Connect with us

দেশ

আর রাখঢাক নয়, এ বার বিজেপিকে সরাসরি ভোট দেওয়ার আহ্বান মায়াবতীর

এমনিতেই বিজেপি বিরোধিতায় আর বেশি সরব হতে দেখা যায় না মায়াবতীকে। ২০১৮ পর্যন্ত তাঁর যে রূপ দেখা গিয়েছিল, গত বছর লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে তা আমূল বদলে গিয়েছে।

Published

on

Mayawati

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আর কোনো রাখঢাক নয়, এ বার সরাসরি বিজেপিকে (BJP) ভোট দেওয়ার আহ্বান জানালেন বসপা নেত্রী মায়াবতী।

কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরার (Priyanka Gandhi Vadra) একটি টুইটকে কেন্দ্র করে এই জল্পনা আরও বেড়ে গিয়েছে। মায়াবতীর একটি ভিডিও ক্লিক টুইটে পোস্ট করে প্রিয়ঙ্কা। সেখানে তিনি দলীয় কর্মীদের বলছেন, “সমাজবাদী পার্টিকে যে কোনো মূল্যে হারাতে হবে। তার জন্য বিজেপি-কেও যদি ভোট দিতে হয়, তা হলে তাই হবে।”

এমনিতেই বিজেপি বিরোধিতায় আর বেশি সরব হতে দেখা যায় না মায়াবতীকে। ২০১৮ পর্যন্ত তাঁর যে রূপ দেখা গিয়েছিল, গত বছর লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে তা আমূল বদলে গিয়েছে।

Loading videos...

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইয়ের চাপে মায়াবতীকে বিভিন্ন বিষয়ে সরাসরি মোদী-বিরোধিতার অবস্থান থেকে সরে যেতে দেখা গিয়েছে। সংসদের ভিতরেও সম্প্রতি কৃষি সংক্রান্ত বিলগুলি পাশ করানো নিয়ে গোটা বিরোধী শিবির এমনকি, শিরোমণি অকালি দলের মতো বিজেপি-র বন্ধু দলও যখন বিরোধিতায় সরব, বসপাকে দেখা গিয়েছে কার্যত মোদী সরকারের পাশেই থাকতে।

অতীতে বিজেপির সঙ্গে জোট গড়ে উত্তরপ্রদেশে সরকার গড়তে দেখা গিয়েছে দলিত নেত্রীকে। তবে পরে গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ান। এমনকি ২০১৮-য় উত্তরপ্রদেশে একাধিক লোকসভা উপনির্বাচনে অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টিকে সমর্থন জানান মায়াবতী। দুর্দান্ত ভাবে সফল হয় সেই জোট। রাজনীতির জগতে ‘বুয়া-ভাতিজা’ হিসেবে উদয় হয় মায়াবতী আর অখিলেশের।

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে এই জোট চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়। ২০১৪-এর ফলাফলেরই পুনরাবৃত্তি করে ফেলে বিজেপি। তখন থেকেই সুর বদলাতে শুরু করে মায়াবতীর। দলিতদের ওপরে অত্যাচারের ঘটনা ঘটলেও সাম্প্রতিক কালে ভীম আর্মি প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদ যে ভাবে সরব হচ্ছেন, মায়াবতীকে একদমই সরব হতে দেখা যাচ্ছে না।

উল্লেখ্য, উত্তরপ্রদেশে বিধানসভার উপনির্বাচন আসন্ন। হবে ১০টি আসনে রাজ্যসভার ভোটও। এই পরিস্থিতিতে মায়াবতীর এই অবস্থান কিন্তু যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

স্বস্তি আরও বাড়িয়ে ভারতে সক্রিয় রোগী নামল ছ’লক্ষের নীচে, আপাতত চিন্তা দিল্লিকে নিয়ে

দেশ

ফেনী-বিলোনিয়া রেলপথের কাজ শুরু হচ্ছে শিগগিরই, দাউদকান্দি-সোনামুড়া জলপথ খননে হাত লাগাবে বাংলাদেশ

তা ছাড়া চট্টগ্রাম থেকে রামগড়-সাব্রুম মৈত্রী সেতু পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ করা হবে।

Published

on

Feni Railway Station

ঋদি হক: চট্টগ্রাম থেকে

উত্তর-পূর্ব ভারতের (North East India) ত্রিপুরার (Tripura) বিলোনিয়া থেকে ফেনী রেলপথ (Belonia-Feni Rail Connectivity) নির্মাণে হাত লাগাতে যাচ্ছে বাংলাদেশ (Bangladesh)। মাত্র ২৭ কিলোমিটার রেলপথ তৈরি হলেই সরাসরি পণ্যবাহী ট্রেন যাতায়াত শুরু করবে উত্তর-পূর্ব ভারতে। তার ফলে সড়ক পথের চেয়ে তুলনায় কম খরচে পণ্য পরিবাহিত হবে।

তা ছাড়া চট্টগ্রাম থেকে রামগড়-সাব্রুম মৈত্রী সেতু পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ করা হবে। তাতে চট্টগ্রাম ও মোংলা বন্দর ব্যবহার করে ভারত তার উত্তরপূর্ব প্রান্তিক রাজ্যগুলোতে পণ্য পাঠাতে পারবে সাশ্রয়ী মূল্যে।

Loading videos...

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ তথা বিআইডব্লিউটিএ-র (BIWTA)  সূত্র বলছে, অচিরেই দাউদকান্দি-সোনামুড়া (Daudkandi-Sonamura) জলপথটিতে খনন কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। এরই মধ্যে এই প্রকল্পের আর্থিক বাজেট পাশ হয়ে গিয়েছে।

বাংলাদেশের চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরটি মূলত প্রাকৃতিক। ১৭০০ খ্রিস্টাব্দে এর স্থিতিশীলতা এসেছে। এর আগে অনেক সুবিধাভোগী বন্দরটি ব্যবহার করলেও উন্নয়নের কাজে তেমন একটা হাত লাগায়নি।

তবে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চেষ্টায় বন্দরের পরিস্থিতি পালটাতে শুরু করে। শেখ হাসিনার হাত ধরে এই বন্দরটি অর্থনৈতিক ভাবে মজবুত হয় এবং ক্রমশ আলোচনায় উঠে আসে। তিনিই ধারাবাহিক দেশ পরিচালনার পাশাপাশি কানেক্টিভিটির ওপর জোর দিয়েছেন। বিশ্বায়নের পথে হাঁটতে হলে কানেক্টিভিটি তথা সংযোগসাধনের বিকল্প নেই। সংযোগসাধনই সভ্যতার প্রতীক।

চট্টগ্রাম বে-টার্মিনাল।

এরই মধ্যে মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর এবং চট্টগ্রাম নগর-সংলগ্ন সাগর উপকূলে নির্মিত হচ্ছে বে-টার্মিনাল (Chattagram Bay Terminal), যার অবস্থান চট্টগ্রাম বন্দরের কাছাকাছি। এই দু’টো গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাকে কেন্দ্র করে সড়ক ও রেলপথ উন্নয়নের কাজ চলছে। 

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান তথা প্রসাশক খোরশেদ আলম সুজন বলেন, চট্টগ্রাম বন্দর থেকে সাগরতীর বরাবর বিশাল চওড়া কংক্রিটের দৃষ্টিনন্দন সড়কটি প্রায় ৭৫ কিলোমিটার দীর্ঘ। চার লেনের এই সড়কটি যুক্ত হবে মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে।

তিনি আরও জানালেন, চট্টগ্রাম থেকে রেলপথ যুক্ত হবে খাগড়াছড়ির রামগড়ে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী সেতু পর্যন্ত, যার দূরত্ব ১২০ কিলোমিটার। রামগড় সেতু প্রান্ত থেকে বাংলাদেশের বারইয়ারহাট পর্যন্ত সড়কটি প্রশস্ত করার কাজ এরই মধ্যে শেষ হয়েছে।

মেরিনড্রাইভ থেকে সীতাকুণ্ডর আংশিক পর্যন্ত ৩০ কিলোমিটার জুড়ে রয়েছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। চট্টগ্রাম বন্দর থেকে কমপক্ষে ৩০/৪০ মেট্রিক টন পণ্যবাহী বড়ো আকারের ট্রেলর ত্রিপুরা-সহ ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলোতে যাতায়াত করবে। এই বিষয়টি মাথায় রেখেই সড়ক প্রশস্ত করার কাজে হাত লাগানো হয়েছে। 

মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্রবন্দর এবং বে-টার্মিনাল নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম অর্থনৈতিক হাবে পরিণত হবে বাংলাদেশ।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান তথা প্রশাসক মো. খোরশেদ আলম সুজন।

রামগড়-সাব্রুম মৈত্রী সেতু এবং ফেনী-বিলোনিয়া রেলপথের ওপর জোর দিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান তথা প্রশাসক মো. খোরশেদ আলম সুজন। তিনি বলেন, অতি দ্রুত এই কাজগুলো তাঁরা সম্পন্ন করতে চান। তাঁর ভাষায়, “‘থাকবো নাকো বদ্ধ ঘরে…’। আমরা সব কিছু উন্মুক্ত করে দিয়েছি। আমাদের চাওয়া কেবল উন্নয়ন। আর সুবিধা না দিলে তো কেউ আমাদের এখানে আসবেন না।”

পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত সংলগ্ন বিশাল এলাকা নিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে  বে-টার্মিনাল নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। পতেঙ্গায় সাগরে দেখা গেল শ’ শ’ পণ্যবাহী জাহাজ খালাসের অপেক্ষায়। বন্দর থেকে নির্দেশনা এলেই এ সব জাহাজে পাইলট আসবে এবং জাহাজ নিয়ে বন্দরের নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছোবে।

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতের পাশে পণ্য খালাসের অপেক্ষায় শ শ জাহাজ।

মূলত ফেনী-বিলোনিয়া রেলপথ এবং রামগড়-সাব্রুম মৈত্রী সেতুর কাজ শুরু হয়ে যাবে ২০২১ সালে। তখন দিনে দিনে পণ্যবাহী ট্রেলর ও ট্রেন পৌঁছে যাবে ত্রিপুরা, অসম ও আশপাশের রাজ্যগুলোয়।

খবরঅনলাইনে আরও পড়ুন

মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্র বন্দর উত্তরপূর্ব ভারতের কাছে আশীর্বাদ, সুবিধা পাবে পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা-হলদিয়াও

Continue Reading

দেশ

দুর্ভাগ্য! ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে, বৈঠকে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

“ভ্যাকসিন কবে আসবে, তা বিজ্ঞানীরা ঠিক করবেন”, বললেন প্রধানমন্ত্রী!

Published

on

নয়াদিল্লি: মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে কোভিড-১৯ মোকাবিলা এবং টিকাকরণ পরিকল্পনা নিয়ে নিজের বিস্তৃত বক্তব্য পেশ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ভ্যাকসিন কবে আসবে, তা বিজ্ঞানীরা ঠিক করবেন। ভ্যাকসিন নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর এখনও মেলেনি। ভ্যাকসিনের ডোজ অথবা দাম কত হবে, তা স্থির হয়নি। তবে টিকাকরণ নিয়ে আগে থেকেই প্রস্তুত থাকতে হবে”।

ভারতে এখনও পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ভ্য়াকসিনের ট্রায়াল ভালো অবস্থানে রয়েছে বলে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী জানান, “টিকাকরণ অভিযান অনেক লম্বা। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করতে সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। ভ্যাকসিনের বিতরণ সমস্ত রাজ্যের সঙ্গে কথা বলেই করা হবে। প্রত্যেক রাজ্যকে একটি স্টিয়ারিং কমিটি তৈরি করতে হবে। কী ভাবে দেশের সর্বত্র টিকা পৌঁছাবে, তা নিয়ে সবাইকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। তবে ভ্যাকসিন আসার আগে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই পুরোদমে চালিয়ে যেতে হবে”।

Loading videos...

করোনার বিরুদ্ধে কোনো রকমের ঢিলেমি দেওয়া যাবে না বলে পরামর্শ দিয়ে মোদী বলেন, “সাহসের সঙ্গে করোনা মোকাবিলা করছে ভারত। অন্য দেশের থেকে আমাদের দেশে সুস্থতার হার বেশি। কিন্তু করোনায় মৃত্যুহার আরও কমাতে হবে। যা ১ শতাংশের নীচে নামিয়ে নিয়ে আসাই প্রথম লক্ষ্য হওয়া উচিত। কয়েকটি রাজ্যের পরিস্থিতি এখনও সংকট জনক। এই পরিস্থিতির মোড় ঘোরাতে হবে। সতর্কতায় কোনো রকম ঢিলেমি চলবে না”।

তিনি বলেন, “সুস্থতার হার বেড়ে যাওয়ায় কেউ কেউ মনে করছেন, ভাইরাস দুর্বল হয়ে গিয়েছে। এর ফলে ব্যাপক উদাসীনতা দেখা যাচ্ছে। ভ্যাকসিন নিয়ে যাঁরা কাজ করছেন, তাঁরা কাজ চালিয়ে যান, কিন্তু সংক্রমণ ঠেকাতে আমাদের উদাসীনতা বিপদ ঢেকে আনতে পারে। এখন আমাদের দেশে সংক্রমণের হারকে ৫ শতাংশের নীচে নিয়ে আসতে হবে”।

অক্সিজেন এবং ভেন্টিলেটর সরবরাহ প্রসঙ্গে মোদী বলেন, “আমরা আরও বেশি করে অক্সিজেন এবং ভেন্টিলেটর সরবরাহে মনোনিবেশ করেছি। মেডিক্যাল কলেজ এবং জেলা হাসপাতালগুলিকে অক্সিজেনের ক্ষেত্রে স্বাবলম্বী করার চেষ্টা করছি। দেশে ১৬০টিরও বেশি অক্সিজেন উৎপাদনের প্লান্ট স্থাপনের প্রচেষ্টা চলছে”।

 প্রধানমন্ত্রী বলেন, “এটা কি দুর্ভাগ্যের বিষয় নয়, যে কেউ কেউ কোভিড ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি করছে? তবে আমরা এই ধরনের লোকেদের বাধা দিতে কী-ই বা করতে পারি”!

আরও পড়তে পারেন: কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, উপস্থিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading

দেশ

প্রথম পর্যায়ের টিকাকরণে চিহ্নিত এক কোটি সামনের সারির স্বাস্থ্যকর্মী

দেশের প্রায় ৯২ শতাংশ সরকারি হাসপাতাল এবং ৫৫ শতাংশ বেসরকারি হাসপাতাল প্রথম পর্যায়ে টিকাকরণের যাবতীয় তথ্য জমা করেছে।

Published

on

প্রথম পর্যায়ে হবে স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকাকরণ। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: কোভিড-টিকা হাতে পেলেই তা সবার আগে স্বাস্থ্যকর্মীদের দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই উদ্দেশেই সামনের সারির এক কোটি স্বাস্থ্যকর্মীকে চিহ্নিত করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারি আধিকারিক সূত্রে খবর, বিভিন্ন রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি করোনা মোকাবিলায় নিয়োজিত সামনের সারির স্বাস্থ্যকর্মীদের চিহ্নিত করছে। বর্তমানে সম্ভাব্য ভ্যাকসিনগুলির মধ্যে পাঁচটির ট্রায়ালে আশাব্যঞ্জক ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। এগুলির মধ্যে চারটি রয়েছে দ্বিতীয় অথবা তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে, একটি রয়েছে প্রথম অথবা দ্বিতীয় পর্যায়ে।

রাজ্যগুলিকে চিকিৎসক, এমবিবিএস পড়ুয়া, নার্স এবং আশাকর্মীদের মতো সামনের সারির স্বাস্থ্যকর্মীদের চিহ্নিতকরণের নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্র। এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হতে আর এক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Loading videos...

রাজ্যগুলির উদ্দেশে চিঠি দিয়ে কেন্দ্র জানিয়েছে, প্রথম ধাপে স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকাকরণ করা হবে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সমস্ত রকমের ব্যবস্থা যেন আগাম করে রাখা হয়। টিকাকরণে প্রয়োজনীয় মানবসম্পদ,
ভিড় ব্যবস্থাপনা এবং সামগ্রিক ভাবে সমন্বয় সাধনের জন্য আগাম ব্যবস্থার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে এক আধিকারিক জানান, দেশের প্রায় ৯২ শতাংশ সরকারি হাসপাতাল এবং ৫৫ শতাংশ বেসরকারি হাসপাতাল প্রথম পর্যায়ে টিকাকরণের যাবতীয় তথ্য জমা করেছে। বাকি অংশের কাছ থেকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই তথ্য হাতে চলে আসবে বলে আশাপ্রকাশ করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানান, আগামী ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে সমস্ত প্রস্তুতি হয়ে যাবে। টিকাকরণের জন্য স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগের কাজ চলছে। তাঁদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলত জানিয়েছেন, কোভিড-টিকা প্রাপকদের তালিকায় সবার প্রথম সারিতে রয়েছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা৷ তাঁদের তাই সব থেকে আগে রাখা হয়েছে৷ করোনা ভ্যাকসিন আসার সবরকমের প্রস্তুতি করে ফেলেছে রাজস্থান সরকার।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, তিনি করোনা ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্ণধার আদর পুনাওয়ালার সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ রেখে চলছেন। সময় মতো ভ্যাকসিনের বিতরণ এবং টিকাকরণ কার্যকর করার লক্ষ্যে রাজ্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করেছে।

আরও পড়তে পারেন: কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, উপস্থিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading
Advertisement
ক্রিকেট7 mins ago

প্রথম দুটি টেস্ট থেকে বাদ রোহিত-ইশান্ত, সংশয়ে শেষ দুটি টেস্টে উপস্থিতি নিয়েও

শিক্ষা ও কেরিয়ার27 mins ago

টেট-২০১৪ পাশ যোগ্য প্রার্থীদের শিক্ষকপদে নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি জারি

রাজ্য56 mins ago

“এক দল, এক ভাষা আনতে চাইছে বিজেপি”, কেন্দ্রের শাসক দলকে নিশানা সৌগত রায়ের

Feni Railway Station
দেশ1 hour ago

ফেনী-বিলোনিয়া রেলপথের কাজ শুরু হচ্ছে শিগগিরই, দাউদকান্দি-সোনামুড়া জলপথ খননে হাত লাগাবে বাংলাদেশ

দেশ2 hours ago

দুর্ভাগ্য! ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি হচ্ছে, বৈঠকে বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজ্য2 hours ago

টিকাকরণে এক সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত রাজ্য, প্রধানমন্ত্রীকে জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কলকাতা3 hours ago

পাইপ ফেটে বিপত্তি, শনিবার সকাল থেকে রবিবার বিকেল পর্যন্ত বন্ধ টালা থেকে জল সরবরাহ

দেশ3 hours ago

প্রথম পর্যায়ের টিকাকরণে চিহ্নিত এক কোটি সামনের সারির স্বাস্থ্যকর্মী

কেনাকাটা

কেনাকাটা3 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা6 days ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 months ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা2 months ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

নজরে