তাঞ্জাভুর (তামিলনাড়ু): আপনি সকালে ঘুম থেকে উঠলেন, হাত মুখ ধুয়ে বাড়ির সদর দরজা খুললেন, এবং খুলে দেখলেন সামনে একটি বড়ো কুমির শুয়ে রয়েছে। কেমন অনুভূতি হবে আপনার?

ঠিক তেমনই অনুভূতি হয়েছিল তাঞ্জাভুরের ভাদুগাগুদি নিবাসী ভিনসেন্টের। ঘুম থেকে উঠে বাড়ির দরজা খুলেই তিনি দেখেন এক সুবিশাল কুমির। দেখেই তো তাঁর চক্ষু চড়কগাছ! গ্রামের পাশ দিয়েই বয়ে গিয়েছে কোলিডাম নদী। স্থানীয় বাসিন্দাদের মতে, ওই নদীতে কুমির দেখা এমন কোনো অস্বাভাবিক ঘটনা নয়, কিন্তু গৃহস্থবাড়ির সামনে এ রকম ভাবে কুমির শুয়ে থাকা আগে কখনও কেউ দেখেনি।

এই ঘটনার পরেই ভিনসেন্ট স্থানীয় দমকল বিভাগকে খবর দেন। দমকল কর্মীরা এসে স্থানীয় বাসিন্দাদের সাহায্যে কুমিরটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। খবর দেওয়া হয় বন বিভাগের আধিকারিকদেরও। বন বিভাগের কর্মীরা কুমিরটিকে ত্রিচির কাছে কাবেরী নদীতে ছেড়ে দেয়।

বন বিভাগের মতে, কোলিডাম নদীতে অনেক কুমির আছে। নদীতে সাধারণত জল থাকে, কিন্তু এ বছর এই নদী একেবারে শুকিয়ে গিয়েছে। এর ফলে জলের সন্ধানে কুমিরটি গ্রামের মধ্যে চলে আসতে পারে বলে মত বনকর্মীদের। গ্রামবাসীদের সতর্ক ভাবে চলাচল করার নির্দেশ দিয়েছেন কর্মীরা।