হায়দরাবাদ এনকাউন্টার: ‘আইন নিজের কাজ করেছে’, সাংবাদিক বৈঠকে দাবি পুলিশের

0
VC Sajjanar
সাংবাদিকদের মুখোমুখি সিপি সাজনার

ওয়েবডেস্ক: তেলঙ্গানার তরুণী পশুচিকিৎসককে গণধর্ষণ ও নৃশংস ভাবে খুনে অভিযুক্ত চারজনের এনকাউন্টারের বিষয়ে প্রশ্ন উত্থাপিত হওয়ার পরে সাংবাদিক বৈঠক করল সাইবারাবাদ পুলিশ।

শুক্রবার সাইবারবাদ থানার সিপি ভি সি সাজনার বলেন, “আইন নিজের দায়িত্ব পালন করেছে। ওই ব্যক্তিরা পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে”। এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে জানানো হয়, ভোরের ঘটনায় অরবিন্দ গৌড় এবং ভেঙ্কটেশ্বর নামে দুই পুলিশকর্মী জখম হয়েছেন।

পুলিশ প্রধান বলেন, “অভিযুক্তরা পাথর ও ধারালো জিনিস দিয়ে আমাদের মারতে শুরু করে এবং আমাদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার পরে আমাদের দিকে পাল্টা গুলি করতে শুরু করে। স্বাভাবিক ভাবেই আত্মরক্ষার তাগিদে আমরা পাল্টা গুলি চালাই”।

police
এই জায়গাতেই হয়েছিল এনকাউন্টার

তিনি জানান, শুক্রবার সাড়ে তিনটে নাগাদ ঘটনার পুনর্নির্মাণের জন্য চার অভিযুক্তকে নিয়ে যাওয়া হয় ঘটনাস্থলে। চার অভিযুক্তকে সেখানে নিয়ে যান ১০ সশস্ত্র পুলিশকর্মী এবং আধিকারিকেরা। হায়দরাবাদ থেকে ৫০ কিমি দূরে একটি ব্রিজের কাছে নিয়ে যাওয়া হয় অভিযুক্তদের। ওই জায়গাতেই চিকিৎসকের পোড়া দেহ পাওয়া গিয়েছিল। সেখানে গিয়েই পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্তরা। পুলিশের কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ছিনিয়ে নিয়ে আক্রমণ শুরু করে। আগ্নেয়াস্ত্র, ধারালো অস্ত্র এবং ইট দিয়ে তারা আক্রমণ করে। আত্মসম্পর্ণের কথা বললেও তারা শোনেনি।

[ আরও পড়ুন: ধর্ষকদের প্রাণভিক্ষার আবেদন জানানোর অধিকার বাতিল করা উচিত: রাষ্ট্রপতি ]

একই সঙ্গে পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তরা এই ধর্ষণ এবং খুন ছাড়া একাধিক মামলায় অভিযুক্ত ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.