খবরঅনলাইন ডেস্ক: শিখ পুরোহিতের পর আইনজীবী। কৃষি আইনের বিরোধিতা করে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন আরও একজন। কৃষকদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরোধিতায় আত্মঘাতী হলেন পাঞ্জাবের এক আইনজীবী।

সুইসাইড নোটের প্রতি ছত্রে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে তীব্র আক্রমণ শানিয়েছেন। জানিয়েছেন যে কৃষকদের প্রতি মোদী সরকারের ‘অমানবিক’ পদক্ষেপের প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি নিজের প্রাণ বিসর্জন দিলেন।

দিল্লির টিকরি সীমানায়, যেখানে কৃষকরা অবস্থান বিক্ষোভ করছেন, সেখানে বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হন অমরজিৎ সিং নামে ওই আইনজীবী। তিনি জালালাবাদের বাসিন্দা। সুইসাইড নোটে তিনি স্পষ্ট লেখেন, ”নতুন তিনটি আইন এনে সরকার সাধারণ মানুষের সঙ্গে তঞ্চকতা করেছেন। এতে পুঁজিবাদীরা উপকৃত হবেন, কৃষকরা আরও বঞ্চিত হবেন।” এর পরই মোদীকে উল্লেখ করে লেখেন, ”সাধারণ মানুষের কথা শুনুন।”

পুলিশ সূত্রে খবর, রবিবার টিকরি সীমানায় বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলে অমরজিৎ সিংকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা বাঁচাতে পারেননি। মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুরোহিতের আত্মহত্যা

উল্লেখ্য, গত ১৬ ডিসেম্বর বুধবার রাতেই এক শিখ পুরোহিত আত্মহত্যা করেন। আত্মঘাতী পুরোহিতের নাম বাবা রাম সিং। হরিয়ানার (Haryana) কর্নালের (Karnal) এক গুরুদ্বারের পুরোহিত তিনি।

আত্মহত্যার কারণ জানিয়ে বাবা রাম সিং একটি নোট লিখে গিয়েছেন। তিনি তাতে জানিয়েছেন, “সরকারের অবিচারের বিরুদ্ধে বেদনা ও ক্ষোভ প্রকাশ করতে” তিনি জীবন উৎসর্গ করছেন। তিনি আরও লেখেন, “নিজেদের অধিকার সুনিশ্চিত করার জন্য যে কৃষকরা লড়াই চালাচ্ছেন, তাঁদের ব্যথা আমি অনুভব করি…। তাঁদের সেই ব্যথা আমি ভাগ করে নিচ্ছি, কারণ সরকার তাঁদের প্রতি সুবিচার করছে না।”

উল্লেখ্য, আগামী ২৯ তারিখ ফের কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসার কথা কেন্দ্রের। লক্ষ্য, বছর শেষের সঙ্গে সঙ্গেই বিক্ষোভের আঁচ নিভিয়ে ফেলা। কিন্তু তার আগে পাঞ্জাবের আইনজীবীর আত্মহত্যা আন্দোলনকে আরও উসকে দিল বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষত তাঁর সুইসাইড নোটটি আন্দোলনকারীদের হাতিয়ার হয়ে উঠতে পারে, আশঙ্কা প্রশাসনের।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন