উদ্ধবের অপসারণ, মুখ্যমন্ত্রীপদে একনাথ শিন্ডেকেই চাইছে এনসিপি-কংগ্রেস

0

মুম্বই: মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের অপসারণ কার্যত নিশ্চিত। সূত্রের খবর, বুধবার উদ্ধবের সঙ্গে দেখা করে শিবসেনার বিদ্রোহী বিধায়ক একনাথ শিন্ডেকেই নতুন মুখ্যমন্ত্রী করার পরামর্শ দিলেন জোট শরিক এনসিপি এবং কংগ্রেস নেতৃত্ব।

২৮৮ সদস্যের মহারাষ্ট্র বিধানসভায় শিবসেনার বিধায়ক ৫৫। যাঁদের মধ্যে ৪০ জনই শিন্ডের সঙ্গে রয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। ফলে তাঁরা যদি ইস্তফা দেন, তা হলে শিবসেনার বিধায়ক সংখ্যা নেমে আসতে পারে ১৫-য়। সংখ্যা গরিষ্ঠতা হারাবে জোট সরকার। যা মোটেই কাম্য নয় সরকারের আর দুই শরিক এনসিপি এবং কংগ্রেসের।

মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কংগ্রেস সাংসদ কেসি ভেণুগোপাল বলেন, “এটা শিবসেনার অভ্যন্তরীণ সমস্যা। ফলে দলের নেতারাই এই সমস্যার সমাধান করতে পারেন। অর্থ এবং এজেন্সি ব্যবহার করে বিজেপি এ সব করছে। তবে আমার মনে হয় শিবসেনা টিকে থাকবে”।

এ দিনই বিধায়কদের উদ্দেশে স্পষ্ট বার্তা দেন উদ্ধব। একটি আবেগপূর্ণ ভাষণে তিনি বলেন, চেয়ারের জন্য তিনি লড়াই করবেন না। পার্টির প্রতিষ্ঠাতা বালাসাহেব ঠাকরের আদর্শ থেকে কোনো বিচ্যুতি হয়নি। তবে কোনো একজন বিধায়কও যদি তাঁর প্রতি অসন্তুষ্ট হন, তা হলে তিনি পদত্যাগ করতে প্রস্তুত।

এই বার্তার পরই উদ্ধবের বাসভবনে যান এনসিপি প্রধান শারদ পওয়ার এবং সাংসদ সুপ্রিয়া সুলে। সূত্রের খবর, বিশাল রাজনৈতিক সংকট থেকে বেরিয়ে আসার উপায় হিসাবে বিদ্রোহী একনাথের হাতেই মুখ্যমন্ত্রিত্ব তুলে দেওয়ার পরামর্শ দেন পওয়ার। যাতে সায় রয়েছে কংগ্রেসেরও।

তবে এনসিপি এবং কংগ্রেসের এই পরামর্শের পর পরই একনাথ জানিয়ে দেন, শিবসেনাকে টিকিয়ে রাখতে হলে অবিলম্বে এনসিপি এবং কংগ্রেসের সঙ্গে তৈরি “অপ্রাকৃতিক জোট” থেকে বেরিয়ে আসা জরুরি।

আরও পড়তে পারেন:

দিদি বললেই কাজে যোগ দেবেন শোভন, নবান্নে মমতার সঙ্গে সাক্ষাতের পর মন্তব্য বৈশাখীর

মুদ্রাস্ফীতির গতিপথ পরিবর্তনে জোর দিচ্ছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, তা হলে কি আবার বাড়বে সুদের হার

অসুস্থতা কাটেনি, ইডির কাছে আপাতত হাজিরা থেকে অব্যাহতি চাইলেন সনিয়া গান্ধী

ইস্তফাপত্র তৈরি, বিধায়ক-বিদ্রোহের আবহে স্পষ্ট বার্তা উদ্ধব ঠাকরের

এসএসসিতে তদন্তে ইডি-ও, আরও অস্বস্তিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন