Connect with us

দেশ

৭১টি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার মিলিত লোকসান ৩১,২৬১ কোটি টাকা

ওয়েবডেস্ক: লোকসানে জর্জরিত সংস্থার হাল ফেরাতে বিলগ্নিকরণের পাশাপাশি ‘লাভজনক’ সংস্থাকেও বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়ে শোরগোল বেঁধেছে। কিন্তু লোকসানে চলা সংস্থা বিক্রি করতে গিয়ে কী ভাবে নাস্তানাবুদ হতে হয়, কেন্দ্র তা এয়ার ইন্ডিয়ার ক্ষেত্রেই ঠকে শিখেছে।

সরকার প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে ৭১টি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার মিলিত লোকসানের পরিমাণ ৩১,২৬১ কোটি টাকা। যেখানে আগের অর্থবছরে ৮১টি সংস্থার মিলিত লোকসানের পরিমাণ ছিল ২৭,৪৮০ কোটি টাকা।

লোকসভায় শীতকালীন অধিবেশনে লিখিত জবাবে ভারী শিল্প ও রাষ্ট্রায়ত্ত উদ্যোগ মন্ত্রী প্রকাশ জাভাড়েকর এই তথ্য প্রকাশ করেন।

২০১৭-১৮ অর্থবর্ষের রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা সমীক্ষা অনুযায়ী, দেশে সে সময় মহারাষ্ট্র-সহ অন্যত্র বিভিন্ন মন্ত্রক এবং বিভাগের অধীনে ৩৩৯টি কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা চালু ছিল।

অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ তাঁর প্রথম বাজেটে সরকারি খাতের একত্রীকরণ ও কৌশলগত পুনর্বিন্যাসের উপর জোর দিয়ে চলতি অর্থবছরের জন্য বিলগ্নিকরণের লক্ষ্যমাত্রা ৯০,০০০ কোটি থেকে বাড়িয়ে ১,০৫,০০০ কোটি ঘোষণা করেছিলেন।

সোমবার কেন্দ্রীয় অর্থ ও কর্পোরেট বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর লোকসভায় জানান, অর্থনৈতিক বিষয়ক মন্ত্রিসভা কমিটি ২৮টি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার ‘স্ট্র্যাটেজিক’ বিলগ্নিকরণ বা কৌশলগত বিক্রয় অনুমোদন করেছে।

কেন্দ্র বর্তমানে এ ধরনের দু’টি সংস্থার কৌশলগত বিক্রি প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। যেগুলির মধ্যে একটি এয়ার ইন্ডিয়া এবং অন্যটি ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড। নির্মলা সীতারমন জানিয়েছেন, আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যেই রাষ্টায়ত্ত সংস্থা দু’টিকে বিক্রি করে দেবে কেন্দ্র।

বিতর্ক বেঁধেছে এখানেই। ভারত পেট্রোলিয়ামের মতো ‘লাভজনক’ সংস্থাকে কেন বিক্রি করা হবে, সে প্রশ্নে সরব ট্রেড ইউনিয়নগুলি। যদিও সরকারি আধিকারিকদের যুক্তি, এর আগে এয়ার ইন্ডিয়া বিক্রি করতে গিয়ে ফাঁপরে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রকে। লোকসানে জর্জরিত সংস্থাকে কিনতে আগ্রহ দেখায়নি কোনো সংস্থা। স্বাভাবিক ভাবেই লাভজনক অবস্থায় বিক্রির জন্য পাল্লায় চড়ালে ক্রেতা মিলতে পারে।

এক নজরে ‘পণ্যসামগ্রী’

ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড (বিপিসিএল), বিইএমএল, কন্টেনার কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া (কনকর) এবং শিপিং কর্পোরেশন অব ইন্ডিয়া (এসসিআই)-র বিক্রিতে কৌশলগত পদ্ধতি স্পষ্ট করা হয়েছে। টিএইচডিসি ইন্ডিয়া এবং নিপকোর মতো উভয় বিদ্যুৎ সংস্থার অংশীদারিত্ব বিক্রিতেও অনুমোদন মিলেছে সাম্প্রতিক সরকারি বৈঠকে। এই সংস্থা দু’টিকে গ্রহণ করতে পারে রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা এনটিপিসি।

বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী, বিপিসিএলে সরকারি শেয়ারের দাম প্রায় ৫৫,০০০ কোটি টাকা, তবে কৌশলগত বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে নিয়ন্ত্রণ প্রিমিয়াম পেলে আসল আদায় আরও বেশি হতে পারে। সে ক্ষেত্রে সরকার ৬৫,০০০ কোটি টাকা আশা করছে। সরকারি সূত্র মতে, বর্তমানে সরকারের অংশীদারিত্ব বিক্রির পরিমাণ ৫৩ শতাংশ, এর জন্য সংসদীয় অনুমোদনের দরকার পড়বে না।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধীনে রাষ্ট্র-পরিচালিত সংস্থা বিইএমএল-এ সরকারের ৫৪% অংশীদারিত্বের বর্তমান মূল্য প্রায় ২,১০০ কোটি টাকা; কনকরের ৫৪.৮% শেয়ারের দাম প্রায় ২০,০০০ কোটি টাকা এবং এসসিআইয়ের ৭৩.৭৫% অংশীদারিত্বের দাম প্রায় ১,৩০০ কোটি টাকা পাওয়া যাবে বলে আশাপ্রকাশ করা হচ্ছে।

মার্চের মধ্যেই এয়ার ইন্ডিয়া, বিপিসিএল

গত বছর সরকার এয়ার ইন্ডিয়ার ৭৬ শতাংশ অংশীদারিত্ব ও ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণের উপর ইওআই প্রকাশ করেছিল কিন্তু কোনো দরদাতা আগ্রহ দেখায়নি। সরকার বর্তমানে এয়ার ইন্ডিয়ার ১০০ শতাংশ ইক্যুইটির মালিকানাধীন। সীতারমন জানিয়েছেন, ঋণগ্রস্ত রাষ্ট্রায়ত্ত দু’টি সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া এবং ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনকে সরকার আগামী বছরের মার্চ মাসের মধ্যে বিক্রি করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

একই সঙ্গে এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য বিনিয়োগকারীদের মধ্যে “অনেক আগ্রহ” রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সীতারমন। সম্প্রতি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা পুনর্নির্মাণের প্রক্রিয়া পরিবর্তনের অনুমোদন দিয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, সম্ভাব্য দরদাতাদের আগ্রহের অভিব্যক্তি (ইওআই) প্রকাশের আগেই আগ্রহী সংস্থাকে বাড়তি সুবিধা দেওয়া হবে, যাতে সম্ভাব্য ক্রেতাদের উদ্বেগের সমাধান করা যায়।

তবে এখানেই শেষ নয়, সমস্ত রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকেই বেসরকারিকরণের প্রাথমিক আলোচনা জারি রয়েছে এনডিএ সরকারের অভ্যন্তরে!

দেশ

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

সক্রিয় কোভিড-১৯ রোগীর সংখ্যার দিক থেকে তালিকার উপরের দিকে রয়েছে দেশের আটটি রাজ্য।

নয়াদিল্লি: ভারতে করোনাভাইরাস (Coronavirus) আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে সাত লক্ষের গণ্ডি ডিঙনোর পাশাপাশি আক্রান্তের হারও বেড়ে চলেছে ক্রমশ। বৃহস্পতিবার কেন্দ্র জানাল, সক্রিয় কোভিড-১৯ (Covid-19) রোগীর সংখ্যার দিক থেকে তালিকার উপরের দিকে রয়েছে দেশের আটটি রাজ্য। যেগুলিতে সারা দেশের প্রায় ৯০ শতাংশ সক্রিয় রোগী রয়েছেন।

এ দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিগোষ্ঠীর (GoM) বৈঠকের আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রক দেশের করোনা সংক্রমণের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি এবং প্রতিরোধমূলক পদক্ষেপগুলির পাশাপাশি স্বাস্থ্য পরিকাঠামো পুনর্গঠনগত যাবতীয় উদ্যোগের তথ্য পেশ করে।

কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান অনুযায়ী, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি এবং কর্নাটক-সহ দেশের আটটি রাজ্যে ৯০ শতাংশ সক্রিয় রোগী রয়েছেন। অন্য দিকে সারা দেশের ৪৯টি জেলায় ৮০ শতাংশ সক্রিয় রোগীর চিকিৎসা চলছে।

কোন কোন রাজ্য

মন্ত্রিগোষ্ঠীর বৈঠকে পেশ করা তথ্য অনুযায়ী, আটটি রাজ্যের তালিকায় রয়েছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, কর্নাটক, তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, গুজরাত, তামিলনাড়ু এবং উত্তরপ্রদেশ।

এ দিন মন্ত্রিগোষ্ঠীর ১৮তম বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন। দেশের যে সমস্ত এলাকায় সংক্রমণ এবং আক্রান্তের মৃত্যুর হার অত্যধিক, সেই সমস্ত জায়গায় বাড়তি নজরদারি চালানোর কথা উল্লেখ করা হয়।

মৃত্যুর হার

এ দিন মন্ত্রিগোষ্ঠীর বৈঠকে পেশ করা পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, দেশের ছ’টি রাজ্যে করোনা মৃত্যুর হার অন্যান্য রাজ্যের থেকে তুলনামূলক ভাবে বেশি।

সারা দেশে মোট করোনা-মৃত্যুর ৮৬ শতাংশই ওই ছ’টি রাজ্যে। অন্য দিকে মোট করোনা-মৃত্যুর ৮০ শতাংশই ৩২টি জেলায়।

রাজ্যগুলির মধ্যে রয়েছে মহারাষ্ট্র, দিল্লি, গুজরাত, তামিলনাড়ু, উত্তরপ্রদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গ।

প্রতিরোধী ব্যবস্থা

কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যপরিষেবা সম্পর্কে এ দিন কেন্দ্র জানায়, সারা দেশে ৩,৯১৪টি কেন্দ্রে ৩,৭৭,৭৩৭টি আইসোলেশন বেড (আইসিইউ ছাড়া), ৩৯,৮২০টি আইসিইউ বেড এবং ১,৪২,৪১৫টি অক্সিজেন-যুক্ত বেড এবং ২০,০৪৭টি ভেন্টিলেটরের মাধ্যমে চিকিৎসা চলছে।

কেন্দ্র এখনও পর্যন্ত ২১.৩ কোটি এন৯৫ মাস্ক, ১.২ কোটি পিপিই এবং ৬.১২ কোটি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ট্যাবলেট সরবরাহ করেছে।

আরও পড়তে পারেন: করোনায় মৃত্যুহারে কে কোথায়

Continue Reading

দেশ

করোনায় মৃত্যুহারে কে কোথায়

খবরঅনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস যে মারণ ভাইরাস নয়, সেটা ভারতের গড় মৃত্যুহারই বুঝিয়ে দিচ্ছে। এখনও গোটা দেশে মৃত্যুর হার তিন শতাংশেরও কম। তবে কিছু রাজ্যে মৃত্যুহার জাতীয় গড়ের থেকে বেশি রয়েছে। আবার অনেক রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল রয়েছে যেখানে মৃত্যুহার জাতীয় গড়ের থেকে কম।

একবার দেখে নেওয়া যাক, ভারতের বিভিন্ন রাজ্য আর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে মৃত্যুহার কী রকম রয়েছে।

১) গুজরাত

মোট রোগী- ৩৮,৩৩৩

মৃত্যুহার- ৫.১৯%

২) মহারাষ্ট্র

মোট রোগী- ২,২৩,৭২৪

মৃত্যুহার- ৪.২২%

৩) মধ্যপ্রদেশ

মোট রোগী- ১৬,০৩৬

মৃত্যুহার- ৩.৯২%

৪) পশ্চিমবঙ্গ

মোট রোগী- ২৪,৮২৩

মৃত্যুহার- ৩.৩৩%

৫) দিল্লি

মোট রোগী- ১,০৪,৮৬৪

মৃত্যুহার- ৩.০৬%

৬) উত্তরপ্রদেশ

মোট রোগী- ৩১,১৫৬

মৃত্যুহার- ২.৭১%

৭) পঞ্জাব

মোট রোগী- ৬,৯০৭

মৃত্যুহার- ২.৫৭%

৮) রাজস্থান

মোট রোগী- ২২,০৬৩

মৃত্যুহার- ২.১৮%

৯) কর্নাটক

মোট রোগী- ২৮,৮৭৭

মৃত্যুহার- ১.৬২%

১০) জম্মু-কাশ্মীর

মোট রোগী- ৯,২৬১

মৃত্যুহার- ১.৬০%

১১) হরিয়ানা

মোট রোগী- ১৮,৬৯০

মৃত্যুহার- ১.৫০%

১২) উত্তরাখণ্ড

মোট রোগী- ৩,২৫৮

মৃত্যুহার- ১.৪১%

১৩) পুদুচেরি

মোট রোগী- ১,০০৮

মৃত্যুহার- ১.৩৮%

১৪) চণ্ডীগড়

মোট রোগী- ৫১৩

মৃত্যুহার- ১.৩৬%

১৫) মেঘালয়

মোট রোগী- ৮০

মৃত্যুহার- ১.২৫%

১৬) অসম

মোট রোগী- ১৩,৩৩৬

মৃত্যুহার- ১.১৯%

১৭) অন্ধ্রপ্রদেশ

মোট রোগী- ২২,২৫৯

মৃত্যুহার- ১.১৮%

১৮) তেলঙ্গানা

মোট রোগী- ২৯,৫৩৬

মৃত্যুহার- ১.০৯%

১৯) হিমাচল প্রদেশ

মোট রোগী- ১,১০১

মৃত্যুহার- ০.৯৯%

২০) বিহার

মোট রোগী- ১৩,১৮৯

মৃত্যুহার- ০.৮১%

২১) ঝাড়খণ্ড

মোট রোগী- ৩,০৯৬

মৃত্যুহার- ০.৭১%

২২) অরুণাচল প্রদেশ

মোট রোগী- ২৮৭

মৃত্যুহার- ০.৭০%

২৩) ত্রিপুরা

মোট রোগী- ১.৭৬১

মৃত্যুহার- ০.৫৪%

২৪) ওড়িশা

মোট রোগী- ১০,৬২৪

মৃত্যুহার- ০.৪৫%

২৫) কেরল

মোট রোগী-৬,১৯৫

মৃত্যুহার- ০.৪৩%

২৬) ছত্তীসগঢ়

মোট রোগী- ৩,৫২৫

মৃত্যুহার- ০.৩৯%

২৭) গোয়া

মোট রোগী- ২,০৩৯

মৃত্যুহার- ০.৩৯%

২৮) তামিলনাড়ু

মোট রোগী- ১,২২,৩৫০

মৃত্যুহার- ০.১৩%

২৯) লাদাখ

মোট রোগী- ১,০৪১

মৃত্যুহার- ০.০৯%

৩০) সিকিম

মোট রোগী- ১৩৩

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

৩১) মিজোরাম

মোট রোগী- ১৯৭

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

৩২) নাগাল্যান্ড

মোট রোগী- ৬৫৭

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

৩৩) দাদরা, দমন দিউ

মোট রোগী- ৪০৮

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

৩৪) আন্দামান

মোট রোগী- ১৪৯

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

৩৫) মণিপুর

মোট রোগী- ১,৪৩৫

মৃত্যুহার- ০% (কারও মৃত্যু হয়নি)

Continue Reading

দেশ

উজ্জয়িনীর মহাকাল মন্দির থেকে গ্রেফতার বিকাশ দুবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এক সপ্তাহ ধরে পুলিশকে ধোঁকা দেওয়ার পর অবশেষে ধরা পড়ল কুখ্যাত দুষ্কৃতী বিকাশ দুবে। বৃহস্পতিবার সকালে মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনীর মহাকাল মন্দির থেকে বিকাশকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এমনই খবর উত্তরপ্রদেশ পুলিশ সূত্রের।

গত দু’ দিনে পুলিশি এনকাউন্টারে নিহত হয়েছে বিকাশের তিন ঘনিষ্ঠ সঙ্গী। বুধবার ভোরে নিহত হয়েছিল অমর দুবে। বৃহস্পতিবার ভোরে প্রভাত মিশ্র আর রনবীর নামক তার আরও দুই সঙ্গী নিহত হয়। কিন্তু তবুও পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে বেড়াচ্ছিল বিকাশ।

অবশেষে এ দিন সকালে তাকে পাকড়াও করতে সফল হয় পুলিশ। উজ্জয়িনীর জেলাশাসক আশিস সিংহ বলেন, “মহাকাল মন্দিরে ঢোকার মুখে নিরাপত্তারক্ষীরা বিকাশকে আটকায়। জিজ্ঞাসাবাদ করার পর সন্দেহ হওয়ায় খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। পুলিশ চাপ দিলে নিজের পরিচয় জানাতে বাধ্য হয় বিকাশ।”

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের বৃহস্পতিবার রাতে কানপুরে বিকাশ দুবেকে গ্রেফতার করতে অপারেশন চালায় পুলিশ। কিন্তু ‘সর্ষের মধ্যেই ভূত’ থাকায় সেই খবর আগেই জানতে পারে বিকাশ। ফলে পুলিশ আসার আগেই সমস্ত প্রস্তুতি সেরে রাখে সে।

ছাদে দাঁড়িয়েই নিজের অ্যাকশন স্কোয়াড থেকে গুলি করে মারে পুলিশকর্মীদের। মৃত্যু হয় আট জনের। তার পর থেকেই এই দুষ্কৃতীকে খুঁজতে মরিয়া হয়ে ওঠে পুলিশ।

এরই মধ্যে মঙ্গলবার হরিয়ানার ফরিদাবাদে একটু হোটেলের সিসিটিভিতে দুবেকে দেখা যায়। সেই ফুটেজ দেখে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছোতেই চম্পট দেয় বিকাশ। যদিও ধরা পড়ে যায় তার তিন সঙ্গী। এদের মধ্যেই একজন বৃহস্পতিবার সকালে নিহত হয় পুলিশের গুলিতে।

উল্লেখ্য, খুন, ডাকাতি, অপহরণ-সহ ৬০টি মামলা রয়েছে বিকাশের বিরুদ্ধে।

Continue Reading
Advertisement
দেশ7 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৪৮৭৯, সুস্থ ১৯৫৪৭

currency
শিল্প-বাণিজ্য3 days ago

পিপিএফের ৯টি নিয়ম, যা জেনে রাখা ভালো

কলকাতা22 hours ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

রাজ্য2 days ago

পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় ফের কড়া লকডাউনের জল্পনা

দেশ2 days ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

ক্রিকেট3 days ago

ওপেনার সচিন তেন্ডুলকরের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

দেশ3 days ago

গালোয়ান উপত্যকা থেকে চিন সেনার পিছু হঠার পেছনেও অজিত ডোভালের ভূমিকা

বিদেশ2 days ago

অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা3 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা4 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা1 week ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে