ভদ্রক: এ যেন উলটপুরাণ। যে দেশে পুত্রসন্তান চেয়ে কন্যাসন্তানকে হত্যা করা প্রায় রোজকার ঘটনা, সে দেশেই মেয়েকে উপহার দেওয়ার জন্য ছেলেকেই বিক্রি করে দিল বাবা। ঘটনাটি ঘটেছে ভদ্রকে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশের মতে ২৩,০০০ টাকায় ষাটোর্ধ এক দম্পতির কাছে নিজের এগারো মাসের সন্তানকে বিক্রি করে দেন বলরাম মুখি। প্রাপ্ত টাকার মধ্যে দেড় হাজার টাকা খরচ করে নিজের সাত বছরের মেয়ের জন্য পায়ের নূপুর এবং দু’হাজার টাকা দিয়ে নিজের জন্য একটি মোবাইল কেনে বলরাম। বাকি টাকা দিয়ে মদ কেনে সে।

ভদ্রকের পুলিশ সুপার অনুপ সাহু জানিয়েছেন, কোনো স্থায়ী রোজগার না থাকায় পয়সা উপার্জনের জন্য এই পথ বেছেছেন বলরাম। তাঁর কথায়, “ঝাড়ুদার হিসেবে কাজ করে বলরাম। নিজের শালা বালিয়া এবং এক অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীকে সঙ্গে নিয়ে ছেলেকে বিক্রি করার পরিকল্পনা করে সে।”

ছেলেকে কিনেছেন অবসরপ্রাপ্ত রাজ্য সরকারি কর্মী সোমনাথ শেঠি। ২০১২-তে সন্তানহারা হন শেঠি দম্পতি। ভদ্রক টাউন থানার এক ইন্সপেক্টরের মতে, “ছেলের মৃত্যুর পর থেকেই অবসাদে ভুগছিলেন সোমনাথবাবুর স্ত্রী। সেই অবসাদ থেকে মুক্তি দেওয়া জন্যই এই ছেলেটিকে কিনে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা।” এই দম্পতিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here