30 C
Kolkata
Friday, June 18, 2021

৫ বছরের কম বয়সি শিশুরা কি মাস্ক পরবে? নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের

আরও পড়ুন

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস (Coronavirus) সংক্রমণ প্রতিরোধে বড়োদের জন্য মাস্ক পরা অবশ্যপালনীয় হলেও পাঁচ বছরের কম বয়সি শিশুদের জন্য তা বাঞ্ছনীয় নয়। এমনটাই জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের অধীনস্থ ডাইরেক্টরেট জেনারেল অব হেলথ সার্ভিসেস (DGHS)।

কোভিড মহামারির (Covid Pandemic) আবহে ১৮ বছরের কম বয়সের বাচ্চাদের যত্ন নেওয়ার ব্যাপারে সম্প্রতি এক গুচ্ছ পরামর্শ দিয়েছে ডিজিএইচএস। সংস্থার পরামর্শ উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা এএনআই জানিয়েছে,পাঁচ বছরের কম বয়সি শিশুদের মাস্ক পরানোর প্রয়োজন নেই। ৬-১১ বছর বয়সি শিশুরা মাস্ক পরতে পারে, তবে তা শুধু চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে বাবা-মা অথবা অভিভাবকের তত্ত্বাবধানে।

Loading videos...

উপসর্গহীন ও হালকা উপসর্গের শিশুদের জন্য

- Advertisement -

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা কোভিডের তৃতীয় ঢেউ যদি আসে, তা হলে তাতে শিশুরাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। এমন আশঙ্কার মধ্যেই ডিজিএইচএস এই সংশোধিত নির্দেশিকা প্রকাশ করল। নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, উপসর্গহীন ও হালকা উপসর্গের ক্ষেত্রে স্টেরয়েডের প্রয়োগ ক্ষতিকারক। ফলে এ ধরনের সংক্রমিত শিশুদের জন্য ঠান্ডা লাগা ও জ্বরের ক্ষেত্রে যে সমস্ত ওষুধগুলো খেতে হয়, সেগুলো ছাড়া অন্য কোনো ওষুধ দেওয়া যাবে না। শুধুমাত্র মাঝারি গুরুতর এবং গুরুতর অসুস্থ কোভিডরোগী হাসপাতালে ভরতি হলে স্টেরয়েড দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

ডিজিএইচএস নির্দেশিকায় বলেছে, হালকা সংক্রমণের ক্ষেত্রে জ্বর থাকলে ১০-১৫ এমজি/কেজি/ডোজ হিসেবে দেওয়া যেতে পারে। আবার কিশোর-কিশোরীদের কাশির জন্য গরম জলে গারগলের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মাঝারি সংক্রমণের ক্ষেত্রে অবিলম্বে অক্সিজেন থেরাপি শুরু করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মাঝারি অসুস্থতায় আক্রান্ত সব শিশুর কর্টিকোস্টেরয়েডের প্রয়োজন হয় না। এগুলি দ্রুত বেড়ে যাওয়া রোগের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হতে পারে।

অবস্থা গুরুতর হলে

পাশাপাশি, কোভিড আক্রান্ত শিশুর অবস্থা গুরুতর হলে যদি অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ডিসট্রেস সিন্ড্রোম (ARDS) দেখা দেয়, তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা শুরু করা উচিত। অতিরিক্ত জীবাণু সংক্রমণের দৃঢ় প্রমাণ অথবা সন্দেহ থাকলে অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল পরিচালনা করতে হবে। কোনো অঙ্গ যদি কাজ করতে অক্ষম হয়ে পড়ে, সে ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে তা সচল রাখতে হবে। তেমন সময় রেনাল রিপ্লেসমেন্ট থেরাপির মতো কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে হবে।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে বলা হয়েছে, কোভিডে আক্রান্ত শিশুদের ক্ষেত্রে কোনো মতেই  রেমডেসিভির (Remdesivir) ব্যবহার করা যাবে না। এর মূল কারণ কী? বিস্তারিত পড়ুন এখানে: ছয় মিনিটের হাঁটা, রেমডেসিভির একদমই না, শিশুদের জন্য কোভিড-নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisement -

আপডেট

মাইথন, পাঞ্চেত থেকে জল ছাড়া শুরু করল ডিভিসি

ঘাটাল, আসানসোলে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

পড়তে পারেন