kolkata fire

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মধ্য কলকাতার গণেশচন্দ্র অ্যাভিনিয়ের বহুতলে বিধ্বংসী আগুনে মৃত্যু হল দু’ জনের। মৃতদের মধ্যে এক বৃদ্ধা ও ১২ বছরের এক কিশোর রয়েছেন।

শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ হঠাৎ করেই আগুন লেগে যায় ৮-তলা ওই বহুতলে। বাসিন্দাদের দাবি, একতলার মিটার বক্স থেকে আগুন ছড়ায়। প্রথমে বাসিন্দারাই সেই আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু দ্রুত সেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে বহুতলের বিভিন্ন জায়গায়। আতঙ্কে হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে যায় বাসিন্দাদের মধ্যে। 

দমকলে খবর দেওয়া হলে প্রাথমিক ভাবে ৬টি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছোয়। পরে আরও ইঞ্জিন যায় ঘটনাস্থলে। তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ততক্ষণে গোটা বাড়ি ঘন কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। শ্বাসকষ্ট শুরু হয়ে যায় বাসিন্দাদের।

এরই মধ্যে আতঙ্কে এক কিশোর ওপর থেকে নীচে পড়ে যায় বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের। তাকে এলাকার বাসিন্দারাই মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালেই মৃত্যু হয় ওই কিশোরের। পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হাইড্রোলিক ল্যাডার নিয়ে আসে দমকল। কলকাতা পুলিশের বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সদস্যরা দমকলকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সেই ল্যাডারে করে উদ্ধার করেন অধিকাংশ  বাসিন্দাকে।

পুলিশ জানিয়েছে, ছ’ তলা বাড়িটিতে ৫০-৬০ জন আবাসিক থাকেন। কিছু অফিসও রয়েছে। আগুন লাগার পরে ওই আবাসিকেরা বহুতলের ছাদে উঠে আটকে পড়েন। দমকলকর্মীরা তখন ওই বাড়িটির পাশের একটি বহুতলে উঠে মই দিয়ে তাঁদের উদ্ধারের কাজ শুরু করেন।

এ দিকে মৃত বৃদ্ধার পরিচয় জানা যায়নি। বহুতলে আগুন ছড়িয়ে পড়ার সময়ে ওই বৃদ্ধা নিজের ঘরের শৌচাগারের ভিতরে আটকে পড়েছিলেন। রাতেই তাঁর দেহ উদ্ধার হয়।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

দর্জিপাড়া দাঁ বাড়িতে দশমীতে দেবীকে বরণ করেন পুরোহিতমশাই

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন