‘১৯৬২-এর পর লাদাখের পরিস্থিতি সবচেয়ে উদ্বেগজনক’, মানলেন বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর

0
ladakh situation

খবরঅনলাইন ডেস্ক: লাদাখের পরিস্থিতি যে সত্যিই উদ্বেগজনক, বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের (S Jaishankar) মন্তব্যের মধ্যে দিয়ে তা স্পষ্ট হয়ে গেল। বৃহস্পতিবার তাঁর মন্তব্য, পূর্ব লাদাখে চিনের সঙ্গে সীমান্ত সঙ্ঘাতের উত্তাপ যে পর্যায়ে পৌঁছেছে তা ১৯৬২ সালের পর তা আর কখনও হয়নি।

আলোচনায় কাজ না হলে চিন-সীমান্তে সামরিক পদক্ষেপের পথ খোলা বলে সোমবার মন্তব্য করেছিলেন চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত (Bipin Rawat)। তার কয়েক দিনের মাথায় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর স্পষ্ট করে দিলেন যে পরিস্থিতি খুবই উদ্বেগজনক। যদিও তিনি এ-ও মেনে নিয়েছেন যে চিনের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যা মেটাতে এখনও পর্যন্ত কূটনৈতিক স্তরেই আলোচনা চালিয়ে যেতে চায় নয়াদিল্লি।

এক সাক্ষাৎকারে বিদেশমন্ত্রী বলেন, ‘‘১৯৬২ সালের পর এটা নিশ্চিত ভাবেই সব চেয়ে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি। বাস্তবে ৪৫ বছর পর সীমান্তে আমাদের দু’পক্ষের মধ্যে প্রাণহানি হয়েছে। সম্প্রতি প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় দু’পক্ষ যে ভাবে সেনা মোতায়েন করেছে তা অভূতপূর্ব।’’

উল্লেখ্য, গত মে মাস থেকে পূর্ব লাদাখে মুখোমুখি ভারত এবং চিনের সেনা। গত ১৫ জুন দুই পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষও হয়। তার পর থেকেই নয়াদিল্লি এবং বেজিংয়ের মধ্যে তিক্ততা চরমে পৌঁছেছে। উত্তেজনা কমাতে দু’পক্ষের মধ্যে সেনা এবং কূটনৈতিক স্তরে দীর্ঘ আলোচনাও চলে। কিন্তু তাতে পরিস্থিতির বিশেষ বদল হয়নি।

গালওয়ানের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে এর আগেও। সেই সময়ে আলোচনার মধ্যে দিয়েই সমস্যার সমাধান হয়েছে। এই প্রসঙ্গ টেনে এনেই জয়শঙ্কর এ দিন বলেছেন যে তাঁর বিশ্বাস কূটনীতির মধ্যে দিয়েই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

‘করোনা ছড়ালে নির্দিষ্ট সম্প্রদায়কে দায়ী করা হবে’, মহরমের শোভাযাত্রার আবেদন খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন