৩। ওই সময়ে মৃত্য়ু হয়েছে ৭৪ জনের। এখনও পর্যন্ত বিহারে মোট কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লক্ষ ২২ হাজার ৪৩৩ এবং মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩ হাজার ৫০৩। বর্তমানে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৯৯ হাজার ৬২৩।

এ দিকে, মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার বলেছেন, মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধির পরে সরকার হাসপাতালের বেড, ভেন্টিলেটর এবং অন্যান্য সরঞ্জামের সংখ্যা বাড়িয়ে পরিকাঠামোগত উন্নতি করছে।

আরও পড়তে পারেন: জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক অবিলম্বে ডাকা হোক, নির্মলা সীতারমনকে চিঠি অমিত মিত্রের

Continue Reading

দেশ

পাকিস্তান সীমান্তে নিজের সার্ভিস রিভলবারের গুলিতে আত্মঘাতী বিএসএফ জওয়ান

এক মাসের ছুটিতে ছিলেন ওই জওয়ান। গত ৩০ এপ্রিল তিনি পুনরায় দায়িত্বে যোগ দেন।

Published

on

Dead Body

খবর অনলাইন ডেস্ক: পাকিস্তান সীমান্তের কাছে জৈসলমের জেলায় নিজের সার্ভিস রিভলবারের গুলিতে এক বিএসএফ (BSF) জওয়ানের আত্মঘাতী হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে।

এক উচ্চপদস্থ পুলিশ আধকারিক জানিয়েছেন, বুধবার রাতে এই ঘটনাটি ঘটে। মৃত জওয়ানের নাম প্রেম সিং যাদব। মধ্যপ্রদেশের ভিণ্ডের বাসিন্দা ৫১ বছর বয়সি প্রেম।

Loading videos...

এই মৃত্যুর নেপথ্যে এখনও কোনো নির্দিষ্ট কারণ উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, পারিবারিক সমস্যার কারণে ওই জওয়ান হতাশাগ্রস্ত ছিলেন।

জৈসলমেরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিপিন শর্মা সংবাদ মাধ্যমের কাছে জানান, জেলার শাহগঞ্জের সীমানা এলাকায় বুধবার মধ্যরাত দেড়টা নাগাদ নিজের সার্ভিস রিভলবার থেকে গুলি চালিয়ে আত্মঘাতী হন ওই জওয়ান। গুলি চলার শব্দ শুনে অন্য জওয়ানরা সেখানে ছুটে যান। সেখানে গিয়ে তাঁরা দেখেন, রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন প্রেম।

সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকেরা তাঁকে দেখার পর মৃত ঘোষণা করেন।

বিএসএফ সূত্রে খবর, এক মাসের ছুটিতে ছিলেন ওই জওয়ান। গত ৩০ এপ্রিল তিনি পুনরায় দায়িত্বে যোগ দেন।

ময়না তদন্তের পরে পুলিশ তাঁর মৃতদেহ বিএসএফ আধিকারিকদের হাতে তুলে দেন। তাঁর পরিবারের সদস্যদের খবর দেওয়া হয়। ইতিমধ্যে বিএসএফ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়তে পারেন: India-Pakistan Relations: সংযুক্ত আরব আমিরশাহি আর সৌদি আরবের মধ্যস্থতাতেই ভারত-পাকিস্তানের সম্পর্কের উন্নতি?

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
রাজ্য6 mins ago

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত মরণোত্তর দেহ ও অঙ্গদান আন্দোলনের পথিকৃৎ ব্রজ রায়

Coronavirus Delhi
দেশ27 mins ago

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণের হার ১৪ শতাংশে, সংক্রমণ নামল ১০ হাজারে, অভাবী রাজ্যগুলিকে অক্সিজেন দিয়ে সাহায্য করতে চায় দিল্লি

delhi pollution
পরিবেশ51 mins ago

পরিবেশগত ভাবে সব থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বিশ্বের ২০ শহরের মধ্যে ১৩টি ভারতে

ধর্মকর্ম2 hours ago

Religious Places in Bengal: কালীক্ষেত্র কালীঘাট

দেশ2 hours ago

Corona Lockdown: বিহারে লকডাউনের মেয়াদ বেড়ে ২৫ মে, ঘোষণা নীতীশ কুমারের

শিল্প-বাণিজ্য3 hours ago

জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক অবিলম্বে ডাকা হোক, নির্মলা সীতারমনকে চিঠি অমিত মিত্রের

examination
শিক্ষা ও কেরিয়ার3 hours ago

Civil Services Prelims 2021: সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা স্থগিত করল ইউপিএসসি

Dead Body
দেশ3 hours ago

পাকিস্তান সীমান্তে নিজের সার্ভিস রিভলবারের গুলিতে আত্মঘাতী বিএসএফ জওয়ান

Madhyamik examination west bengal
শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

Madhyamik 2021: আপাতত সম্ভব নয় মাধ্যমিক পরীক্ষা, সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পর্ষদ

বিজ্ঞান2 days ago

জানেন কি, কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পর অ্যান্টিবডিগুলি কত দিন পর্যন্ত রক্তে থেকে যায়

দেশ2 days ago

Covid Crisis: সংক্রমণের ধার কমাতে একটি বিশেষ ওষুধে ছাড়পত্র দিল গোয়া, খেতে হবে সবাইকে

বিজ্ঞান2 days ago

রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

প্রযুক্তি2 days ago

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড অ্যাপ, সহজে জানা যাবে যাবতীয় তথ্য

দেশ2 days ago

Corona Update: দৈনিক সংক্রমণকে ছাপিয়ে গেল সুস্থতা, দু’মাস ধরে টানা বৃদ্ধির পর অবশেষে কমল সক্রিয় রোগী

শরীরস্বাস্থ্য1 day ago

করোনার এই দুঃসহ সময়ে অক্সিজেন বিপর্যয়ের সহজ সমাধান দিলেন বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল

দেশ2 days ago

Covid Crisis: অক্সিজেনের অভাবে ১১ কোভিডরোগীর মৃত্যু অন্ধ্রপ্রদেশের হাসপাতালে

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে