দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী তিনি? মায়াবতীর ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্যে রাজনৈতিক মহলে শোরগোল

0
Mayawati
মায়াবতী। ফাইল ছবি

লখনউ: ছোট্ট করে একটা ইঙ্গিত দিয়েছিলেন মাস দুয়েক আগে। যখন বসপা নেত্রী মায়াবতী বলেছিলেন, এখন ভোটে না দাঁড়ালেও, ছ’মাসের মধ্যে জিতে সংসদে আসতে কোনো অসুবিধা নেই তাঁর। কিন্তু এ বারই প্রথম প্রধানমন্ত্রিত্ব নিয়ে সরাসরি একটি ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে বিঁধতে গিয়ে নিজের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্নকেই এক বার ঝালিয়ে নিলেন মায়াবতী, এমনই মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। কী বললেন মায়াবতী?

বসপা নেত্রীর কথা, দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য তিনিই ‘উপযুক্ত’। এটা বলতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য ‘অনুপযুক্ত’ হিসেবেও আখ্যা দেন মায়াবতী। এই প্রসঙ্গে একটি বিবৃতিতে মায়াবতী শুক্রবার বলেন, “উন্নয়নের কাজই যদি ধরা হয়, তা হলে এটা বলা যেতেই পারে যে উত্তরপ্রদেশের চেহারাই বদলে দিয়েছিল বসপা। লখনউ শহরকে সুন্দর করে সাজানো হয়েছিল। এই সব কাজ থেকে এটা প্রমাণিত হচ্ছে, যে উন্নয়ন এবং জনকল্যাণের ক্ষেত্রে বসপা নেত্রী অনেক বেশি উপযুক্ত এবং নরেন্দ্র মোদী অনুপযুক্ত।”

মায়াবতী আরও যোগ করেন, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তাঁর সময়কালে রাজ্যে কোনো আইনশৃঙ্খলার সমস্যা ছিল না। পাশাপাশি তিনি জনকল্যাণমূলক নীতি নিয়েই কাজ করেছেন। অন্য দিকে মোদীর শাসনকালে গুজরাতে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের মতো কলঙ্কজনক ঘটনা ঘটেছে বলেও দাবি করেন মায়া।

আরও পড়ুন গডসেকে নিয়ে সাধ্বীর মত বদল কি প্রমাণ করে নিশ্চিত একটি আসন হারানোর ভয় ঢুকেছে বিজেপির মধ্যে?

এই প্রথম প্রধানমন্ত্রীর পদের জন্য মায়াবতী সরাসরি ইঙ্গিত দিলেও, বিজেপি বিরোধী কিছু দল আগে থেকেই মায়াবতীকে প্রধানমন্ত্রী পদে বসানোর ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন। এর মধ্যে অন্যতম সপা নেতা অখিলেশ যাদব এবং এনসিপি নেতা শরদ পওয়ার।

মায়াবতী প্রসঙ্গে অখিলেশ বলেন, “আমাদের ইচ্ছের কোনো সংঘাত নেই। আমি মায়াবতীকেই দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই, আর উনি আমাকে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবেই দেখতে চান।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here