কোলাপুর: জয়পুরের পর কোলাপুর। ফের সঞ্জয় লীলা বনশলির পদ্মাবতী ছবির সেটে ফের হামলা চালাল দুষ্কৃতীরা। রাত একটা নাগাদ ১০-২০ জনের একটি দল পদ্মাবতীর সেটে হামলা করে সেটে আগুন লাগিয়ে দেয়। সেটের বিভিন্ন জিনিসপত্রে ব্যাপক ভাঙচুরও চালায় তারা। তবে ঘটনায় সেটের কেউ হতাহত হননি। জয়পুরের ঘটনায় শারীরিক ভাবে নিগৃহীত হয়েছিলেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশলি। এদিন তেমন কিছু হয়নি। প্রায় ৫০ হাজার বর্গফুট জুড়ে তৈরি করা হয়েছে সেটটি।

মহারাষ্ট্রের সংস্কৃতিমন্ত্রী বিনোদ তাওড়ে ঘটনার সমালোচনা করে বলেছেন, সমস্ত সমস্যাই কথাবার্তার মাধ্যমে মেটানো উচিৎ।

গত জানুয়ারি মাসে রাজস্থানের জয়পুরের নাহারগড় দুর্গে শুটিং চলার সময়, সেটে আক্রমণ করে কারনি সেনা নামে একটি রাজপুত গোষ্ঠী। সেটে  ভাঙচুড় চালানোর পাশাপাশি বনশলিকে শারীরিক ভাবে নিগ্রহও করে তারা। তারপরই রাজস্থান থেকে শুটিং গুটিয়ে মহারাষ্ট্রে চলে আসেন সঞ্জয়।

পদ্মাবতী ছবিটি তৈরি হচ্ছে রানি পদ্মিনী ও সম্রাট আলাউদ্দিন খিলজির কিংবদন্তির ওপর ভিত্তি করে। প্রচলিত আছে, খিলজি যখন চিতোর রাজ্য আক্রমণ করেন তখন তাঁর হাত থেকে বাঁচার জন্য জহর ব্রত পালন করে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেন রানি পদ্মিনী। পদ্মাবতী ছবির যারা প্রতিবাদ করছেন, তাঁদের দাবি ছবির একটি গান ও স্বপ্নদৃশ্যে পদ্মিনী ও আলাউদ্দিনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক দেখানো হয়েছে। যদিও এমন কোনো দৃশ্যের উপস্থিতির কথা অস্বীকার করেছেন সঞ্জয় লীলা বনশলি।

পদ্মাবতী ছবিতে রানি পদ্মিনীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন দীপিকা পাডুকোন, আলাউদ্দিন খিলজির ভূমিকায় রনবীর সিং এবং পদ্মীনীর স্বানী রতন সিং-এর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শহিদ কাপুর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here