manipur

ইম্ফল: কিছু দিন আগেই সংবাদপত্রের স্বাধীনতার ব্যাপারে ঘটা করে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু তাঁর বক্তৃতা যে দলের অনেক কর্মীই শোনেনি, সেটা প্রমাণ হল মণিপুরে। শনিবারই রাজ্যের সংবাদপত্র ‘পোক্‌নফম’-এর প্রচুর কপি পুড়িয়েছিল বিজেপির যুবমোর্চা। এর প্রতিবাদে সোমবার নিজেদের সম্পাদকীয় অংশ ফাঁকা রাখল রাজ্যের সব ক’টি সংবাদপত্রই।

পোক্‌নফমে প্রকাশিত সাপ্তাহিক কলমে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ‘গরু চোর’ আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। সেই সঙ্গে বলা হয়েছিল রাজ্যের বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিংহের উচিত চুরি যাওয়া গরুটিকে উদ্ধার করে আনা। এতেই ক্ষেপে যায় বিজেপি। শনিবার পথে নেমে প্রতিবাদের পাশাপাশি রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় সংবাদপত্রটির কপি পড়ানো হয়। মূলত রাজনৈতিক কৌতুক বিষয়ক লেখাই ঠাঁই পায় ওই কলমে।

বিজেপি যুবমোর্চার এ হেন কাণ্ডকারখানার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়েছে রাজ্যের সাংবাদিকদের সব ক’টি সংগঠন। এ দিন সমস্ত সংবাদপত্রের সম্পাদকীয় অংশটি ফাঁকা রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মণিপুর এডিটর্স গিল্ড। গিল্ডের সভাপতি এ মোবি বলেন, “এ রকম ভাবে সংবাদপত্র পড়ানোর মানে সংবাদপত্রের স্বাধীনতার ওপরে হস্তক্ষেপ করা।” তাঁর কথায়, “কারও যদি ওই সংবাদপত্রে প্রকাশিত কোনো খবরের ব্যাপারে সমস্যা থাকে তা হলে সে আদালতে যেতে পারে, ভারতের প্রেস কাউন্সিলে যেতে পারে, আমাদের কাছে আসতে পারে। কিন্তু যে ভাবে কাগজ পোড়ানো হয়েছে, সেটা কোনো ভাবেই ক্ষমতাসীন দলের থেকে আশা করা যায় না।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here