করোনার টিকা নেওয়ার পর অসুস্থ হলে দায় নেবে না কেন্দ্র

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনা টিকা নেওয়ার পর যে কোনো ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হলে তার দায় নেবে না কেন্দ্রীয় সরকার। টিকাকরণ প্রক্রিয়ায় এ ধরনের ঘটনার জন্য দায়বদ্ধ থাকবে ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি। তাদের কাছ থেকে টিকা কেনার চুক্তিতে স্পষ্ট ভাবে সরকারের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সমস্ত রকমের প্রতিকূলতার জন্য দায়বদ্ধ থাকবে সংস্থাগুলিই।

সংস্থাগুলি অবশ্য টিকাকরণের পর কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছিল, কিন্তু মেনে নেওয়া হয়নি। সরকারি পারচেজ অর্ডারে পরিষ্কার ভাবে লিখে দেওয়া হয়েছে.
“সিডিএসসিও / ড্রাগস অ্যান্ড কসমেটিকস অ্যাক্ট / ডিসিজিআই নীতি / অনুমোদন অনুসারে সমস্ত প্রতিক্রিয়ার জন্য সংস্থা দায়বদ্ধ থাকবে”।

Shyamsundar

উল্লেখযোগ্য ভাবে, আমেরিকা, ব্রিটেন, কানাডা, আরব আমিরশাহির মতো দেশগুলি এ ধরনের দায়বদ্ধতা নিজেদের কাঁধে নিয়েছে। অন্যদিকে কোভ্যাক্সের অন্তর্গত দেশগুলিতে ক্ষতিপূরণের দায় তুলে নিয়েছে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা।

কিন্তু ভারত সেই দায় সম্পূর্ণ ভাবেই ঝেড়ে ফেলেছে। টিকা নিয়ে কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে তার দায় নেবে না কেন্দ্রীয় সরকার। ভ্যাকসিন নিয়েই সমস্যা হয়েছে প্রমাণ হলে, চিকিৎসার যাবতীয় খরচ এবং ক্ষতিপূরণ সংশ্লিষ্ট প্রস্তুতকারক সংস্থাকেই দিতে হবে।

আপাতত দু’টি ভ্যাকসিন অনুমোদন পেয়েছে। সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড এবং ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিনকে জরুরি ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে সরকার-ই। শুধু তাই নয়, সরকার ভ্যাকসিনগুলির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় উপর নজরদারিও চালাচ্ছে। অথচ অসুস্থতার দায় নিচ্ছে না কেন্দ্র।

তবে ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে উঠে আসা যাবতীয় প্রশ্ন উড়িয়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধন। টি ডি ডোগরা-সহ দেশের ৪৯ জন বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং গবেষকও বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, দু’টি ভ্যাকসিনই নিরাপদ।

আরও পড়তে পারেন: দরিদ্র দেশগুলির জন্য কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিমা প্রকল্পের পরিকল্পনা ‘হু’-র

এ ব্যাপারে আইসিএমআরের একটি সূত্রে খবর, টিকাকরণ কর্মসূচিতে কারও মারাত্মক তথা অস্বাভাবিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হলে তার ক্ষতিপূরণ তথা আইনি বিষয়টি সরকারকে দায়িত্ব নেওয়া জন্য দুই কোম্পানির পক্ষ থেকেই আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু সরকার তা নাকচ করে দিয়েছে। যদিও আদৌ টিকা থেকেই ব্যাপক শারীরিক সমস্যা হল কি না, তা বিচার-বিশ্লেষণ করবে সাইট এথিক্স কমিটি, ডিসিজিআই এবং ডিএসএমবি। তার পর ক্ষতিপূরণ ইস্যুর প্রশ্ন উঠবে।

প্রসঙ্গত, আগামী শনিবার প্রথম দিনে প্রায় তিন লক্ষ মানুষকে টিকা দেওয়া হবে। দেশের ৩,০০৬টি কেন্দ্র থেকে চলবে টিকাকরণ। এই কর্মসূচিতে করণীয় এবং এড়িয়ে চলার বিষয় সম্বলিত একটি নির্দেশিকা পাঠানো হয় রাজ্য সরকারগুলিকে।

আরও পড়তে পারেন: করোনা টিকাকরণের দু’দিন আগে রাজ্যগুলিকে বিশেষ নির্দেশিকা কেন্দ্রের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন