Connect with us

দেশ

ওমর আবদুল্লাকে দেখে চিনতে না পারায় ব্যথিত মমতা, ক্ষোভ প্রকাশ ইয়েচুরির

Omar Abdullah

ওয়েবডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লার সাম্প্রতিক ছবি দেখে তাঁকে চিনতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ ভরতি দাড়ি আর তাঁর ভেঙে পড়া স্বাস্থ্য দেখে কষ্টপ্রকাশ করে ফেললেন মমতা।

জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের সময় থেকেই গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছেন আবদুল্লা। ওই সময়েই একাধিক নেতানেত্রীকে আটক করা হয়। তার পর থেকে তাঁকে আর কোনো ভাবেই প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। মমতা এ দিন সন্ধ্যায় একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করে জানান, ওমরের এই অবস্থার জন্য তাঁর ভীষণ খারাপ লাগছে।

মমতা টুইটারে ওই ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, “এই ছবিতে আমি ওমরকে চিনতেই পারিনি। খুবই খারাপ লাগছে। খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে, আমাদের গণতান্ত্রিক দেশে এমনটা ঘটছে। কবে থামবে”?

গত আগস্টে অনুচ্ছেদ ৩৭০ রদের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করা নিয়ে তীব্র বিরোধিতা করেন মমতা। তিনি দাবি করেছিলেন, এ ব্যাপারে সমস্ত রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করা উচিত ছিল। যে কারণে সংসদে বিলটিকে সমর্থনও জানায়নি তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস।

এমনকী গণতন্ত্রের স্বার্থে জম্মু ও কাশ্মীরের আটক নেতানেত্রীদের মুক্তির দাবিও তুলেছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: এই প্রথম কাশ্মীর সমস্যায় ‘মধ্যস্থতা’র প্রস্তাব দিল দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশ!

ওমরের এই শুষ্ক-রূক্ষ্ম মুখের ছবি দেখে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন, সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরিও। তিনি জানিয়েছেন, এই ছবি কেন্দ্রীয় সরকারের বিভ্রান্তিকর নীতির পরিচয় দিচ্ছে। একজন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে কোনো অভিযোগ ছাড়াই মাসের পর মাস ধরে আটক করে রাখা হয়েছে।

দেশ

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সিলেবাস কমাল সিবিএসই

তিরিশ শতাংশ সিলেবাস কমানো হয়েছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছে সিবিএসই।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ। অনলাইনে ক্লাস চললেও, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বসবাসকারী পড়ুয়ারা সেই সুযোগ নিতে পারছে না অনেক ক্ষেত্রেই। ফলে একটা অলিখিত বৈষম্য তৈরি হচ্ছে।

আগামী বছর পরীক্ষায় বসার সময়ে কারও যাতে সমস্যা না হয়, সে কারণে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সিলেবাস কমানোর সিদ্ধান্ত নিল সিবিএসই।

তিরিশ শতাংশ সিলেবাস কমানো হয়েছে বলে মঙ্গলবার জানিয়েছে সিবিএসই। কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল এ দিন বলেন, “এমন একটা পরিস্থিতি এখন, যেখানে গোটা বিশ্ব ভুগছে করোনাভাইরাসে। এই পরিস্থিতিতে ছাত্রছাত্রীদের উপর থেকেও বোঝা কমাতে নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সিলেবাস কমিয়ে দেওয়া হল।”

তবে মূল সিলেবাসের বিষয়গুলি কোনো ভাবেই বাতিল করা হবে না বলে জানিয়েছেন পোখরিয়াল।

উল্লেখ্য, সিবিএসইর দশম আর দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষা ১ থেকে ১৫ জুলাই পর্যন্ত নেওয়া কথা বলা হলেও পরবর্তীকালে তা বাতিল হয়ে যায়।

দ্বাদশ শ্রেণির ক্ষেত্রে বলা হয়েছে, শেষ তিনটে পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হবে। তবে যাঁরা পরীক্ষা দিতে চাইবে, পরিস্থিতি অনুকূল হলে, সেই সুযোগ দেওয়া হবে বলেও জানায় সিবিএসই।

Continue Reading

দেশ

বাতিল বিমান টিকিটের ‘সম্পূর্ণ টাকা’ কেন ফেরানো হবে না, কেন্দ্রকে নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের

মঙ্গলবার কেন্দ্র এবং ডিজিসিএ-কে নোটিশ পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট

নয়াদিল্লি: কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) জেরে বাতিল হওয়া উড়ানের টিকিটের সম্পূর্ণ টাকা যাত্রীদের কেন ফেরানো হবে, এমন প্রশ্নেই মঙ্গলবার কেন্দ্র এবং ডিজিসিএ-কে নোটিশ পাঠাল সুপ্রিম কোর্ট।

এ দিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক ভূষণের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ অ-সামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রক (Ministry of Civil Aviation) এবং ডিরেক্টরেট জেনারেল অব সিভিল অ্যাভিয়েশন (DGCA)-এর কাছে জানতে চায়, যাত্রীরা কেন টিকিটের সম্পূর্ণ টাকা ফেরত না পাওয়ার অভিযোগ তুলছেন?

এ বিষয়ে শীর্ষ আদালতে আবেদন দাখিল করে এয়ার প্যাসেঞ্জার অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়া। তাদের দাবি, বিমান সংস্থাগুলি বিধিবহির্ভূত ভাবে নিজেদের ইচ্ছে মতো টাকা ফেরানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বলা হয়েছে, নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যে পুনরায় উড়ানে যাত্রা করলে নতুন করে টাকা দিতে হবে না। এর জন্য এক বছরের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে প্রায় প্রত্যেকটি সংস্থার তরফে।

শীর্ষ আদালতের আরও দুই বিচারপতি এসকে কউল এবং এমআর শাহের সম্মিলত বেঞ্চ এ দিন এ বিষয়ে নোটিশ জারির নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে জানানো হয়, ঠিক একই ধরনের বকেয়া আবেদনের শুনানিও চলবে এই আবেদনটির সঙ্গে।

কী কারণে মামলা সুপ্রিম কোর্টে?

করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ মোকাবিলায় লকডাউনের জেরে বাতিল হয়েছিল সমস্ত রকমের বিমানের টিকিট। এমন পরিস্থিতিতে বিমান সংস্থাগুলি জানিয়ে দিয়েছে, টিকিটের দাম ফেরত দেওয়া হবে না। ভবিষ্যতে ভ্রমণ করতে চাইলে যাত্রীরা রি-শিডিউলের সুবিধা পাবেন। কিন্তু তা মানতে নারাজ যাত্রীরা। বিষয়টিতে অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রকের হস্তক্ষেপের পরেও যাত্রীমহলে অভিযোগের অন্ত নেই।

লকডাউনের জেরে বিমান পরিবহণ বন্ধ হওয়ার পর টিকিট বাতিল হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় যাত্রীরা অভিযোগ করছেন, ঘরোয়া বিমান সংস্থাগুলি টিকিটের দাম ফেরত না দেওয়ার ‘অনৈতিক’ সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিচ্ছে। নগদ টাকা ফেরত না দিয়ে তারা ক্রেডিট ইস্যুর মাধ্যমে রি-শিডিউলের কথা বলছে।

যেখানে বিমান সংস্থাগুলি জানিয়েছে, ঘরোয়া টিকিটের জন্য লকডাউনের সময় নগদ টাকা ফেরত দেওয়া হবে না। তবে যাত্রীরা টিকিটেক রি-শিডিউল করতে পারেন। সে ক্ষেত্রে তাঁরা বাড়তি সুবিধা পাবেন। তাঁদের কাছ থেকে কোনো বাড়তি টাকা নেওয়া হবে না।

মন্ত্রকের হস্তক্ষেপ

গত ১৬ এপ্রিল বিকেল একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রক জানিয়ে দেয়, বিমানের টিকিট বুকিংয়ের সমস্ত টাকা ফেরত দিতে হবে সংস্থাগুলিকে। ২৫ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বুকিং থাকলে, সেই টাকা বাতিল করার আবেদন জানানোর তিন সপ্তাহের মধ্যে ফেরত দিতে হবে। এর জন্য কোনো রকমের চার্জ কাটা যাবে না।

তবে গত ২৫ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত প্রথমার্ধের লকডাউনের সময়কালে কাটা টিকিটের দাম ফেরতের কথা বলা হলেও দ্বিতীয়ার্ধ নিয়ে কোনো নির্দেশ দেওয়া হয়নি। অর্থাৎ, ১৫ এপ্রিল থেকে ৩ মে-র মধ্যে ভ্রমণের জন্য যাঁরা টিকিট কেটেছিলেন, এ বিষয়ে তাঁদের আক্ষেপ রয়েই গিয়েছে। সঙ্গে রয়েছে বিমান সংস্থাগুলির টাকা ফেরানোর নিজস্ব পদ্ধতি নিয়েও বিতর্ক।

আবেদনে বলা হয়েছে, মন্ত্রক এবং ডিজিসিএ-র নির্দেশের পরেও বিমান সংস্থাগুলি বাতিল টিকিটের টাকা ফেরাতে ব্যর্থ হয়েছে।

Continue Reading

দেশ

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কয়েনের উলটো পিঠও রয়েছে। ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা যে গতিতে বাড়ছে, কতকটা একই রকম গতিতে বাড়ছে সুস্থতাও। পরিসংখ্যান বলছে, গত এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত হয়েছেন লক্ষাধিক মানুষ।

গত সপ্তাহের মঙ্গলবার অর্থাৎ ৩০ জুন ভারতে করোনা (Coronavirus) থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন ৩ লক্ষ ৩৪ হাজার ৮২২ জন। আজ মঙ্গলবার, অর্থাৎ ৭ জুলাইয়ের পরিসংখ্যান জানাচ্ছে ভারতে করোনামুক্তির সংখ্যাটা এখন রয়েছে ৪ লক্ষ ৩৯ হাজার ৯৪৮-এ।

অর্থাৎ গত এক সপ্তাহে ভারতে করোনামুক্তি ঘটেছে ১ লক্ষ পাঁচ হাজার ১২৬ জনের। একই ভাবে বেড়েছে সুস্থতার হারও। ৩০ জুন ভারতে সুস্থতার হার ছিল ৫৯.১০ শতাংশ। ৭ জুলাই তা কিছুটা বেড়ে হয়েছে ৬১.১৩ শতাংশ।

এই এক সপ্তাহে মৃত্যুহারও ২.৯৮ শতাংশ থেকে কমে ২.৮০ শতাংশ হয়েছে।

সুস্থতায় তুলনামূলক ভাবে অনেক এগিয়ে দিল্লি

গত এক সপ্তাহে সুস্থতার নিরিখে তুলনামূলক ভাবে অনেক এগিয়ে রয়েছে দিল্লি (Delhi)। রাজধানীতে এই এক সপ্তাহে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫,৭৭৩ জন। ফলে সুস্থতার হার ৬৬.০৩ শতাংশ থেকে বেড়ে হয়েছে ৭১.৪৯ শতাংশ।

সংখ্যায় তামিলনাড়ুতে (Tamil Nadu) সুস্থতা অনেক বেশি। কিন্তু শতাংশের হিসেবে তা অন্য রাজের থেকে কম। এই এক সপ্তাহে দক্ষিণের এই রাজ্যে সুস্থ হয়েছেন ১৮,৮২২ জন। ফলে সুস্থতার হার ৫৫ শতাংশ থেকে বেড়ে ৫৭.৮৯ শতাংশ হয়েছে।

আবার সুস্থতায় অন্য অনেক রাজ্যের থেকে পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal) এগিয়ে থাকলেও, গত কয়েক দিনে আক্রান্তের সংখ্যায় বড়ো রকমের বৃদ্ধি আসার ফলে সুস্থতার হার খুব একটা বাড়েনি। ৬৫.৪৪ শতাংশ থেকে বেড়ে ৬৬.২৭ শতাংশ হয়েছে।

তবে একটা ব্যাপারে নিশ্চিত। ভারতে কিন্তু কোভিডমুক্তি খুব দ্রুত হচ্ছে। এই ভাবে এগোতে থাকলে হয়তো আগামী দু’ মাসের মধ্যেই দেশের করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণের মধ্যে এসে যাবে।

Continue Reading
Advertisement
রাজ্য1 hour ago

বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে রাজ্যের কনটেনমেন্ট জোনগুলিতে কড়া লকডাউন

কেনাকাটা2 hours ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

দেশ2 hours ago

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত সিলেবাস কমাল সিবিএসই

দেশ2 hours ago

বাতিল বিমান টিকিটের ‘সম্পূর্ণ টাকা’ কেন ফেরানো হবে না, কেন্দ্রকে নোটিশ সুপ্রিম কোর্টের

দেশ2 hours ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

শিল্প-বাণিজ্য3 hours ago

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাঙ্কিংয়ে ১০ লক্ষ ব্যবহারকারী সংগ্রহ করল আইসিআইসিআই ব্যাঙ্ক

দেশ3 hours ago

এ বার কোভিডকে জয় করলেন ৯৬ বছরের বৃদ্ধা

বিদেশ3 hours ago

অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 hours ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা1 day ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা2 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা7 days ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে