মহারাষ্ট্র সংকটে নয়া মোড়! এনসিপি-কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে চাইলেও জোটে নারাজ একনাথ শিন্ডে

0

মুম্বই: কয়েক দিন ধরেই একের পর এক নাটকীয় ঘটনা মহারাষ্ট্রের রাজনীতিতে। যে কোন মুহূর্তে পদত্যাগ করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে শিবসেনার বিদ্রোহী বিধায়ক একনাথ শিন্ডেকে মুখ্যমন্ত্রীপদে বসিয়ে জোট সরকার টিকিয়ে রাখতে মরিয়া কংগ্রেস এবং এনসিপি। এমন বার্তা পেয়েই একনাথ জানিয়ে দিলেন, শিবসেনাকে টিকিয়ে রাখতে অবিলম্বে দুই শরিকের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা জরুরি।

এ দিনই মন্ত্রীসভার বৈঠকের পর দলের বিধায়কদের স্পষ্ট বার্তা দেন উদ্ধব। জানিয়ে দেন, এক জন বিধায়কও যদি তাঁকে না চান, তা হলে পদত্যাগের জন্য তৈরি তিনি। তার পরই শোনা যায়, উদ্ধবকে অপসারণ করে একনাথকে মুখ্যমন্ত্রীপদে বসানোর পরামর্শ দিয়েছেন কংগ্রেস এবং এনসিপি নেতৃত্ব। কিন্তু বেঁকে বসলেন খোদ একনাথ।

একনাথ টুইটারে লেখেন, “গত আড়াই বছরের জোট সরকারে লাভবান হয়েছে কংগ্রেস, এনসিপি। যেখানে অন্যান্য দল শক্তিশালী হয়েছে, সেখানে সেনা শুধুমাত্র দুর্বল হয়েছে। যা দেখে শিব সৈনিকরা অবাক হয়েছেন”।

তিনি আরও লেখেন, “দল এবং শিব সৈনিকদের বেঁচে থাকার জন্য অস্বাভাবিক জোট থেকে বেরিয়ে আসা জরুরি। মহারাষ্ট্রের স্বার্থে এখনই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার”।

প্রসঙ্গত, ২৮৮ সদস্যের মহারাষ্ট্র বিধানসভায় শিবসেনার বিধায়ক ৫৫। যাঁদের মধ্যে ৪০ জনই শিন্ডের সঙ্গে রয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। ফলে তাঁরা যদি ইস্তফা দেন, তা হলে শিবসেনার বিধায়ক সংখ্যা নেমে আসতে পারে ১৫-য়। সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারাবে জোট সরকার। যা মোটেই কাম্য নয় সরকারের আর দুই শরিক এনসিপি এবং কংগ্রেসের।

আরও পড়তে পারেন:

উদ্ধবের অপসারণ, মুখ্যমন্ত্রীপদে একনাথ শিন্ডেকেই চাইছে এনসিপি-কংগ্রেস

দিদি বললেই কাজে যোগ দেবেন শোভন, নবান্নে মমতার সঙ্গে সাক্ষাতের পর মন্তব্য বৈশাখীর

মুদ্রাস্ফীতির গতিপথ পরিবর্তনে জোর দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, তা হলে কি আবার বাড়বে সুদের হার

অসুস্থতা কাটেনি, ইডির কাছে আপাতত হাজিরা থেকে অব্যাহতি চাইলেন সনিয়া গান্ধী

ইস্তফাপত্র তৈরি, বিধায়ক-বিদ্রোহের আবহে স্পষ্ট বার্তা উদ্ধব ঠাকরের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন