উদ্ধব ঠাকরে। ফাইল ছবি

মুম্বই: রাজনৈতিক সংকট অব্যাহত। মহারাষ্ট্রের রাজ্য বিধানসভায় ত্রি-দলীয় মহা বিকাশ আঘাডীর সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে এখন প্রশ্ন উঠেছে। শিবসেনার বিদ্রোহী বিধায়ক একনাথ শিন্ডে দাবি করেছেন, তাঁর সঙ্গে রয়েছেন দলের ৩৮ এবং নির্দল ন’জন বিধায়ক। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি তুলেছে বিরোধীরা।

বিদ্রোহী বিধায়কদের অযোগ্য ঘোষণা করার জন্য ডেপুটি স্পিকার নরহরি সীতারাম জিরওয়ালের কাছে একটি আবেদন জমা দিয়েছে উদ্ধব শিবির। শিন্ডে আবার ডেপুটি স্পিকারের অপসারণ চেয়ে প্রস্তাব আনার জন্য নোটিস দিয়েছেন। তবে রাজ্যপাল এখনও যেহেতু বিধানসভার অধিবেশন আহ্বান করেননি, তাই শিন্ডের চিঠির কোনো আইনি বৈধতা নেই বলেই মনে করছেন পরিষদীয় বিশেষজ্ঞরা।

এমন পরিস্থিতিতে নিজেদের কর্মপন্থা নির্ধারণের জন্য আজ বৈঠক করছে উভয় শিবির। এরই মধ্যে, শনিবার বিকেলে শিন্ডে শিবিরের ১৬ বিদ্রোহী শিবসেনা বিধায়ককে পদ খারিজের নোটিশ জারি করেছেন ডেপুটি স্পিকার। বিধায়কদের সোমবার, ২৭ জুনের মধ্যে তাঁদের লিখিত জবাব দেওয়ার কথা রয়েছে।

মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন অ্যাডভোকেট জেনারেল শ্রীহরি আনায়ের ব্যাখ্যা, “বিধায়কদের পদ খারিজের ঘোষণা একটি আইনি যুক্তির উপর ভিত্তি করে করা হবে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে উভয়পক্ষকে (বিদ্রোহী বিধায়ক এবং শিবসেনা) শুনানির অনুমতি দিতে হবে ডেপুটি স্পিকারকে”।

ডেপুটি স্পিকারকে সরানোর মতোই জটিলতা রয়েছে অনাস্থা প্রস্তাব নিয়েও। বিধি অনুযায়ী রাজ্যপাল যদি বিধানসভার অধিবেশন আহ্বান করেন, একমাত্র তখনই এই ধরনের প্রস্তাব বা মোশন আনা যায়। তা ছাড়া স্পিকার বা ডেপুটি স্পিকারকে সরাতে হলে অন্তত ১৪ দিনের নোটিস দিতে হয়। সেই ১৪ দিনের মেয়াদ শেষ হলে বিধানসভায় সেই মোশন আনতে হবে এবং তারপর পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।

এরই মধ্যে উঠে এসেছে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি। অমরাবতীর সাংসদ নবনীত রানা ইতিমধ্যে মহারাষ্ট্রে রাষ্ট্রপতি শাসনের আহ্বান জানিয়েছেন। শনিবার তিনি বলেন,”যে সব বিধায়কেরা উদ্ধব ঠাকরেকে ছেড়ে চলে যাচ্ছেন এবং বালাসাহেবের আদর্শের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন, আমি তাঁদের পরিবারকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অনুরোধ করছি। উদ্ধব ঠাকরের গুন্ডামি শেষ হওয়া উচিত। আমি রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের জন্য অনুরোধ করছি”।

এক দিকে যেমন উদ্ধব নিজের অস্তিত্ব বাঁচানোর লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন, অন্য দিকে শিন্ডেও ঘনঘন বদলাচ্ছেন সিদ্ধান্ত। এ দিনই শোনা যায়, বিদ্রোহী একনাথ এবং তাঁর অনুগামী বিধায়কেরা শিবসেনা (বালাসাহেব) নামে পৃথক একটি দল গঠন করতে চলেছেন।

আরও পড়তে পারেন:

একনাথ শিন্ডে: এক সময় ছিলেন অটো চালক, এখন মহারাষ্ট্রের রাজনীতির রাশ তাঁরই হাতে

বৈঠকে ডাকেননি মমতা-পওয়ার, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ প্রার্থীকে সমর্থন মায়াবতীর

মল্লিকবাজারে হাসপাতালের ৮ তলার কার্নিশে প্রায় দেড় ঘণ্টা, ধাক্কা খেতে খেতে মাটিতে পড়লেন রোগী

২৬/১১ হামলায় জড়িত লস্কর জঙ্গির ১৫ বছরের জেল হল পাকিস্তানে

ঝাড়খণ্ডে ঘূর্ণাবর্ত, বৃষ্টি কিছুটা বাড়ল দক্ষিণবঙ্গে

মহিলাদের গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার কেড়ে নিল মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট, হতাশ জো বাইডেন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন