ওয়েবডেস্ক: দিল্লি সংলগ্ন এনসিআর-এর আওতায় পড়া গুরুগ্রামের এক আবাসন প্রকল্প। ২০১৬ তে সে প্রকল্প শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এখনও তা শুরুই হয়নি। আবাসনের পাশাপাশি ‘ব্যালে বাই শারাপোভা’ নামের  একটি টেনিস অ্যাকাডেমি তৈরির কথাও ঘোষণা করেছিলেন আবাসন প্রস্তুতকারক সংস্থার মালিকরা। নিয়মিত তার বিজ্ঞাপনে দেখা যেত রুশ টেনিস সুন্দরীর মুখ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আবাসন হাতে না পাওয়ায় সম্প্রতি সংস্থার মালিক এবং শারাপোভার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে আদালতের শরণাপন্ন হয়েছেন গুরুগ্রামবাসী এক ক্রেতা।

দিল্লির মুখ্য মহানগর হাকিম রাজেশ মালিকের এজলাসে দায়ের করা মামলায় ভাবনা আগরওয়াল অভিযোগ করেছেন, মারিয়া শারাপোভার নাম করে আবাসন নির্মাতা অভিযোগকারীসহ দেড় হাজার প্রতারণা করেছেন। শারাপোভা এই প্রকল্পের জন্য প্রচার চালিয়েছেন এবং সম্ভাব্য ক্রেতাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য শারাপোভা ২০১৩ সালে একাধিকবার ভারতেও এসেছিলেন। অতএব আবাসন নির্মাতাদের মতো টেনিস সুন্দরী নিজেও প্রতারণার অংশ বলে দাবি করেছেন ভাবনা, যিনি ইতিমধ্যে ৫৩ লক্ষেরও সামান্য কিছু বেশি টাকা খরচ করেছিলেন প্রকল্পের পেছনে।

আদালতে বিচারপতি জানিয়েছেন, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের কাছে আবাসন নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় অনুমোদন না থাকা অবস্থায় নির্মাণের কাজ চালানো ফৌজদারি অপরাধ। সংশ্লিষ্ট পুলিশ প্রশাসনের কাছে এফআইআর করে ঘটনার পূর্ণ তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের পক্ষ থেকে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here