নয়াদিল্লি : শনিবার দিল্লির মেহরৌলিতে এক ব্যক্তির তিন টুকরো দেহ উদ্ধার হল তার বন্ধুর ফ্ল্যাটের ফ্রিজ থেকে। ওই ব্যক্তি পাঁচ দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি মাংস কাটার চপার উদ্ধার করেছে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছে মৃতের নাম বিপিন চাঁদ জোশী। গত ৯ অক্টোবর থেকে নিখোঁজ ছিল সে। তার বন্ধু বাদল মণ্ডল ওই একই সময় থেকে নিখোঁজ ছিল। তারই বাড়ি থেকে বিপিনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে। ৭ বছর ধরে দক্ষিণ দিল্লির একটি বারে বারটেন্ডারের কাজ করত বিপিন চাঁদ জোশী ও পুরুলিয়ার বাসিন্দা বাদল মণ্ডল।

কী ভাবে মিলল দেহ

বিপিনের কোনো খোঁজ না মেলায় ১২ অক্টোবর থানা যান বিপিনের ভাই এবং তিনি একটি নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার দাদার খোঁজে বাদল মণ্ডলের সাইদুলাজাবের ফ্ল্যাটে যান তাঁর ভাই। দেখেন বাইরে থেকে তালা দেওয়া। ঘরের ভেরত থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল। তিনি সঙ্গে সঙ্গে পুলিশকে বিষয়টি জানান। পুলিশ ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখে ঘরের মধ্যে চাপ চাপ রক্ত।

ঘরের ফ্রিজ অর্ধেক খোলা। সেই ফ্রিজ থেকেই বের হচ্ছে বিকট গন্ধ। ফ্রিজ খুলেতেই মেলে পুলিশ কালো প্লাস্টিকের মধ্যে মোড়া বিপিনের তিন টুকরো দেহ। দেহটি যে বিপিনেরই তা সনাক্ত করেছে তার পরিবার।

আর পড়ুন : কম নম্বর দেওয়ায় হরিয়ানায় শিক্ষককে কোপাল ছাত্র, ভিডিও 

পুলিশ জানিয়েছে, গত ৯ অক্টোবর দুজনেই বারে কাজের শেষে একসঙ্গে বেরিয়ে ছিল। তারপর থেকে থেকে দুজনের আর কোনো খোঁজ ছিল না। এক সূত্রের দাবি, বাদলের বাড়ির কাছে দুজনকে একসঙ্গে শেষবার দেখা গিয়েছিল। পুলিশ জানিয়েছে, নিখোঁজ বাদল তার স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে ওই ফ্ল্যাটে থাকতেন। তবে সম্প্রতি তাঁদের পুরুলিয়ায় পাঠিয়ে দেন বাদল।

অতিরিক্ত ডিপিসি (দক্ষিণ) চিন্ম বিসওয়াল জানিয়েছেন, ‘‘ এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বাদল মণ্ডল। তার খোঁজে পুরুলিয়ার একটি পুলিশের দল পাঠানো হয়েছে।’’

ছবি: সৌজন্যে এবিপি নিউজ

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here