ওয়েবডেস্ক: কথায় বলে ‘টাইম ইজ দ্য বেস্ট হিলার’, অর্থাৎ ‘সময় সব কিছু ভুলিয়ে দেয়।’ সেই প্রবাদটাই সত্যি হয়ে যায় যখন দেখা যায় ২৪ বছর পর নিজের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর হয়ে ভোট চাইতে ময়দানে নামবেন তাঁর ‘রাজনৈতিক শত্রু।’

এই দু’জন হলেন বসপার মায়াবতী এবং সপার মুলায়ন সিংহ যাদব। ২৪ বছর পর মুলায়মের হয়ে ভোট প্রচারে নামতে চলেছেন মায়াবতী। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১৯ এপ্রিল মৈনপুরীতে মেগা র‍্যালি হবে। সেই সভায় উপস্থিত থেকে মুলায়মের হয়ে প্রচার করবেন বসপা নেত্রী।

২৪ বছর আগে শুরু হওয়া তিক্ত সম্পর্কের এ বার ইতি পড়বে, সেটা আগে থেকেও আন্দাজ করা যায়নি। কারণ বসপার সঙ্গে হাত মেলানো ছেলে অখিলেশের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি বাবা মুলায়ম। এমনকি লোকসভায় দাঁড়িয়ে নরেন্দ্র মোদীকে দ্বিতীয় বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্যও আগাম শুভেচ্ছা দেন তিনি। এ সব দেখেই মনে হচ্ছিল হয়তো মুলায়মকে টিকিট দেবে না সপা। কিন্তু সপায় এখনও মুলায়মের প্রভাব যথেষ্ট রয়েছে। সেটা বুঝেই নিজের খাসতালুক মৈনপুরীতে মুলায়মকে প্রার্থী করা হয়। এ বার তাঁর হয়ে প্রচারে নামবেন মায়াবতী।

১৯৯৫ সালে শেষ বার এক সঙ্গে দেখা গিয়েছিল মায়াবতী-মুলায়মকে। সে বছর জুন থেকেই অহি-নকুল সম্পর্ক দু’ জনের মধ্যে। সপা-বসপার জোট সরকার ভেঙে দেওয়া এবং তার পর সপা সমর্থকদের হাতে মায়াবতীর আক্রান্ত হওয়ার ঘটনার পর শুরু হয় রাজনৈতিক চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিতা।

mayawati mulayam
তখন কাশীরাম আর মায়াবতীর সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিল মুলায়মের।

১৯৯৩ সালে শেষ বার জোট করে সরকার গড়েছিল সপা-বসপা। রামমন্দিরকে কেন্দ্র করে রাজ্যে তখন বিজেপি-হাওয়া। সেই হাওয়াকে থামিয়ে দিতেই জোট করলেন সপার মুলায়ম এবং বসপার কাশীরাম। স্লোগান উঠল ‘মিলে মুলায়ম, কাশীরাম, হাওয়া মে উড় গ্যায় জয় শ্রীরাম।’

আরও পড়ুনআদালতে হাজির করা হলেও তাপোত্তাপ নেই মসজিদে হামলাকারী জঙ্গির

বাইরে থেকে কংগ্রেসের সমর্থনে সরকার গড়ল সপা-বসপা জোট। কিন্তু দু’ বছর পরেই সেই জোটের ইতি। বসপার সমর্থন প্রত্যাহার এবং সপার হাতে আক্রান্ত হওয়া। তার পর থেকে মায়াবতী এবং মুলায়ম একে অপরের ‘রাজনৈতিক শত্রু।’ একে অপরের বিরুদ্ধে আক্রমণ অনেক সময়ে শালীনতার মাত্রাও ছাড়িয়েছে।

দু’ দলের মধ্যে এ বারের জোট আটকাতে সেই ঘটনার কথা বার বার মনে করিয়েছেন মোদী। অন্য দিকে অখিলেশও বলে দিয়েছেন, তাঁর ‘বুয়াকে’ অসম্মান করা হলে সেটা তাঁর নিজের প্রতিও অসম্মান হবে।

২০১৬ সালে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন চলাকালীন পার্ক সার্কাসে প্রচারমঞ্চে এক সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী এবং সিপিএমের বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। অনেকটা সে রকমই কিছু দেখতে চলেছে আগামী ১৯ এপ্রিলের মৈনপুরী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here