ফের সাক্ষীদের বয়ান নিয়ে জটিলতা, লখিমপুর খেরি হিংসা মামলায় ৮ নভেম্বর পর্যন্ত শুনানি স্থগিত সুপ্রিম কোর্টে

0

নয়াদিল্লি: লখিমপুর খেরি হিংসা মামলার শুনানি হল সুপ্রিম কোর্টে। মঙ্গলবারেও সাক্ষীদের বয়ান রেকর্ড সংক্রান্ত বিষয়ে সর্বোচ্চ আদালতের প্রশ্নের মুখে পড়তে হল উত্তরপ্রদেশ সরকারকে। ঘটনার সময় যেখানে কয়েকশো কৃষক উপস্থিত ছিলেন, সেখানে কেন এত অল্প সংখ্যক সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে, এমন প্রশ্নের জবাব না পেয়ে ফের মামলার শুনানি পিছোল সর্বোচ্চ আদালত।

শুনানির সময়, উত্তরপ্রদেশ সরকারের পক্ষে উপস্থিত আইনজীবী হরিশ সালভে আদালতে বলেন, “৬৮ জন সাক্ষীর মধ্যে ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ৩০ জন সাক্ষীর জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ২৩ জন প্রত্যক্ষদর্শী রয়েছে”।

আইনজীবীর এমন কথা শোনার পর প্রধান বিচারপতি প্রশ্ন করেন, “ঘটনার সময় সেখানে কয়েক’শ লোক ছিল। তাদের মধ্যে প্রত্যক্ষদর্শী মাত্র ২৩ জন”? প্রধান বিচারপতি এনভি রমন্নার নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ বলে, “সেখানে চার হাজার-সাড়ে পাঁচ হবাজার লোকের ভিড় ছিল। যারা সকলেই স্থানীয় মানুষ এবং এমনকী ঘটনার পরে বেশিরভাগই আন্দোলন করেছিল। এমনটাই জানা গিয়েছে। এর পরে তো আর এই লোকগুলোকে শনাক্তকরণে কোনো সমস্যা হওয়ার কথা নয়”।

এর আগের দিনের শুনানির সময়েও এক প্রশ্নের মুখে পড়তে হয় যোগী সরকারকে। সালভে এ দিন বলেন, “আমরা সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য বিজ্ঞাপনও দিয়েছিলাম। ভিডিও প্রমাণও পাওয়া গেছে। তদন্ত চলছে”।

চলতি মাসের শুরুতে এই হিংসার ঘটনায় চার কৃষক ও একজন সাংবাদিক-সহ আটজন নিহত হয়েছেন। আদালত বিষয়টিকে স্বতঃপ্রণোদিত বিবেচনা করেছে এবং আগের শুনানিতে তদন্তে অসন্তোষজনক পদক্ষেপের জন্য উত্তরপ্রদেশ পুলিশকেও টেনেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলেও এই মামলার অন্যতম প্রধান অভিযুক্ত।

আরও পড়ুন: 

রাজ্যে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ গুটখা, তামাকজাত পান মশলা

এক সঙ্গে বাস করলে পথ দুর্ঘটনায় জামাইয়ের মৃত্যুতে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার অধিকারী শাশুড়িও, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর, ভরতি দিল্লির এইমসে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন