Jail Custody
ছবি: প্রতীকী

লখনউ: ৩৮ বছর বয়সি রমেশ সিংহ পেশায় ব্যবসায়ী। তাঁর নামে অপরাধের কোনো রেকর্ড নেই পুলিশের কাছে। কিন্তু গত মে মাসে, একটা দিন জেলে কাটিয়ে এসেছেন তিনি।

অবশ্য শুধু রমেশই নয়, এ ভাবে জেলে অন্তত একটা রাত কাটাতে দেওয়ার হাজার হাজার আবেদন জমা পড়ছে পুলিশের কাছে। গত ৪৮ ঘণ্টায় এই আবেদনের হিড়িক আরও বেড়েছে। যাঁরা জেলে থাকতে চাইছেন, কেউই অপরাধী নন। তা হলে কেন এই আবেদন? এর কারণ জানলে আপনি চমকে যাবেনই।

আজব এই আবেদনের কারণ জ্যোতিষী। জ্যোতিষীরাই তাঁদের বলেছেন যে তাঁদের কপালে রয়েছে জেলযোগ। আবেদনকারীরা ভাবছেন অন্তত একটা রাত জেলে কাটিয়ে নিলে এই ‘জেলযোগ’-এর ফাঁড়া কেটে যাবে।

আরও পড়ুন নিকাহ হালালের অজুহাতে বৌমাকে ধর্ষণ শ্বশুরের, অভিযুক্তরা পলাতক

এ ভাবেই ২৪ ঘণ্টা লকআপে কাটিয়েছেন রমেশ। গত এপ্রিল মাসে রমেশ জেলা প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করেন তাঁকে জেলে পাঠানোর জন্য। সঙ্গে জমা দেন তাঁর একটি ঠিকুজি-কুষ্ঠী। রমেশের পারিবারিক জ্যোতিষী তাঁকে বলেছিলেন ভবিষ্যতে তাঁর জেলযোগ রয়েছে। একরাত জেলে কাটালেই তা কেটে ‌যাবে। প্রশাসন রমেশের সেই আবেদনে সাড়া দেয়। মে মাসে তিনি একরাত কাটান পুলিশ লকআপে।

এ দিকে আজব ওই আবেদনে প্রবল বিপাকে ‌যোগী প্রশাসন। অনেক ভাবনাচিন্তা করে তারা একটা রাস্তা বের করেছে। আদালতের আদেশ ছাড়া কাউকে জেলে ঢোকানো ‌যায় না। তা হলে রাস্তা একমাত্র পুলিশ লকআপ। সেখানেই রাখা হচ্ছে ওই সব আবেদনকারীকে।

কিন্তু দিনের পর দিন এ রকম আবেদন জমা পড়লে অপরাধী দমনে কী হবে সেই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে পুলিশের অন্দরে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন