তারকেশ্বর থেকে খাসজঙ্গলে মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের শিলান্যাস করলেন মুখ্যমন্ত্রী

0

সমীর মাহাত, ঝাড়গ্রাম: তারকেশ্বর থেকেই শুক্রবার ঝাড়গ্রামের নুননুনগেড়িয়ার খাসজঙ্গলে মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের শিলান্যাস করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়। তবে এই উপলক্ষে বিদ্যাসাগর পল্লীতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। অনুষ্ঠানে পর্দায় মুখ্যমন্ত্রীর শিলান্যাস লাইভ দেখানো হয়।

অনুষ্ঠানে এ দিন পার্থবাবু জেলাশাসকের উদ্যেশ্যে বলেন, “রাজনৈতিক দল তো তাদের কাজ করবে, এত সব প্রকল্পের সুবিধা সেই সব মানুষের কাছে পৌঁছয় না। মানুষ জানতে পারে না।আবেদন করতে পারে না। অনেকে তার মাঝে ভালো সাজার নাম করে তাদের ঠকায়। জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে অভিযোগ পেলে সমাধান করুন।”

বিদ্যাসাগর পল্লীতে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়

বক্তব্যের শেষের দিকে, তিনি আরও বলেন, “আমাদের মধ্যে বিভেদ করা চলবে না। এক দেশ গড়তে হবে। সুযোগ বুঝে যারা পিছন থেকে গুজব ছড়িয়ে অশান্তি, ঘরে ঘরে দাঙ্গা বাঁধিয়ে রক্তপাত করতে চাইছে, তাদের থে‌কে দূরে থাকতে হবে”। এরই পাশাপাশি, এ দিন ঝাড়গ্রাম কেন্দ্রীয় পোস্ট অফিসে স্থানীয়দের জন্য চালু হল, পাসপোর্ট প্রদান পরিষেবা। এখন এই পরিষেবা পেতে আর কাউকেই কলকাতা যেতে হবে না। অনলাইনে আবেদনের পর সব কিছু যাচাই হলে, ডাক মাধ্যমে বাড়িতে পৌঁছে যাবে পাসপোর্ট।

[ আরও পড়ুন: গুজব রটানো নিয়ে গেরুয়া শিবিরের দিকেই আঙুল তুললেন মুখ্যমন্ত্রী ]

এ দিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ঝাড়গ্রামের সাংসদ ডা. উমা সোরেন, বিধানসভার ডেপুটি স্পিকার সুকুমার হাঁসদা, বিভাগীয় শীর্ষ আধিকারিক রিজিওনাল পাসপোর্ট অফিসার বিভূতিভূষণ কুমার ও দক্ষিণ- পূর্ব শাখার পোস্ট মাস্টার জেনারেল সঞ্জীব রঞ্জন। এ দিন তাঁরা বলেন, আবেদন করলে এখানে হাতের ছাপ, ছবি ও প্রয়োজনীয় নথিপত্র নিয়ে কলকাতায় পাঠিয়ে দেওয়া হবে। পুলিশ ভেরিফিকেশনের পর, পাঠিয়ে দেওয়া হবে। এ দিন চারজনকে অনুষ্ঠানেই পাসপোর্টের অ্যাকনলেজম্যান্ট হাতে তুলে দেওয়া হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.